মে ১৪, ২০১৯
Home » ব্রেকিং নিউজ » শ্রীমঙ্গল উপজেলা শিক্ষা কর্তৃপক্ষের সাথে সনাকের মতবিনিময় অনুষ্ঠিত

শ্রীমঙ্গল উপজেলা শিক্ষা কর্তৃপক্ষের সাথে সনাকের মতবিনিময় অনুষ্ঠিত

শিক্ষা খাতে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে

সৈয়দ ছায়েদ আহমদ, শ্রীমঙ্গল, ১৪ মে ::

সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক), শ্রীমঙ্গলের উদ্যোগে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)’র সহায়তায় প্রাথমিক শিক্ষা খাতে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে শিক্ষা কর্তৃপক্ষের সাথে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার সকাল ১১টায় শ্রীমঙ্গল উপজেলা শিক্ষা কার্যালয়ে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ সাইফুল ইসলাম তালুকদার এর সভাপতিত্বে সভায় প্রারম্ভিক বক্তব্যে ও সনাকের শিক্ষাখাতের কর্মসূচির ব্যাখ্যা করেন সনাক সহ-সভাপতি জনাব দ্বীপেন্দ্র ভট্টাচার্য।

অত:পর বরুনা ফয়জুর রহমান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের উপর গত মিটিং এর কার্যবিবরনী পঠন এবং সিদ্ধান্তসমূহ বাস্তবায়ন, এসএমসি’র কার্যকারিতা বৃদ্ধি (সদস্যদের উপস্থিতি নিশ্চিতকরণ, দায়-দায়িত্ব বিষয়ক) ঝড়ে পড়া রোধে পদক্ষেপ ও শিক্ষার্থী বৃদ্ধি প্রসঙ্গঁ, শিক্ষার্থীদের পাশের হার বৃদ্ধি সংক্রান্ত প্রসঙ্গঁ বিভিন্ন উন্নয়ন তহবিলের বরাদ্দ সম্পর্কিত, জেন্ডার বান্ধব/জেন্ডার সম্পর্কিত ইস্যু প্রসঙ্গে বিস্তারিত আলোচনা হয়।

মতবিনিময় সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন সহকারি উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলী, সনাক সদস্য জহর তরফদার,শাহ আরিফ আলী নাসিম ও রহিমা বেগম স্বজন সদস্য সৈয়দ ছায়েদ আহমদ ও মো. আব্দুর রহমান, বরুনা ফয়জুর রহমান সরকারী বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুশান্ত কুমার পাল, টিআইবি’র এরিয়া ম্যানেজার পারভেজ কৈরী প্রমুখ।

তাছাড়ও সনাক শ্রীমঙ্গল এর ইয়েস সদস্যবৃন্দরাও উপস্থিত ছিলেন। সনাকের পক্ষ থেকে বিদ্যালয়ের সমস্যা সমাধানে সর্বদা সহযোগিতা করার আশাবাদ ব্যক্ত করা হয়।

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ সাইফুল ইসলাম তালুকদার বলেন শিক্ষাখাতে সনাকের দুর্নীতিবিরোধী কার্যক্রমকে সাধুবাদ জানান এবং এসএমসি’র সক্রিয়তা বৃদ্ধির ব্যপারে তিনি বলেন উক্ত বিদ্যালয়ের এসএমসি’র কার্যকারিতা বাড়ানোর জন্য নতুন কমিটি গঠন করা হয়েছে। নতুন কমিটির মাধ্যমে বিদ্যালয়ের শিক্ষার মান আরো ভালো হবে বলে আমরা আশাবাদী। বিদ্যালয়ের ঝড়ে পড়া রোধ এর ব্যাপারে তিনি বলেন বরুনার বিষয়টি আমি জানি এখানে আমাদের তরফ থেকে আমরা শিক্ষকদের হোম ভিজিট বৃদ্ধি করা হয়েছে। এতে করে বিদ্যালয়ের ঝড়ে পড়া কিছুটা হলেও কমবে। শিক্ষার্থীদের পাশের হার বৃদ্ধি সংক্রান্ত বিষয়ে তিনি বলেন বরুনা ফয়জুর রহমান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি হাওড় অঞ্চল বেষ্ঠিত এবং এখানে বেশির ভাগ অভিভাবকেরা মাছ ধরা পেশার সাথে জড়িত। তার পরও গতবার পাশের হার ছিলো শতভাগ। এজন্য উক্ত বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সহ সকল শিক্ষককে আমাদের পক্ষ থেকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি। টিআইবি সনাকের কাজের মাধ্যমে অভিভাবকদের মধ্যে বিশেষ করে মা’দের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি পেয়েছে। বিশেষ করে সনাক টিআইবি’র অনুপ্রেরনায় গঠিত একটিভ মাদার্স ফোরাম বিদ্যালয়ের উন্নয়নে বিশেষ করে মা’দের সচেতন করতে কাজ করতে যাচ্ছে। জেন্ডার সম্পর্কিত ইস্যু আলোচনায় শিক্ষা কর্মকর্তা বলেন বরুনা প্রাথমিক বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জেন্ডার বান্ধব। আমরাও বিদ্যালয়ে শিক্ষক দেবার ক্ষেত্রে নারীদের অগ্রাধিকার দিয়েছি। বিদ্যালয়ে নারী ও পুরুষের জন্য আলাদা টয়লেটের ব্যবস্থা করা আছে।

মতবিনিময় সভায় সাইফুল ইসলাম তালুকদার আরো বলেন যে আগামী জুলাই মাসে সমগ্র উপজেলায় এসএমসি’র নতুন করে কমিটি গঠন করা হবে। আগামী জুলাই মাস থেকে উপজেলার প্রতিটি বিদ্যালয়ে বিদ্যালয়ে একটিভ মাদার্স ফোরাম গঠন করার কাজ করা হবে বলে শিক্ষা কম՜কতা՜ জানান। তিনি আরো বলেন এখন পর্যন্ত ১৮টি বিদ্যালয়ে একটিভ মাদার ফোরাম গঠনের কথা আমাকে জানানো হয়েছে। বরুনা বিদ্যালয়ে জুলাই মাসে মা সমাবেশ আয়োজন করার সিদ্ধান্ত করা হয়। বিদ্যালয়ের অবকাঠামো গতভাবে উন্ন্য়ন করার জন্য শিক্ষা অফিস থেকে ২ লক্ষ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বসার জায়গাটা খুবই সংর্কীন এটি বড় করার জন্য সুপারিশ করা হয়। শিক্ষা কর্মকর্তা বলেন খুব শ্রীঘ্রই বিদ্যালয়ের বাউন্ডডারী ওয়াল করা হবে। বিদ্যালয়ে গর্ত ভরাট করার ব্যাপারে সনাক সদস্য জনাব শাহ আরিফ আলী নাসিম বলেন যে জেলা পরিষদে বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে অবকাঠামো উন্নয়ন মূলক কাজ করার জন্য বরাদ্দ চেয়ে একটি আবেদন করার জন্য প্রধান শিক্ষককে বলা হয়।