- জাতীয়, ব্রেকিং নিউজ, মৌলভীবাজার, শিক্ষাঙ্গন, স্থানীয়, স্লাইডার

ইউএনও’র ভুমিকায় ক্ষুব্ধ শিক্ষকরা- কুলাউড়ায় স্কাউটস’র ৯ম ত্রৈ-বার্ষিক কাউন্সিল পন্ড

এইবেলা, কুলাউড়া, ০৬ ফেব্রুয়ারি ::

বাংলাদেশ স্কাউট্স কুলাউড়া উপজেলার ৯ম ত্রৈ-বার্ষিক কাউন্সিল সভা ০৬ ফেব্রুয়ারি বুধবার পন্ড হয়েছে। স্কাউটসের সভাপতি ও কুলাউড়া ইউএনও কোন সিদ্ধান্ত কিংবা পরবর্তী সভা না ডেকে সভাস্থল ত্যাগ করায় শিক্ষকদের মধ্যে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে। সেই সাথে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের মাঝেও দ্বন্দ্বের সৃষ্টি হয়েছে।

উপজেলা স্কাউটস সুত্রে জানা যায়, কুলাউড়া উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে বুধবার বেলা ১১ টায় বাংলাদেশ স্কাউট্স কুলাউড়া উপজেলার ৯ম ত্রৈ-বার্ষিক কাউন্সিল সভা আহ্বান করা হয়। উপজেলা স্কাউটসের সভাপতি কুলাউড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আবুল লাইছ ও সাধারণ সম্পাদক ফয়জুর রহমান এই সভা আহবান করেন। এই সভায় স্কাউটসের কমিশনার, সাধারণ সম্পাক ও কোষাধ্যক্ষ নির্বাচন করা ঘোষণা দেয়া হয়। কুলাউড়া উপজেলার ৩৩টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের স্কাউট্স দলের ৫৯ জন, ১৩৬টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২৩০ জন এবং মুক্ত স্কাউট্সের ২জনসহ মোট ২৯১ জন ভোটার ৩টি পদে প্রার্থী নির্বাচিত করবেন।

শিক্ষকরা অভিযোগ করেন, শুরু থেকে সভা বানচালের পায়তারা করা হয়। সকাল ১১টার স্থলে দুপুর সোয়া একটায় সভা শুরু হয়। বর্তমান সাধারণ সম্পাদক ফয়জুর রহমান আগের দিন অর্থাৎ ৫ ফেব্রুয়ারি কুলাউড়া বালিকা বিদ্যালয়ে সভা করে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের স্কাউট্স শিক্ষক ও প্রধান শিক্ষকদের সভায় উপস্থিত না হওয়ার জন্য বলেন। সাধারণ সম্পাদক ছাড়া মাধ্যমিক পর্যায়ের কোন শিক্ষক সভায় উপস্থিত হননি।

সভার শুরুতে মৌলভীবাজার জেলা স্কাউট্সের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওয়াহিদ মাধ্যমিক স্কুলের স্কাউট্সের ৫৯ জন শিক্ষকের অনুপস্থিতির কারণে কাউন্সিল করা সম্ভব নয় বলে ঘোষণা দেন।

অভিযোগকারি শিক্ষকরা আরও জানান, এরপর কুলাউড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার ত্রৈবার্ষিক কাউন্সিল সভার পরবর্তী করণিয় নির্ধারণ না করে, ‘এটা তার দায়িত্বের মধ্যে পড়ে না’ বলে সভাস্থল ত্যাগ করেন।

শিক্ষকরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, যদি এটা তাঁর দায়িত্বের মধ্যে পড়ে না, তাহলে কেন সভা আহ্বান করলেন? কেন ১৩৬টি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে এবং কাব শিক্ষককে তাদের স্কুলের ক্লাস বন্ধ করে উপজেলায় ডেকে আনলেন? তিনি সভাপতি, তাঁর দায়িত্বের মধ্যে না পড়লে কে স্কাউটসের দায়িত্ব পালন করবে? সভাপতির দায়িত্বহীনতা ও সাধারণ সম্পাদকের চক্রান্তে কুলাউড়া উপজেলা স্কাউটসের মধ্যে বিতর্ক ও সমস্যার সৃষ্টি হলো।

এব্যাপারে কুলাউড়া উপজেলা স্কাউট্স’র সাধারণ সম্পাদক ফয়জুর রহমান জানান, আমি সভায় গেছি। কিন্তু ৩৩টি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও স্কাউটস শিক্ষক অনুপস্থিত ছিলেন। কেন অনুপস্থিত ছিলেন?- এই প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, মাধ্যমিক পর্যায়ে স্কাউটসের কমিশনার না দেয়ার কারণে শিক্ষরা অনুপস্থিত ছিলেন।

কুলাউড়া উপজেলা স্কাউটস সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আবুল লাইছ জানান. কাউন্সিল আজকে করি নাই, পরে করবো। কাউন্সিলে সবাই আসতে হবে তো। মাধ্যমিক শিক্ষকরা যেহেতু আসেনি, তাই নির্বাচন হয়নি।#

About eibeleamialabula

Read All Posts By eibeleamialabula

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *