জুলাই ১৯, ২০১৭
Home » জাতীয় » রাজনগরে সেলুন ব্যবসায়ী যুবকের লাশ উদ্ধার

রাজনগরে সেলুন ব্যবসায়ী যুবকের লাশ উদ্ধার

এইবেলা, রাজনগর, ১৯ জুলাই ::

মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলার পরচক্র গ্রামের সেলুন ব্যবসায়ী অনন্ত মালাকার (২৩) এর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। অনন্ত হত্যার ঘটনায় তার ভাই বিকাশ মালাকার বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। এদিকে ময়নাতদন্ত শেষে মঙ্গলবার (১৮ জুলাই) রাতেই অনন্ত মালাকারের লাশ দাহ করা হয়েছে। পরিবারের উপার্জনক্ষম ব্যক্তিকে হারিয়ে শোকের ছায়া নেমে এসেছে পরিবারে।
পুলিশ সূত্রে জানা যায়, রাজনগরের মনসুরনগর ইউনিয়নের পরচক্র গ্রামের মৃত বারেন্দ্র মালাকারের ছেলে অনন্ত মালাকার (২৩) মৌলভীবাজার-কুলাউড়া সড়কের পাশে সদর উপজেলার ইসলামপুরে সেলুন ব্যবসা করতেন। গত সোমবার সকালে সেলুনে গিয়ে আর ফিরে আসেনি। তাকে বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করে কোথাও পাওয়া যায়নি। পরদিন মঙ্গলবার সকালে ইসলামপুর গ্রামের রাস্তার পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া খালের পানিতে তার লাশ দেখতে পায় স্থানীয়রা। পরে পুলিশকে খবর দিলে লাশ উদ্ধার করে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায় পুলিশ। নিহতের সুরতহাল রিপোর্টে গলায় দাগ পাওয়া গেছে। ধারণা করা হচ্ছে গলায় কোন কিছু পেছিয়ে তাকে হত্যা করা হয়েছে।
নিহতের পারিবার ও স্থানীয়রনা বলছেন, অনন্ত মালাকার শান্ত স্বভাবের ছেলে। তার সঙ্গে কারো বিরোধ নেই। সেলুনের আশেপাশের লোকজনের সঙ্গ বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ছিল। এ ঘটনায় নিহতের ভাই বিকাশ মালাকার বাদী হয়ে অজ্ঞাতদের আসামী করে মডেল থানায় মামলা (নং-২৭) করেছেন।
মামলার বাদী বিকাশ মালাকার জানান, প্রতিদিন রাত ৯ টার দিকে সে বাড়ি ফিরলেও সোমবার ঠিক সময়ে বাড়িতে যায়নি। রাত ১০টায় তার মোবাইলে কল দিলে তা বন্ধ পাওয়া যায়। পরে আরো কয়েকবার ফোন করেও বন্ধ পাই। পরে মঙ্গলবার সকালেতার সেলুনে গেলেও বন্ধ পাই। এসময় হঠাৎ শুনি ইসলামপুর গ্রামের রাস্তার পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া খালের পানিতে তার লাশ পড়ে আছে। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মৌলভীবাজার মডেল থানার ওসি (তদন্ত) হারুনুর রশিদ জানান, মামলার তদন্ত চলছে। পুলিশ এখনো কোন ক্লু উদ্ধার করতে পারেনি। স্থানীয়রা বলছেন সে ভালো লোক ছিল। এরপরও কেন হত্যা করা হলো পুলিশ সে বিষয়টি তদন্ত করছে।#