জুলাই ১৭, ২০১৫
Home » বিনোদন » বর্ণাঢ্য আয়োজন নিয়ে এবার ঈদে ইত্যাদি

বর্ণাঢ্য আয়োজন নিয়ে এবার ঈদে ইত্যাদি

এইবেলা, বিনোদন ডেস্ক, ১৭ জুলাই :

প্রতি বছরের মত এবারও ঈদ আনন্দের সাথে দর্শকদের জন্য বাড়তি আনন্দ নিয়ে আসছে হানিফ সংকেতের ‘ইত্যাদি’। প্রতি ঈদেই থাকে ‘ইত্যাদি’র জমকালো আয়োজন এবং চমকানো সব বিষয়। দর্শকও ইত্যাদির জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করেন।

নিয়মিত ‘ইত্যাদি’ ঢাকার বাইরে হলেও ঈদের ‘ইত্যাদি’ করা হয় ঢাকায়। কারণ সময়টা বর্ষা হওয়ায় উন্মুক্ত স্থানে রাতে দর্শক নিয়ে অনুষ্ঠান করা ঝুঁকিপূর্ণ। তাই এবারও ঈদের ‘ইত্যাদি’ ধারণ করা হয়েছে মিরপুর শহীদ সোহ্রাওয়ার্দী ইনডোর স্টেডিয়ামে। বিশাল সেটে কয়েক হাজার দর্শকের উপস্থিতিতে ধারণ করা হয় ঈদের ‘ইত্যাদি’। ইনডোর স্টেডিয়ামের প্রায় তিন ভাগের এক ভাগ স্থান জুড়ে নির্মাণ করা হয়েছিল নান্দনিক সেট।

বর্নাঢ্য এই আয়োজনে পুরো অনুষ্ঠানটিতে এক উৎসবের আমেজ তৈরি হয়েছিল। বরাবরের মত এবারও ‘ইত্যাদি’ শুরু করা হয়েছে ‘ও মন রমজানের ঐ রোজার শেষে এলো খুশীর ঈদ’ গানটি দিয়ে। গান এক হলেও প্রতিবারের মত শিল্পী নির্বাচন এবং চিত্রায়নে রয়েছে বৈচিত্র্য।

সাবিনা
ঈদের ইত্যাদিতে এবার একই সঙ্গে গান এবং নাচের আয়োজনে আছে-প্রজন্ম যমকের চমক। সাবিনা ইয়াসমিন এবং তার কন্যা বাঁধন এবং নৃত্য তারকা মৌ ও তার কন্যা পুষ্পিতাকে এই প্রথম এক সঙ্গে দেখা যাবে ‘ইত্যাদি’র ঈদের মঞ্চে। সাবিনা ইয়াসমিন ও তার কন্যা গাইবেন আর মৌ ও তার কন্যা নাচবেন। গানটি লিখেছেন মোহাম্মদ রফিকউজ্জামান, সঙ্গীতায়োজন করেছেন ফরিদ আহমেদ।

এবারের ঈদ ‘ইত্যাদি’তে একটি বিষয়ভিত্তিক গান গেয়েছেন এ্যান্ড্রু কিশোর। এই গানটিও লিখেছেন মোহাম্মদ রফিকউজ্জামান, সুর করেছেন আলী আকবর রূপু। গানটির চিত্রায়নে অংশগ্রহণ করেছেন বিশিষ্ট অভিনেতা রাইসুল ইসলাম আসাদ, সাবেরী আলম ও সাঈদ বাবু। গানটি বাংলাদেশ ও দুবাই দুই দেশে চিত্রায়ন করা হয়েছে।
এন্ড্রু

এবারের ঈদের একটি বিশেষ পর্ব হচ্ছে সাম্প্রতিক সময়ে আলোচিত কিছু বিষয় নিয়ে সাত ভাই চম্পা গানের সুরে একটি গান। গানটিতে অংশগ্রহণ করেছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী তারিন এবং ছোট পর্দা ও বড় পর্দার জনপ্রিয় সাতজন অভিনেতা-অপূর্ব, আগুন, জয়, ঈমন, নীরব, নাঈম, কল্যান কোরাইয়া।
৭ ভাই

ঈদের ‘ইত্যাদি’র আর একটি পর্বে রয়েছে বিয়ে নিয়ে ৪ মিনিটের একটি নাট্যাংশ। ব্যতিক্রমী এই নাট্যাংশে অংশ নিয়েছেন ডলি জহুর, নিমা রহমান, মীর সাব্বির, প্রাণ রায়, আরফান ও অহনা। স্বামী এবং স্ত্রী’র নানাবিধ কলহ এবং দ্বন্দ্ব নিয়ে তৈরি মিউজিক্যাল ড্রামায় অংশগ্রহণ করেছেন শহীদুজ্জামান সেলিম, অভিনেত্রী রোজী সিদ্দিকী এবং আতাউর রহমান।
নাট্যাংশ

বিদেশীদের নিয়ে এবারও রয়েছে একটি ব্যতিক্রমী আয়োজন। এই পর্বটিতে সারা পৃথিবীর নানা দেশের অর্ধশতাধিক বিদেশী নাগরিক অংশগ্রহণ করেছেন। রয়েছে ব্যাপক আয়োজনে বিষয় ভিত্তিক দলীয় সঙ্গীত। সাম্প্রতিক সময়ে আলোচিত কিছু বিষয় নিয়ে তৈরি এবারের দলীয় সঙ্গীতে অংশগ্রহণ করেছেন ‘ইত্যাদি’র নিয়মিত নৃত্যশিল্পীরা। এই পর্বের নৃত্য পরিচালনা করেছেন মামুন। সঙ্গীতায়োজন করেছেন মেহেদী। গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন কমল।

প্রতিবারই ‘ইত্যাদি’র দর্শক নির্বাচন প্রক্রিয়া থাকে ভিন্ন রকম। এবারও তার ব্যাতিক্রম হয়নি। প্রতিটি দর্শকের হাতে একটি করে বর্ণাঢ্য উপকরণ দিয়ে সেখান থেকে বাছাই করা হয়েছে অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বের জন্য ৪ জন দর্শক। ফাগুন অডিও ভিশন জানায়, মাত্র ১২ সেকেন্ডের চিত্রায়নের জন্য লক্ষাধিক টাকা খরচ করে হাজার হাজার দর্শকের জন্য এই বিশেষ উপকরণ তৈরি করা হয়েছে। নির্বাচিত দর্শকদের সাথে পরবর্তী পর্বে অংশগ্রহণ করেন অভিনেতা পরিচালক জাহিদ হাসান। দর্শক এবং জাহিদ হাসানের তাৎক্ষণিক অভিনয় পর্বটিকে প্রাণবন্ত করে তোলে।
জাহিদ

মামার মানা সত্ত্বেও এবার ঈদেও মৌসুমী ব্যবসায়ী ভাগ্নে নতুন ব্যবসার পরিকল্পনা করেছে। নাতির বিভিন্ন ‘বিশেষ’ নিয়ে অবিশ্বাস-আর এই নিয়েই তর্ক-বির্তক।
এছাড়া ঈদকে ঘিরে ডজনখানেক বিদ্রুপাত্মক রসালো নাট্যাংশ রয়েছে। ‘ইত্যাদি’র শিল্প নিদের্শনায় রয়েছেন যথারীতি মুকিমূল আনোয়ার মুকিম। পরিচালকের সহকারী হিসেবে ছিলেন রানা সরকার ও এমজিএ মামুন। ইত্যাদি রচনা, পরিচালনা ও উপস্থাপনা করেছেন হানিফ সংকেত। নির্মাণ করেছে ফাগুন অডিও ভিশন, স্পন্সর করেছে কেয়া কস্মেটিকস্ লিমিটেড।

ঈদের পরদিন রাত দশটার ইংরেজি সংবাদের পর ‘ইত্যাদি’ একযোগে প্রচার হবে বিটিভি ও বিটিভি ওয়ার্ল্ডে-এ।#