- জাতীয়, ব্রেকিং নিউজ, সিলেট, স্লাইডার

ওসমানীনগরে স্কুলছাত্র বলাৎকারে শিকার

এইবেলা, ওসমানীনগর, ১২ আগস্ট ::

সিলেটের ওসমানীনগরে এক স্কুল ছাত্র বলাৎকারের শিকার হয়েছে। গত শুক্রবার বিকেলে উপজেলা সাদীপুর ইউপির ইব্রাহিমপুর(পশ্চিমপাড়া) গ্রামে ঘটনাটি ঘটে। বলৎকারের শিকার স্কুল ছাত্র একই ইউপির গজিয়া গ্রামের মুরাদ মিয়ার ছেলে ও সাদীপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ট শ্রেণির ছাত্র।

পুলিশ ও ভিকটিমের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, গত শুক্রবার বলাৎকারের শিকার শিশু তাদের পার্শ্ববর্তী গ্রাম ইব্রাহিমপুরে তার নানা মৃত মদরিছ উল্যার বাড়িতে বেড়াতে যায়। জুমার নামাজে যাবার কালে বলাৎকারের শিকার শিশুর নানার পাশের বাড়ির বিচন মিয়ার লম্পট ছেলে শুনর মিয়া (২৬) শিশুটিকে তার বসত ঘরে ডেকে নিয়ে বলৎকার করে। ঘটনার পর বিষয়টি ভিকটিম শিশু তার পরিবারে সদস্যদের অবহিত করলে পরিবারের লোকজন উপজেলা আ’লীগের সাবেক সভাপতি ও সাদীপুর ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান কবির উদ্দিনের নিকট বিচার প্রার্থী হন। গত দুদিনেও এ ঘটনার কোনো সুষ্ঠ সমাধান না পাওয়ায় এবং বলাৎকারের শিকার শিশুটির শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে শনিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে শিশুটিকে নিয়ে তার অভিভাবকরা ওসমানীনগর থানা পুলিশের শরনাপন্ন হয়। পরে পুলিশ ঘটনাটি নোটভুক্ত করে অভিযুক্ত শুনর মিয়াকে গ্রেফতারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে বলে শিশুর পরিবারকে আশ্বস্থ করে। বলাৎকারের শিকার শিশুকে চিকিৎসার জন্য বালাগঞ্জ উপজেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

বলাৎকারের শিকার শিশুর পিতা মুরাদ মিয়া বলেন, তিনি বাদী হয়ে ওসমানীনগর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করবেন।

ভিকটিমের বড় ভাই রুবেল মিয়া অভিযোগ করে বলেন, শুক্রবার বিকেলে আমার ভাইকে জোরপূর্বক বলৎকার করেছে লম্পট শুনর মিয়া এ ব্যাপারে আমরা সাবেক চেয়ারম্যান কবির উদ্দিনের নিকট বিচার দিলেও গত দু’দিনে তিনি বিষয়টি সমাধান করা দুরের কথা উল্টো ঘটনাটি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্ঠা করেন। এমনকি গত শুক্রবার রাত থেকে আমার ভাইয়ের শরীরে প্রচন্ড জ্বর ও বুকে ব্যথা দেখা দিয়েছে চিকিৎসা করাতেও নিতে দেয়া হচ্ছে না। বাধ্য হয়ে আমরা থানা পুলিশের নিকট এসেছি।

ওসমানীনগর থানার ওসি আলী মাহমুদ শিশু বলাৎকারের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় মামলা দায়েরর প্রস্তুতি চলছে। অভিযুক্তকে ধরতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে। অসুস্থ শিশুকে চিকিৎসার জন্য বালাগঞ্জ উপজেলা হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।#

About eibeleamialabula

Read All Posts By eibeleamialabula

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *