আগস্ট ৩১, ২০১৬
Home » জাতীয় » বড়লেখায় ৪ পান পুঞ্জিবাসী মতবিনিময়

বড়লেখায় ৪ পান পুঞ্জিবাসী মতবিনিময়

এইবেলা, বড়লেখা, ৩১ আগস্ট :: মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখা উপজেলার সীমান্তবর্তী শাহবাজপুর ইউনিয়নের ৪ পানপুঞ্জির খাসিয়া অধিবাসীর (নৃ-গোষ্ঠীভুক্ত) মধ্যে ভিটা ছাড়া হওয়ার আতংক বিরাজ করছে। মঙ্গলবার বিকেলে কুমারশাইল পানপুঞ্জির মন্ত্রী (হেডম্যান) ভিষণ ইয়াংনের বাড়িতে স্থানীয় আদিবাসী নেতৃবৃন্দ গণমাধ্যমকর্মী, জনপ্রতিনিধি ও সমাজকর্মীর সাথে তাদের নানা সংশয়ের বিষয়ে মতবিনিময় করেন। সভায় খাসিয়ারা অভিযোগ করেন নব্য চা বাগান মালিকদের আগ্রাসী আক্রমনের শিকার ৪ পানপুঞ্জির দুই সহস্রাধিক অধিবাসী।

Barlekha-31.8

মতবিনিময় সভায় লিখিত বক্তব্যে কুমারসাইল পানপুঞ্জির মন্ত্রী ভিষণ ইয়াংনে জানান, সাড়ে তিনশ’ বছর ধরে বংশ পরম্পরায় আমরা পাহাড়ে বসবাস করছি। রায় বাহাদুর নবকুমার এস্টেট থেকে লিজ নেয়া ভুমিতে এসব খাসিয়া পুঞ্জির গোড়াপত্তন। পরবর্তীতে ১৯৩৪ সালে সিলেট টি কোম্পানীর মালিকানায় পাল্লাথল, আল্লাদাদ, কুমারসাইলসহ চা বাগানগুলোর যাত্রা শুরু। রাজনৈতিক পটপরিবর্তনে মালিকানা পরিবর্তনের সাথে সাথে নব্য মালিকদের ভুমিখেকো আগ্রাসী তৎপরতা বাড়তে থাকে। আদিবাসী খাসিয়াদের ওপর হামলা-মামলা ও নির্যাতনের থড়গ নেমে আসে। কুমারসাইল, পাল্লাথল, বাতামন্ডল ও গান্ধাই পানপুঞ্জি সংলগ্ন চা বাগান মালিকরা আমাদের ভোগ দখলিয় ভুমির গাছপালা কেটে বিক্রি করছে আবার  খাসিয়াদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে হয়রানী করছে। বাতামন্ডল পুঞ্জি লাগোয়া চা বাগান মালিক সম্প্রতি দেড় শতাধিক সুপারীসহ বিভিন্ন প্রজাতির গাছ কেটে খাসিয়াদের সরে যেতে ৪০ দিনের আল্টিমেটাম দিয়েছে। এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান বরাবরে পুঞ্জির পক্ষে লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে। নব্য চা বাগান মালিকদের খাসিয়াদের ভুমি দখলের আগ্রাসী তৎপরতায় ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী বর্তমানে চরম অস্থিত্ব সংকটে।

আদিবাসীর অস্থিত্ত্বের বিষয়টি স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনকে আন্তরিকভাবে দেখার আহবান জানিয়ে বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরামের সিলেট চ্যাপ্টারের প্রেসিডেন্ট পিডিশন প্রধান বলেন, এটা মানতেই হবে খাসিয়ারা পরিবেশ রক্ষায় নীরব বিপ্লব চালিয়ে যাচ্ছে। গবেষনায় দেখা গেছে পানজুমে যে জীববৈচিত্র্য দেখা যায়, সরকারী রিজার্ভ ফরেস্টে এমন জীববৈচিত্র দেখা যায় না। খাসিয়াদের ভুমি সমস্যার রাতারাতি সমাধান সম্ভব না হলেও এখান থেকে যাতে চলে যেতে না হয়ে সেদিকে সংশ্লিষ্টদের দৃষ্টি রাখতে হবে। সভায় আদিবাসীদের নানা সমস্যা তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন মৌলভীবাজার জেলা হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদ ও আদিবাসী ফোরাম সিলেট বিভাগের আইন উপদেষ্ঠা অ্যাডভোকেট ডাডলি ডেরিক পেন্টিস, দক্ষিণ শাহবাজপুর ইউপি চেয়ারম্যান সাহাব উদ্দিন, উত্তর শাহবাজপুর ইউপির প্যানেল চেয়ারম্যান আবুল হোসেন আলম, বড়লেখা প্রেসক্লাব সভাপতি অসিত রঞ্জন দাস, সমাজকর্মী ও সাবেক ইউপি মেম্বার রহিম উদ্দিন, আব্দুর রহমান বাবুল, ইউপি মেম্বার মখলিছুর রহমান, আনিছুর রহমান, উত্তর শাহবাজপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারন সম্পাদক কামাল হোসেন, পানপুঞ্জির হেডম্যান রাজেশ খাসিয়া, টলবিলামিন খাসিয়া প্রমূখ।#

রিপোর্ট- অতিথি প্রতিবেদক