ডিসেম্বর ৮, ২০১৭
Home » অর্থ ও বাণিজ্য » শ্রীমঙ্গলে আনুষ্ঠানিকভাবে শুভ উদ্বোধন হলো দেশের দ্বিতীয় চা নিলাম কেন্দ্র

শ্রীমঙ্গলে আনুষ্ঠানিকভাবে শুভ উদ্বোধন হলো দেশের দ্বিতীয় চা নিলাম কেন্দ্র

এইবেলা, শ্রীমঙ্গল, ০৮ ডিসেম্বর :: 

চট্রগ্রামের পর দেশের ২য় চা নিলাম কেন্দ্রে উদ্বোধন হল চায়ের রাজধানী শ্রীমঙ্গলে। শুক্রবার ০৮ ডিসেম্বর দুপুর আড়াইটার সময় মৌলভীবাজার সড়কের ‘খান টাওয়ারে’ চা নিলাম কেন্দ্রের শুভ উদ্বোধন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, ট্রি প্লান্টারস এন্ড ট্রেডার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের আহবায়ক ও জাতিসংঘের সাবেক এম্বাসেডর ড. এ.কে আব্দুল মোমেন, মৌলভীবাজার-৩ আসনের সাংসদ সৈয়দা সায়রা মহসীন, মৌলভীবাজার-২ আসনের সাংসদ আব্দুল মতিন, জেলা প্রশাসক মো. তোফায়েল ইসলাম, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান, বাংলাদেশ চা বোর্ডের চেয়ারম্যান শাহাব উদ্দিন, মৌলভীবাজার জেলা পুলিশ সুপার শাহ জালাল, কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সদস্য অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নেছার আহমদ, সাধারণ সম্পাদক মিছবাউর রহমান প্রমুখ।

উদ্বোধন শেষে (এরিপোর্ট লেখা পর্যন্ত) জেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে চা নিলাম কার্যক্রম উদ্বোধন উপলক্ষে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান চলছে।

এতোদিন নিলামের জন্য চট্টগ্রামে চা-পাতা পাঠিয়ে আসছিল সিলেট বিভাগের চা বাগানগুলো। এতে পরিবহন খাতে প্রচুর আর্থিক ক্ষতি হচ্ছিলো বাগানগুলোর। মৌলভীবাজারে এ নিলাম কেন্দ্র স্থাপনের ফলে সিলেটের চা বাগানগুলোর পরিবহন খরচ কমবে। সাথে সাশ্রয় হবে চা পাতা পাঠানো বাবদ পরিবহন জ্বালানিও। চা খাতে ব্যয় কমলে কম দামে চা-পাতা পাবেন ভোক্তারা।

এদিকে, দেশের সিংহভাগ চা সিলেটে উৎপাদিত হলেও দেশের একমাত্র চা নিলাম কেন্দ্র চট্টগ্রামে। বাংলাদেশ চা বোর্ড ও খাত সংশ্লিষ্টদের হিসেব মতে দেশের ১৬২টি বাগানের মধ্যে ৯৩টি চা বাগান মৌলভীবাজার অঞ্চলে অবস্থিত। গত বছর দেশে সর্বোচ্চ ৮৫.০৫ মিলিয়ন কেজি চা উৎপাদন হয়। দেশে গড়ে ৭ কোটি কেজি উৎপাদিত চায়ের মধ্যে সিলেটেই উৎপাদন হয় ৬ কোটি কেজি চা।

আবার সিলেটে উৎপাদিত এই চায়ের ৭৫ ভাগই উৎপাদিত হয় মৌলভীবাজারের চা বাগানগুলোতে। সিলেটে উৎপাদিত চা নিলামের জন্য চট্টগ্রামে নিয়ে যেতে হয়। এজন্য পরিবহন ব্যয়সহ অন্যান্য খরচের কারণে বেড়ে যায় চায়ের দাম। এজন্য মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে দেশের দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক চা নিলাম কেন্দ্র স্থাপনের দাবি তুলেন সংশ্লিষ্টরা।

এটি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে শ্রীমঙ্গল ব্যবসায়ী সমিতির উদ্যোগে ২০১১ সালে ’শ্রীমঙ্গল চা নিলাম কেন্দ্র বাস্তবায়ন পরিষদ’ নামে একটি সংগঠন গড়ে তোলা হয়। সেই সংগঠন সিলেট বিভাগের ব্যবসায়ী প্রতিনিধিদের নিয়ে আন্দোলন শুরু করে। ২০১২ সালের ২৯ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মৌলভীবাজার সফরকালে শ্রীমঙ্গলে দেশের দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক চা- নিলাম কেন্দ্র্রে স্থাপনের ঘোষণা দেন।

এরই ধারাবাহিকতায় ২০১৪ সালে নিলাম কাজ পরিচালনার জন্য ’টি প্লান্টার্স অ্যান্ড ট্রেডার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ’ (টিপিটিএবি) নামে একটি কমিটি আত্মপ্রকাশ করে এবং এই কমিটি নিবন্ধনের জন্য বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে আবেদন করা করে।

সেই আবেদনের প্রেক্ষিতে ২৪ নভেম্বর শ্রীমঙ্গলে টি হেভেন রিসোর্টের সম্মেলন কক্ষে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসন এবং টি প্লাান্টার্স অ্যান্ড ট্রেডার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (টিপিটিএবি) আয়োজিত সভায় বাণিজ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক টিপিটিএবির নিবন্ধনপত্র হস্তান্তর করা হয়।##