- জাতীয়, ব্রেকিং নিউজ, সিলেট, স্লাইডার

জগন্নাথপুরে শিশু সোহাগ হত্যার রহস্য উদঘাটন করতে পারেনি পুলিশ

মোয়াজ্জেম সাজু, সিলেট. ১৯ ফেব্রুয়ারি :: সিলেটের জগন্নাথপুরে শিশু সোহাগকে কি কারনে খুন করা হয়েছে ৬দিনেও হত্যা রহস্যের কোন কিনারা করতে পারেনি পুলিশ। জগন্নাথপুর উপজেলার আশারকান্দি ইউনিয়নের জয়দা গ্রামের ১৩ বছরের মাদ্রাসা পড়ুয়া শিশু মাহফুজুর রহমান সোহাগকে হারিয়ে শোকে পাথর তার বাবা মা।

ভয়েস ওভারঃ জয়দা গ্রামের মধ্যবিত্ত পরিবারের তৈয়বুর রহমান টিটুর ছেলে মাহফুজুর রহমান সোহাগ। চার ভাই এক বোনের মধ্যে সবার বড় ছিল সে। সোহাগ জয়দা দাখিল মাদ্রাসায় ৮ম শ্রেণির ছাত্র ছিল। গত ১৩ ফেব্রুয়ারি নিখোঁজ হয় সোহাগ। পরদিন সকাল ৯টায় স্থানীয় ধানের ক্ষেত থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।পুলিশ লাশের আলামত দেখে নিশ্চিত হয়, সোহাগকে হত্যা করা হয়েছে। তার মাথায় ও শরীরে ধারালো অস্ত্রের আঘাত ছিল। ১৫ ফেব্রুয়ারি নিহত সোহাসের বাবা জগন্নাথপুর থানায় অজ্ঞাত আসামি করে মামলা দায়ের করেন। পুলিশ প্রযুক্তি ব্যবহার করে গ্রেপ্তার করে একই এলাকার নাজমুল ও রাজুকে। তাদের জবানবন্দি অনুযায়ী উদ্ধার করা হয় হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত দা। এই দা দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয় মাদ্রাসা ছাত্র সোহাগকে। এই হত্যাকান্ডের মুল আসামি কে এ বিষয়ে পরিস্কার করেনি পুলিশ।

সোহাগের গ্রামবাসী সোহাগ হত্যাকান্ডের নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে হত্যার রহস্য উদঘাটনসহ খুনিদের গ্রেপ্তার ও ফাঁসির দাবি জানান। একই সাথে সোহাগ হত্যা মামলা দ্রুত বিচার আইনে নিয়ে আসামীদের শাস্তির ব্যবস্থার দাবি করেন তারা।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জানান, এ ঘটনায় যেই জড়িত হোক তাকে আইনের আওতায় আনা হবে। পরিবার যাতে ন্যায়বিচার পায় সে দিকে দৃষ্টি রেখেই তদন্তকাজ এগিয়ে চলছে। তিনি বলেন, আটককৃত আসামীদের রিমান্ডে আনতে আবেদন করা হয়েছে। রিমান্ড মঞ্জুর হয়ে মুল আসামি বের করা সম্ভব হবে বলে ।

এদিকে সোহাগকে হারিয়ে অনেকটা দিশেহারা তার বাবা মা। #

About eibeleamialabula

Read All Posts By eibeleamialabula

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *