জুন ১, ২০১৫
Home » মৌলভীবাজার » কমলগঞ্জে কমলকুঁড়ি পত্রিকার ৫ম বর্ষে পদার্পণ অনুষ্ঠান

কমলগঞ্জে কমলকুঁড়ি পত্রিকার ৫ম বর্ষে পদার্পণ অনুষ্ঠান

এইবেলা, কমলগঞ্জ ০১ জুন :-

কেক কাটা, আলোচনা সভা, গানে-কবিতায় নানা আয়োজনে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে পাক্ষিক কমলকুঁড়ি পত্রিকার ৫ম বর্ষে পদার্পণ অনুষ্ঠান রোববার (৩১ মে) রাত ৮টায় উপজেলা পরিষদ সভা কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। কমলকুঁড়ি পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক পিন্টু দেবনাথের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম মিঞা। আমন্ত্রিত অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন অষ্ট্রেলিয়া প্রবাসী বিশিষ্ট জিন বিজ্ঞানী ড. আবেদ চৌধুরী, যুক্তরাজ্য প্রবাসী বিশিষ্ট সাংবাদিক-কলামিষ্ট ইসহাক কাজল, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আজগর আলী।  লেখক ও সাংবাদিক শাব্বির এলাহীর প্রান্তবন্ত উপস্থাপনায় পাক্ষিক কমলকুঁড়ি ৫ম বর্ষে পদার্পণে আলোচনায় অংশগ্রহণ করে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, লেখক-গবেষক আহমদ সিরাজ, কমলগঞ্জ সাংবাদিক সমিতির সভাপতি ডা. আবুল হান্নান চিনু, প্রথম আলো প্রতিনিধি মুজিবুর রহমান রঞ্জু, সাপ্তাহিক কমলগঞ্জ সংবাদ সম্পাদক মো: সানোয়ার হোসেন, দৈনিক যুগভেরী প্রতিনিধি বিশ্বজিৎ রায়, সমকাল প্রতিনিধি প্রনীত রঞ্জন দেবনাথ, সংবাদ প্রতিনিধি মো: শাহীন আহমেদ, কমলগঞ্জের কাগজ পত্রিকার প্রধান সম্পাদক মো: মোস্তাফিজুর রহমান, মাসিক চা মজদুর সম্পাদক সীতারাম বীন, তরুন সমাজকর্মী মিজানুর রহমান মিষ্টার, কবি ও সঙ্গীত শিল্পী রোহিত কৈরী জীবন প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম মিঞা বলেন, যে কোন কাজে ইচ্ছা শক্তি থাকলে সফলতা আসে। কমলকুঁড়ি পত্রিকার গুণগত মান অত্যন্ত ভালো। তথ্য নির্ভর নিউজ পত্রিকায় প্রকাশ হলে ডকুমেন্ট হয়ে যায়। একজন ব্যক্তির চেয়ে পেশা অনেক মূল্যবান। একটি ব্যক্তি কিছু না, যদি তার চেয়ার না থাকে। অনেক ভালো পত্রিকায় ভালো লেখা পাইনা। কিন্তু কমলগঞ্জের স্থানীয় পত্রিকাগুলোতে অনেক ভালো লেখা পেয়ে থাকি। আমি ফিচার পড়তে ভালাবাসি। অত্যন্ত স্বাবলীল ভাষায় কমলগঞ্জের সাংবাদিকরা লেখনীর মাধ্যমে ফিচার উপস্থাপন করে থাকেন। কমলকুঁড়ি পত্রিকাকে আরও সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে এজন্য অনেক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে। হতাশার কিছু নেই, আমাদের জীবন একটাই। মনের জোর চিন্তা শক্তি থাকলে সফলতা অনিবার্য। মৌলভীবাজার জেলার মাঝে সাংবাদিকতায় সরব রয়েছে কমলগঞ্জ। এখান থেকে দুটি সাপ্তাহিক, একটি পাক্ষিক ও একটি মাসিক পত্রিকা নিয়মিত প্রকাশ হচ্ছে। যেগুলোতে উন্নয়ন সম্ভাবনা, সমস্যা ও সমাধান তথ্য নির্ভর সকল সংবাদই থাকে। এই চারটি পত্রিকা যাতে নিয়মিত প্রকাশ হয় উপজেলা প্রশাসন থেকে প্রয়োজনীয় সহায়তা দেওয়া হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে অষ্ট্রেলিয়া প্রবাসী বিশিষ্ট জিন বিজ্ঞানী ড: আবেদ চৌধুরী বলেন, জাতীয় দৈনিক সংবাদপত্রে যেভাবে সংবাদসহ বিভিন্ন প্রয়োজনীয় তথ্য সম্বলিত উপাদন থাকে ঠিক তেমনি আঞ্চলিক দৈনিক, সাপ্তাহিক, পাক্ষিক ও মাসিক পত্রিকায় খবরসহ উপাদান পাওয়া যায়। জাতীয় দৈনিকে স্থানের অভাবে যে আকারে সংবাদ প্রকাশ হয় আঞ্চলিক পত্রিকায় তার চেয়ে বিস্তারিত আকারে প্রকাশ হয়। আঞ্চলিক পত্রিকা টিকিয়ে রাখতে অর্থ ও পরিচালনার জন্য কঠোর পরিশ্রম করেন সম্পাদক। তাই আঞ্চলিক সংবাদপত্রকে কোনভাবে খাটো করে দেখার কিছু নেই।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শামছুদ্দিন আহমদ, মৌলভীবাজার পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার এস, এম, হাসনাত হাসান, উপজেলা নির্বাচন অফিসার মোহাম্মদ ফরহাদ হোসেন, উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী মো: পনিরুজ্জামান, উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা নাফিউন নূর, কমলগঞ্জ প্রেসক্লাব এর সাবেক সভাপতি অধ্যক্ষ মো: হেলাল উদ্দিন, প্রেসক্লাব সভাপতি এম, এ, ওয়াহিদ রুলু, দৈনিক যুগান্তর প্রতিনিধি আব্দুর রাজ্জাক রাজা, দৈনিক যায়যায় প্রতিনিধি প্রমথ পাল পিনাক, বাংলাদেশ বেতার প্রতিরিধি আর. কে. সোমেন, দৈনিক যোগাযোগ প্রতিদিন প্রতিনিধি মো: আসহাবুর ইসলাম শাওন, সাপ্তাহিক মৌমাছি কন্ঠ প্রতিনিধি এনামুল হোসেন, সাপ্তাহিক কমলগঞ্জ সংবাদ প্রতিনিধি এস.এম. এবাদুল হক, কমলকুঁড়ি শমশেরনগর সংবাদদাতা মো: মিজানুর রহমান, রহিমপুর সংবাদদাতা মীর সাজু, নিউজ দেশবাংলা প্রতিনিধি মো: আব্দুল হামিদ, ফটোগ্রাফার মিছবাউদ্দিন, ফটোগ্রাফার নুরুল হাসান, সমাজসেবক আবুল কাহের, ধন মিয়া, রাজেশ, শাহজাহান আহমদ প্রমুখ।

অনুষ্ঠানের শুরুতে কমলকুঁড়ি পত্রিকার সম্পাদক পিন্টু দেবনাথকে ফুল দিয়ে বরণ করেন সাপ্তাহিক কমলগঞ্জের কাগজ পত্রিকা পরিবারের পক্ষে ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জুয়েল আহমদ। সাপ্তাহিক কমলগঞ্জ সংবাদ সম্পাদক মো: সানোয়ার হোসেন এবং সকল সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে কমলকুঁড়ি সম্পাদককে ফুল দিয়ে বরণ করা হয়। পরে তরুন সমাজকর্মী সাংবাদিক মিজানুর রহমান মিষ্টার কমলকুঁড়ি সম্পাদককে উপহার প্রদান করেন। অনুষ্ঠানে কবি রোহিত কৈরী জীবন কবিতা ও কয়েকটি সংগীত পরিবেশনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানকে মনোমুগ্ধকর করে তোলেন।#

রিপোর্ট- প্রনীত রঞ্জন দেবনাথ