মে ১৮, ২০১৫
Home » অর্থ ও বাণিজ্য » বিশ্বনাথে স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক থেকে গ্রাহকের সাড়ে ৮ লাখ টাকা উধাও!

বিশ্বনাথে স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক থেকে গ্রাহকের সাড়ে ৮ লাখ টাকা উধাও!

এইবেলা, বিশ্বনাথ (সিলেট),১৮ মে :- সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলাস্থ স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংকের শাখা থেকে এক গ্রাহকের সাড়ে ৮ লাখ টাকা উধাও হয়ে গেছে। ব্যাংক শাখার সাবেক এক ব্যবস্থাপক ও ক্যাশিয়ারের যোগসাজশেই ওই টাকা উধাও হয়েছে বলে জানা গেছে। এদিকে ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে ব্যাংকের বিশ্বনাথ শাখার সাবেক ব্যবস্থাপক হোসেইন আহমদ পাপ্পু ও ক্যাশিয়ার সালাহ উদ্দিনকে ইতিমধ্যে ক্লোজড করা হয়েছে।

জানা যায়, স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংকের গ্রাহক ও বিশ^নাথ উপজলো সদরের আল-হেরা শপিং সিটির অপরূপা ফ্যাশনের পরিচালক রাসেল আহমদ গত বছরের ২৩ নভেম্বর ৫ লাখ টাকা, ২৪ ডিসেম্বর সাড়ে ৩ লাখ টাকা করে মোট সাড়ে ৮ লাখ টাকা স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক বিশ্বনাথ শাখায় তার হিসাব নং ০৪৫৩৩০০০২০৬ এ জমা রাখেন। কিন্তু রাসেল টাকা জমা রাখলেও সেই টাকা কৌশলে তার মূল হিসাবের সাথে জমা করেননি ওই সময় ব্যাংকের শাখা ব্যবস্থাপকের দায়িত্বে থাকা হোসেইন আহমদ পাপ্পু ও ক্যাশিয়ার সালাহ উদ্দিন।

গত ৫ মে রাসেল নিজের হিসাব থেকে টাকা তুলতে গিয়ে কোনো টাকা নেই দেখে অবাক হন। বিষয়টি নিয়ে ব্যাংক কর্মকর্তাদের সাথে আলাপের পর বেরিয়ে আসে থলের বেড়াল। ধরা পড়ে টাকা গায়েব করে দেয়ার কাহিনী। কর্মকর্তাদের পরামর্শে রাসেল বিষয়টি লিখিত আকারে অভিযোগ হিসেবে জমা দেন।

অভিযোগের ভিত্তিতে ওইদিনই ওই সময়কার স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংকের বিশ্বনাথ শাখার ব্যবস্থাপকের দায়িত্বে থাকা বর্তমানে সিলেটের বিয়ানীবাজার স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক শাখার ব্যবস্থাপক হোসেইন আহমদ পাপ্পু এবং বিশ্বনাথ শাখার ক্যাশিয়ার সালাহ উদ্দিনকে ক্লোজড করা হয়।

কর্মকর্তাদের ক্লোজড করা হলেও এখনো নিজের টাকা ফেরত পাননি বলে অভিযোগ করেছেন রাসেল আহমদ। তবে স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক বিশ্বনাথ শাখার কর্মকর্তারা বলছেন, বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। রাসেল আহমদ অবশ্যই তার টাকা ফেরত পাবেন। তবে কিছুটা সময় লাগবে।

ব্যাংকের বিশ্বনাথ শাখার বর্তমান ব্যবস্থাপক সুজিত চন্দ্র দাশেএইবেলাকে জানান, কিছু সমস্যা আছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। গ্রাহক তার টাকা পেয়ে যাবেন। তবে কিছুটা সময় তো লাগবেই।

বিশ্বনাথ শাখার সাবেক ব্যবস্থাপক ও ক্যাশিয়ারকে ক্লোজড করার বিষয়টি এইবেলাকে নিশ্চিত করেছেন।#