- আন্তর্জাতিক, জাতীয়, ব্রেকিং নিউজ, স্লাইডার

‘কুয়েতে কেবল খাদেম ভিসায় নিষেধাজ্ঞা’

এইবেলা ডেস্ক, ০৬ মার্চ :: মধ্যপ্রাচ্যের দেশ কুয়েত বাংলাদেশের অন্যতম বৃহৎ শ্রমবাজার। তেলসমৃদ্ধ এই দেশটিতে প্রায় তিন লাখ বাংলাদেশি শ্রমিক কর্মরত রয়েছেন। তবে সোমবার দেশটির দৈনিক আল জারেদা পত্রিকায় এক প্রতিবেদন প্রকাশের পর কুয়েতে বাংলাদেশের শ্রমবাজার নিয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েন অনেকে। কারণ, ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, কুয়েতের শ্রমবাজার ফের বাংলাদেশিদের জন্য বন্ধ হয়েছে। তবে পত্রিকাটিতে প্রকাশিত এমন খবর পুরোপুরি সঠিক নয় বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

তিনি বলেন, নিয়ম অনুযায়ী একটি কুয়েতি পরিবার এই ভিসায় কেবল একজনকে কাজে নিতে পারে। কিন্তু কুয়েতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দেখতে পেয়েছে, ২০১৬ সালে তাদের শ্রমবাজার বাংলাদেশের জন্য আবার খোলার পর থেকে খাদেম ভিসার ক্ষেত্রে অনেক অনিয়ম হয়েছে।

এদিকে মঙ্গলবার রাজধানীর একটি হোটেলে আলোচনা সভায় প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি বলেছেন কুয়েতের শ্রমবাজারের জটিলতা নিরসণে সরকার সংশ্লিষ্টদের তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তবে এ ব্যাপারে এখনো পরিষ্কার কিছু জানা যায়নি।

তিনি জানান, অভিবাসন প্রক্রিয়াকে অধিকতর সহজ, নিরাপদ, স্বচ্ছ ও অভিবাসন ব্যয় কমিয়ে অভিবাসী কর্মীদের কল্যাণে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয় নিরলসভাবে কাজ করছে। প্রশিক্ষিত ও দক্ষ জনবল তৈরি, উপযুক্ত কর্ম পরিবেশ, সঠিক মজুরি নির্ধারণ করার লক্ষ্যে আমরা কাজ করছি।

প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী বলেন, বিদেশে কর্মী প্রেরণে কোনো ধরণের সিন্ডিকেটকে প্রশ্রয় দেয়া হবে না। আমাদের কর্মীরা বিদেশে অত্যন্ত সুনামের সঙ্গে কাজ করছে। প্রবাসে নারী কর্মীদের সুরক্ষায় তাদের বিদেশে পাঠানোর আগে অধিকতর প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষ করে প্রেরণ করা উচিত।

জার্নালিস্টস ফোরাম অন মাইগ্রেশন (জেএফএম) আয়োজিত ‘বিশ্ব শ্রমবাজার ও বাংলাদেশ প্রেক্ষাপট’ শীর্ষক সংলাপে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সাবেক রাষ্ট্রদূত হূমায়ুন কবীর বলেন, বিশ্ব শ্রমবাজারের খুব সামান্য চাহিদা আমরা পূরণ করে থাকি। তবে অধিক সংখ্যক কর্মী বিদেশে পাঠাতে হলে শুধুমাত্র অভ্যন্তরীণ বাজারের দিকে নজর দিলে হবে না, এজন্য বিশ্ব শ্রমবাজারের চাহিদা অনুযায়ী দক্ষ কর্মী তৈরি করতে হবে। তিনি বলেন, বর্তমানে বৈশ্বিক রাজনীতিতে অভিবাসন ইস্যুটি যেভাবে আলোচনায় এসেছে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। এছাড়া বিদেশে বাংলাদেশি বংশোদ্ভুতদেরও এক্ষেত্রে সম্পৃক্ত করতে হবে।

সংগঠনের সভাপতি মনির হোসেসের সভাপতিত্বে সংলাপে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন শ্রম-অভিবাসন বিশ্লেষক ও ডিবেট ফর ডেমোক্রেসির চেয়ারম্যান হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণ। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাবেক রাষ্ট্রদূত হূমায়ুন কবির। এতে আরও বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক রবিউল হক, সহ-সভাপতি মোরছালীন বাবলা, আরটিভির বার্তা সম্পাদক আক্তার হোসেন, ইনকিলাবের সিনিয়র রিপোর্টার সামসুল ইসলাম, ইনডিপেন্ডেট পত্রিকার সিনিয়র রিপোর্টার রফিকুল ইসলাম আজাদ প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার সিনিয়র রিপোর্টার সাজ্জাদ হোসেন।

About eibeleamialabula

Read All Posts By eibeleamialabula

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *