ডিসেম্বর ২৪, ২০১৭
Home » জাতীয় » বন্য জন্তুর হামলায় কমলগঞ্জে নারীসহ ৮ জন আহত : সতকর্তার সাথে চলাচলে নির্দেশনা

বন্য জন্তুর হামলায় কমলগঞ্জে নারীসহ ৮ জন আহত : সতকর্তার সাথে চলাচলে নির্দেশনা

প্রনীত রঞ্জন দেবনাথ, কমলগঞ্জ,২৪ ডিসেম্বর ::

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে অজ্ঞাত একটি বন্য জন্তুর হামলায় দুই দিনে নারীসহ ৮ জন আহত হয়েছেন। রহিমপুর ইউনিয়নের কালেঙ্গা দিঘলগছি এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে। ঘটনার পর থেকে স্থানীয় জনমনে আতঙ্ক বিরাজ করায় এলাকাবাসীকে সতর্কতার সাথে চলাচল করতে নির্দেশনা দিয়েছে বন বিভাগ (বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা  ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ)।  গত শনিবার বেলা আড়াইটায় বন্য জন্তুটি প্রথমে এক নারীকে কামড়িয়ে আহত করার পর রাত আটটার মধ্যে আরও ৫ জনকে আহত করেছিল। গত রোববার দুপুরে আবারও দুইজনকে কামড়িয়ে আহত করে বন্য জন্তুটি।

রহিমপুর ইউনিয়নের ১ নংওয়ার্ড ইউপি সদস্য মুজিবুর রহমানসহ এলাকাবাসী জানান, কালেঙ্গা দিঘলগছি এলাকায় ঘন বন রয়েছে। সে বনে অনেক বন্য জন্তু আছে। শনিবার বেলা আড়াইটায় একটি বন্য জন্তু বন দেখে লোকালয়ে এসে কালেঙ্গা দিঘলগছি এলাকার পারুল বেগম (৪৫) নামের এক নারীকে কামড়িয়ে আহত করে। তাকে দ্রুত মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখান থেকে আবার সিলেট ওসমানী মেডিক্যল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা সেবা নিয়ে বাড়িতে ফিরিয়ে আনা হয়। শনিবার রাত সাড়ে ৭ টায় আবারও বন্য জন্তুটি একই এলকায় হামলা চালালে তাওহিদ মিয়া (১৯), রাজু মিয়া (২২), আংগুর মিয়া (২৩), শরীফ মিয়া (১৭) ও মনহর মিয়া (৫০) আহত হন। আহতরা শনিবার রাতেই মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করে প্রাথমিক সেবা গ্রহন করেন। ঘটনার পর  বাঘের আক্রমণ উল্লেখ করে রাতে স্থানীয় মসজিদের মাইকে সতর্কতা জারি করা হয়।

রোববার দুপুরে আবার এ বন্য জন্তুটি লোকালয়ে বের হয়ে হামলা চালালে ইয়াছিন মিয়া (১৮) ও ফরিদ হোসেন (২৭) আহত হয়েছেন। ইউপি সদস্য মুজিবুর রহমান আরও জানান আক্রান্তদের দেয়া বর্ণনায় জন্তুটিকে একবার মেছো বাঘ বলে মনে হয় আবার বন কুকুর বলে মনে হয়। তবে আসলে জন্তুটি কি তা সঠিকভাবে বলা যাচ্ছে না।

শনিবার রাতে ও রোববার বিভাগীয় বন কর্মকর্তা ((বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ) মিহির কুমার দো-সহ বন কর্মকর্তাদের কালেঙ্গা এলাকা পরিদর্শণ করে আহতদের সাথে কথা বলেন।

কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদুল হক বলেন, তিনি সরকারি কাজে বর্তমানে ঢাকায় অবস্থান করছেন। কালেঙ্গায় কি ঘটেছে তা তিনি জানেন না। তবে বন বিভাগের সাথে কথা বলে খোঁজ নিচ্ছেন।

সহকারী বন সংরক্ষক (বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা  ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ) মো: তবিবুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, শনিবার রাতে প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হয়েছিল আক্রমণকারী জন্তুটি মেছো বাঘ হবে। রোববার আবার হামলার পর আক্রান্তদের বর্ণনায় ধারনা পাল্টে এখন মনে হচ্ছে শিয়াল আক্রমণ চালাতে পারে।

সিলেট বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা  ও প্রকৃতি সংরক্ষ বিভাগ) মিহির কুমার দো-ও কালেঙ্গায় বন্য জন্তুর হামলায় দু দিনে নারীসহ ৮ জন আহতের সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, এ এলাকায় বন্য কোন নেই। তবে আক্রান্ত ও গ্রামাবসীদের বর্ণনায় ধারনা করা হচ্ছে পাগলা শিয়াল হামলা চালাতে পারে। তিনি আরও বলেন, এ দিকে বন বিভাগ কড়া নজরদারি করছে। আর এলাকাবাসীকে সতর্কতার সাথে দলবদ্ধ হয়ে চলাচলের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।###