এপ্রিল ৬, ২০১৮
Home » অর্থ ও বাণিজ্য » রাজনগরে দুই চা বাগানে শ্রমিকদের কর্মবিরতি

রাজনগরে দুই চা বাগানে শ্রমিকদের কর্মবিরতি

এইবেলা, রাজনগর, ০৬ এপ্রিল ::

মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলার মাথিউড়া ও রাজনগর চা বাগানের শ্রমিকেরা কর্মবিরতি পালন করেছেন। দ্বিপাক্ষিক চুক্তি ও শ্রমিকদের ন্যায্য মুজুরি ও বকেয়া বোনাস প্রদানের দাবীতে এ দুই বাগানের প্রায় ১৫শ’ শ্রমিক দুই ঘন্টা কর্মবিরতি পালন করে। শুক্রবার সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১১টা পর্যন্ত শ্রমিকেরা এ কর্মবিরতি পালন করে। এসময় তাদের দাবী মেনে নেয়ার জন্য বিভিন্ন শ্লোগান দেয়া হয়।

বাগান পঞ্চায়েত সূত্রে জানা যায়, চা বাগান মালিক সংগঠন ও শ্রমিক নেতাদের দুই বছর অন্তর দ্বিপাক্ষিক চুক্তি হয়ে থাকে। ২০১৬ সালের ৩১ ডিসেম্বর ওই চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়েছে। দীর্ঘ ১৫ মাস পেরিয়ে গেলেও এ দ্বিপাক্ষিক চুক্তি সম্পাদিত হয়নি। এতে চা শ্রমিকরা ন্যায্য পাওনা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। এছাড়া মুজুরি বৃদ্ধি এবং বকেয়া বোনাস প্রাদানের ও দাবী জানান তারা। শুক্রবার সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১১টা পর্যন্ত মাথিউড়া ও রাজনগর চা বাগানের প্রায় দেড় হাজার শ্রমিক কর্মবিরতি পালন করে।

মাথিউড়া চা বাগানের ম্যানেজার বাংলোর সামনে কর্মবিরতি পালনকালে শ্রমিকদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন লংলা ভ্যালির সভাপতি শহিদুল ইসলাম, সম্পাদক সঞ্জু অধিকারী, মাথিউড়া চা বাগানের পঞ্চায়েত সভাপতি সুগ্রিম গৌড়, সম্পাদক শমলু শালিয়া, করিমপুর চা বাগানের সাবেক ইউপি সদস্য বিদূর্গা নাইডু, কালিচরণ রবিদাস, বাবুলাল গৌড়। পরে লংলা ভ্যালি সভাপতি ও সম্পাদক রাজনগর চা বাগানে শ্রমিকদের কর্মবিরতিতে যোগ দেন। এ সময় বক্তব্য রাখেন রাজনগর চা বাগানের পঞ্চায়েত সভাপতি মন্টু নুনিয়া ছাড়াও শ্রমিক নেতারা বক্তব্য রাখেন।

লংলা ভ্যালীর সভাপতি শহিদুল ইসলাম বলেন, দীর্ঘ পনের মাস পেরিয়ে গেছে দ্বিপাক্ষিক চুক্তি হয়নি। আমারা আমাদের ন্যায্য দাবী থেকে বঞ্চিত হচ্ছি। এখন ডানকান ব্রাদার্সের মালিকানাধীন বাগানগুলোয় ধর্মঘট হয়েছে। অন্যান্য বাগানেও পরবর্তীতে ধর্মঘট পালন করা হবে।#