এপ্রিল ৩০, ২০১৮
Home » জাতীয় » কুলাউড়ায় ছাত্রলীগের কমিটিতে শিবির ও ছাত্রদল অন্তর্ভুক্তি নিয়ে চলছে তোলপাড়

কুলাউড়ায় ছাত্রলীগের কমিটিতে শিবির ও ছাত্রদল অন্তর্ভুক্তি নিয়ে চলছে তোলপাড়

এইবেলা, কুলাউড়া , ৩০ এপ্রিল ::

কুলাউড়া উপজেলার শরীফপুর ইউনিয়নে ছাত্রলীগের নব গঠিত কমিটিতে ছাত্র শিবির নেতা আর হাজিপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের কমিটিতে ছাত্রদল নেতার নাম অন্তর্ভুক্ত হওয়ায় চলছে তোলপাড়। বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় উঠলে অভিযোগকারী ছাত্রলীগ নেতা ও অভিযুক্ত সাবেক ছাত্রশিবির নেতা ২ জনকে বাদ দিয়ে প্রকাশ করা হয় তালিকা। তবে বাদ পড়েননি ছাত্রদল নেতা।

গত ২৮ এপ্রিল শনিবার উপজেলার হাজীপুর ও শরীফপুর ইউনিয়ন চাত্রলীগের নতুন কমিটি ঘোষণা করেন কুলাউড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নিয়াজুল তায়েফ ও সাধারণ সম্পাদক আবু সায়হাম রুমেল।

নবগঠিত কমিটি ঘোষণার পর শুরু হয় নানা বিতর্কের। অনেকেই অভিযোগ তুলেছেন গঠনতন্ত্র না মেনে অধিক বয়সী অছাত্র এবং ছাত্রশিবির ও ছাত্রদল নেতারা পেয়েছেন পদ পদবী। এ নিয়ে ইউনিয়ন ছাত্রলীগে মধ্যে দেখা দিয়েছে অসন্তোষ।

শরীফপুর ইউনিয়নের নবগঠিত কমিটিতে মো. মিজান আহমেদ নামে সাবেক এক শিবির নেতাকে সিনিয়র সহ-সভাপতির গুরুত্বপূর্ণ পদ দেয়ায় ক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা। এদিকে মিজানের ফেইসবুক আইডিতে দেখা গেছে বিভিন্ন সময়ে সরকার বিরোধী এবং জামাত শিবিরের পক্ষে পোষ্ট করতে। তাছাড়া ৩১ বছর বয়সী সভাপতি মো. মুবারক হোসেন প্রবাস ফেরৎ ও অছাত্র। এদিকে বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেন সহ-সভাপতি সৈয়দ মিসবাহ আহমদ। বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর মো. মিজান আহমদ ও সৈয়দ মিসবাহ উদ্দিনকে বাদ দিয়ে তাদের স্থাবিভিষিক্ত করা হয়েছে শামীম মাহমুদ ও সাদিকুর রহমান ইমনকে।

এদিকে একই দেন ঘোষণা দেয়া হাজীপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের কমিটিতে স্থান পাওয়া সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. আব্দুল হোসেন ছাত্রদলের সক্রিয় কর্মী ছিলেন বলে জানা গেছে।

এবিষয়ে বাদ পড়া ও অভিযুক্ত মো. মিজান আহমদ জানান, আমি কখনই শিবির করতাম না। আমার ফেইসবুক আইডি বিভিন্ন সময়ে হ্যাক হয়েছিল। আমি এসব পোষ্ট কখনই করিনি।

এব্যাপারে কুলাউড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নিয়াজুল তায়েফ জানান, মিজানের বিরুদ্ধে অভিযোগ থাকায় তাকে বাদ দেয়া হয়েছে। সিনিয়র সহ-সভাপতি সৈয়দ মিসবাহ উদ্দিনকে স্থানীয় আওয়ামী লেিগর নেতাদের অনুরোধে বাদ দেয়া হয়েছে। তাছাড়া একটি সিন্ডিকেট দলের ভাবমূর্তি বিনষ্ট করতে এসব অপপ্রচার চালাচ্ছে।#