মার্চ ১৭, ২০১৬
Home » জাতীয় » মুন্সিগঞ্জ থেকে জকিগঞ্জ; অত:পর বিয়ে…

মুন্সিগঞ্জ থেকে জকিগঞ্জ; অত:পর বিয়ে…

এইবেলা, জকিগঞ্জ, ১৭ মার্চ:: ফেইসবুক আর মোবাইল ফোনের মাধ্যমে পরিচয়। সময়ের সাথে দিন গড়ায়। পরিচয় রূপ নেয় পরিণয়ে। পরিণয় কিশোরীকে নিয়ে আসে সুদূর মুন্সিগঞ্জ থেকে জকিগঞ্জে।

মুন্সিগঞ্জ জেলার নমলাকান্দি থানার লৌজুন ইউনিয়নের এক মেয়ের সাথে প্রায় বছর খানেক আগে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে পরিচয় হয় জকিগঞ্জ পৌর এলাকার নোয়াগ্রামের মুজিবুর রহমান মন্টুর ছেলে সেতু আহমদের (২৫)। ধীরে ধীরে তাদের সম্পর্ক আরো গভীর হয়। একপর্যাযে সুদূর মুন্সীগঞ্জ থেকে প্রেমের টানে কিশোরী ছুটে এসেছেন জকিগঞ্জে প্রেমিকের বাড়িতে।

জকিগঞ্জ পৌর এলাকার নোয়াগ্রামের মুজিবুর রহমান মন্টুর ছেলে সেতু আহমদ (২৫) এর সাথে মোবাইল কলের সূত্র ধরে পরিচয় ঘটে। দীর্ঘদিনের সর্ম্পকের সুবাদে প্রেমিক সেতু আহমদের বিয়ের প্রস্তাবে সাড়া দিয়ে মেয়েটি চলে আসে সিলেটে।

৩/৪দিন সিলেটের একটি রেস্ট হাউসে প্রেমিকের সাথে সময় কাটিয়ে কৌশলে প্রেমিকের বাড়িতে এসে পৌছে। প্রেমিকের বড়িতে পৌঁছানোর পর বাধে বিপত্তি। দু’চারদিন থাকার পর শুরু হয় প্রেমিকের চাপাচাপি অন্যত্র চলে যাওয়ার জন্য। কিন্তু মেয়েটি বিয়ের দাবিতে অনড় থাকায় শুরু হয় নির্যাতন। প্রেমিক সেতু প্রেমিকাকে ঘরে রেখে পালিয়ে যায়।

একপর্যায়ে বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হয়। এলাকাবাসী স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর সাহাব উদ্দিন সাকিলকে অবগত করেন। কাউন্সিলর সাহাব উদ্দিন সাকিল বিষয়টি শুনে সেতুর পরিবারকে বিয়ের জন্য বললেও পাত্তা দেননি সেতুর ঘরের লোকজন। মেয়েটিকে এলাকা ছাড়া করতে শুরু হয় টাকার খেলা। অবশেষে বুধবার কাউন্সিলর সাকিল স্থানীয় সাংবাদিকদের নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে পরিবার সদস্যদের তোপের মূখে পড়তে হয়। এসময় ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও সাংবাদিকদের সাথে কথা বলারও সুযোগ দেওয়া হয়নি নির্যাতনের শিকার মেয়েটিকে।

এলাকার লোকজন জানান, গভীর রাতে সেতু আহমদের বাড়ি থেকে মেয়েকণ্ঠের কান্নার চিৎকার বাড়ি থেকে শুনা যায়। আপাতত মামলা থেকে রক্ষা পেতে অবশেষে বুধবার সন্ধ্যায় অল্প পরিমাণের মোহরানায় সেতু বিবাহে আবদ্ধ হয় নির্যাতিত মেয়ের সাথে। কিন্তু এলাকাবাসীর ধারণা নির্যাতনের শিকার মেয়েটি এ পরিবারে অল্প মোহরানায় নিরাপদ নয়। আপাতত বিপদকালীন সময় থেকে রক্ষা পেতে বিয়ের আয়োজন করা হয়েছে।

জকিগঞ্জ পৌরসভার মেয়র খলিল উদ্দিন বিয়ের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, যুবলীগ নেতা শিহাব উদ্দিনসহ এলাকার মুরব্বিদের উপস্থিতিতে ইসলামী শরিয়ত মোতাবেক বিবাহ হয়েছে। তিনি আশা প্রকাশ করেন, মেয়েটি সুন্দর মত সংসার গড়তে পারবে।