- জাতীয়, ব্রেকিং নিউজ, মৌলভীবাজার, স্লাইডার

কুলাউড়ার টিলাগাঁও স্টেশন চালুর দাবীতে মানববন্ধন ও ট্রেন অবরোধ

এইবলা, কুলাউড়া, ০৬ মে:: কুলাউড়া উপজেলার টিলাগাঁও রেলওয়ে স্টেশন চালুর দাবিতে শনিবার ০৬ মে এলাকাবাসী মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। মানববন্ধনের সময় সিলেট থেকে আখাউড়াগামী কুশিয়ারা এক্সপ্রেস ট্রেনটি আধাঘন্টা আটকে রাখে মানববন্ধনকারী। ২০০৯ সাল থেকে জনবল সংকটের কারণে স্টেশনটি বন্ধ রয়েছে।

বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন মানববন্ধনে একাত্মতা প্রকাশ করে। সর্বস্তরের প্রায় ২ হাজার লোক মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করেন এবং পরবর্তী সকল আন্দোলনে অংশগ্রহণের ঘোষণা দেন। আন্দোলনে ঐক্যবদ্ধ নাগরিক সমাজের পক্ষে আহ্বায়ক আব্দুস সালাম চৌধুরী রুহিন ৫ দফা দাবি জানান।

Kulaura tilagoan stason


মানববন্ধনে বক্তব্য দেন টিলাগাঁও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল মালিক, ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার কমলা কান্ত ভৌমিক, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালিক, সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান চৌধুরী, সমাজসেবক আবু সুফিয়ান প্রিন্স, সাকোর নির্বাহিী পরিচালক শামীম আহমদ, আজমল হোসেন ও মনি বেগম প্রমুখ।

দাবিগুলো হলো স্টেশনটি পূন:রায় চালু করণ। স্টেশনে নিয়মিত স্টেশন মাষ্টার রাখা ও অন্যান্য কর্মচারি নিয়োগ। ডেমু ট্রেনের যাত্রা বিরতি। ঢাকা-চট্রগ্রামগামী যে কোন ২টি আন্ত:নগর ট্রেনের স্টপেজ প্রদানএবং স্টেশনের প্লাটফর্ম ও অন্যান্য অবকাঠামোগত উন্নয়ন।

manobbondon pic-2


বক্তারা বলেন, টিলাগাঁও একটি ঐতিহ্যবাহী রেলস্টেশন। স্টেশনটির আশেপাশে বিভিন্ন শহরে হাজার হাজার লোকের যাতায়াত ও মালামাল পরিবহনের প্রধান মাধ্যম। স্টেশনের পার্শ্বে লংলা ও তারাপাশা চা-বাগানের মূল্যবান চা এ স্টেশন দিয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে প্রেরিত হয়। এলাকার স্কুল, কলেজের ছাত্রছাত্রীসহ আপামর জনসাধারনের যাতায়াতের অন্যতম মাধ্যমও এই রেলস্টেশন। এমনিকি সিলেট থেকে আখাউড়া পর্যন্ত স্টেশনগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি জায়গা জুড়ে রয়েছে এই রেলস্টেশন।

এছাড়া ডেমু ট্রেন চালুর পর থেকে যাত্রা বিরতি দাবী করেছিলেন এলাকাবাসী। এলাকাবাসীর দাবির প্রেক্ষিতে প্রয়াত সমাজকল্যানমন্ত্রী সৈয়দ মহসিন আলী স্টেশন সংস্কার ও ডেমু ট্রেন স্টপেজ প্রদানের জন্য রেলমন্ত্রীর কাছে চিঠি (স্মারক নং ডি ও নং সমক/মন্ত্রী-১১/২০১৫-৯৯ তারিখ: ০১-০২-২০১৫ খ্রি: ) দেন। রেলমন্ত্রী ডিজিকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশনা প্রদানের পরও অদৃশ্য কারণে স্টেশনটি চালু হয়নি।

এছাড়াও আন্দোলনে অংশগ্রহন করে মানবাধিকার কমিশন, দক্ষিন কুলাউড়া অঞ্চল, আসহাবে বদরীন কাফেলা, বালিয়া পাপড়ী মেলা, অগ্রদুত সমাজ কল্যান সংস্থা, বন্ধন সামাজিক উন্নয়ন সংস্থা, সানরাইজ স্পোটিং ক্লাব, ফ্রেন্ডস সোসাইটি, ফ্রেন্ডস ষ্টাপ ক্লাব, গ্রীন বেঙ্গল তরুন সংঘ, ফ্রেন্ডস মিডিয়া টিলাগাঁও, টিলাগাঁও খেলোয়াড় কল্যান সমিতি, ইসনাহুল মুসলিমীন, আশাবাদী ক্রীড়া চক্র, আইডিয়াল ব্লাড ফাউন্ডেশন, একুশে ব্লাড ডোনারস ক্লাব, টিলাগাঁও ব্যবসায়ী কল্যান সমিতি, লংলা চা শ্রমিক ইউনিয়ন, লংলা চাবাগান ষ্টাপ এসোসিয়েশন, টিলাগাঁও এ.এন উচ্চ বিদ্যালয়, বাংলাটিলা দাখিল মাদ্রাসা।  #

 

About eibeleamialabula

Read All Posts By eibeleamialabula

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *