অক্টোবর ৮, ২০১৭
Home » কৃষি » কমলগঞ্জে বজ্রপাত রোধে গ্রামীণ জনপদে ২০ হাজার তালগাছ রোপন

কমলগঞ্জে বজ্রপাত রোধে গ্রামীণ জনপদে ২০ হাজার তালগাছ রোপন

এইবেলা,  কমলগঞ্জ , ০৮ অক্টোবর :: 

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে বজ্র বিপর্যয়রোধে গ্রামীণ জনপদে ২০ হাজার তালগাছের বীজ রোপন করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে সারাদেশের মতো কমলগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের গ্রামীণ রাস্তায় ও জনপদে ২০ হাজার বজ্রনিরোধক তালগাছ রোপন করা হয়েছে।

কমলগঞ্জ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. আসাদুজ্জামান জানান, গ্রামীণ অবকাঠামো রক্ষণাবেক্ষণ (টিআর) ও গ্রামীণ অবকাঠামো সংস্কার (কাবিটা) কর্মসুচির আওতায় বজ্রনিরোধের লক্ষ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশক্রমে গ্রামীণ রাস্তায় ও জনপদে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের অধীনে উপজেলা ত্রাণ শাখা থেকে এই কার্যক্রম বাস্তবায়িত করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশক্রমে চলতি ২০১৬-২০১৭ অর্থ বছর থেকে বজ্রপাতের ঝুঁকি হ্রাসকল্পে কাবিটা কর্মসুচিতে নির্মিতব্য রাস্তার একপাশে বা দুইপাশে তালগাছ রোপনের কর্মসুচি গ্রহণ করা হয়।

‘ আলাপকালে কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ মাহমুদুল হক বলেন, “বজ্রপাতে বাংলাদেশে প্রাণহানির ঘটনা দিন দিন বাড়ছে। তালগাছ বজ্রপাত প্রতিরোধসহ প্রাণহানি কমাতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে। এছাড়া তালগাছ দীর্ঘদিন জীবিত থেকে মানুষের উপকার করে। তালগাছ থেকে ঘর নির্মাণের মূল্যবান কাঠ ও জ্বালানি পাওয়া যায়। এ গাছ রস ছাড়াও কাঁচা ও পাকা সুস্বাদু ফল দিয়ে থাকে। বৃষ্টিপাতের সময় এ এলাকায় বজ্রপাতও হয় প্রচুর। বজ্রপাতে মানুষসহ অনেক পশু-পাখি মারা যায়। ক্ষতি হয় মূল্যবান গাছ-পালারও।

তিনি বলেন, কমলগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের রাস্তার দুই ধারে, গ্রামীণ মেঠোপথে তালগাছ লাগানো হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, “এর ফলে শুধু প্রাণহানিরোধই নয়, পরিবেশের ভারসাম্যও রক্ষা হবে।#