মে ২২, ২০১৯
Home » ব্রেকিং নিউজ » বড়লেখায় সরকারীভাবে ধান ও চাল ক্রয় শুরু : প্রকৃত কৃষক বঞ্চিত হওয়ার আশংকা

বড়লেখায় সরকারীভাবে ধান ও চাল ক্রয় শুরু : প্রকৃত কৃষক বঞ্চিত হওয়ার আশংকা

এইবেলা, বড়লেখা, ২২মে  ::

বড়লেখায় সরকারীভাবে বোরো ধান ও চাল ক্রয় শুরু হয়েছে। ধান ক্রয়ের জন্য ১৭৬ জন কৃষকের তালিকা তৈরী করেছে উপজেলা খাদ্য বিভাগ। বুধবার দুপুরে খাদ্য গোদাম প্রাঙ্গণে ইসলাম উদ্দিন নামে এক কৃষকের নিকট থেকে ২৬ টাকা কেজি দরে ১ মেট্টিক টন ধান ক্রয়ের মাধ্যমে এ কর্মসুচির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন উপজেলা চেয়ারম্যান সোয়েব আহমদ।

এসময় উপস্থিত ছিলেন ইউএনও মো. শামীম আল ইমরান, সহকারী কমিশনার (ভুমি) মো. শরীফ উদ্দিন, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. উবায়েদ উল্লাহ খান, খাদ্য কর্মকর্তা আব্দুল আউয়াল প্রমূখ। প্রকৃত কৃষক এলাকা হাওরপাড়ে প্রচারণা না থাকায় প্রকৃত কৃষকরা ধান বিক্রির সুযোগ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

উপজেলা কৃষি অফিস সুত্রে জানা গেছে, হাকালুকি হাওরের বড়লেখা অংশে এবার ২৩ হাজার ১০০ মেট্টিক টন ধান উৎপাদন হয়েছে। উপজেলায় তালিকাভুক্ত কৃষকের সংখ্যা ৩ হাজার। বোরোর বাম্পার ফলন হলেও এবার কৃষকের নিকট থেকে মাত্র ১১৯ মেট্টিক টন ধান ক্রয়ের সরকারী বরাদ্দ মিলেছে। যা প্রয়োজনের তুলনায় খুবই কম। এ ধান বিক্রয় থেকেও প্রকৃত কৃষকদের বঞ্চিত করার অভিযোগ উঠেছে। জনৈক ডিলার ও মিলার খাদ্য বিভাগের স্থানীয় কর্মকর্তাদের সাথে আতাত করে ধান সরবরাহ করতে নিজের আস্থাভাজন কৃষকের কৃষিকার্ড ও জাতীয় পরিচয় পত্র সংগ্রহ করেছেন। প্রকৃত কৃষকদের অন্ধকারে রেখেই সুনামগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে কমদামে ধান সংগ্রহ করে ওই ডিলার বিক্রির পায়তারা চালাচ্ছেন।

উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা মো. আব্দুল আউয়াল জানান, বাহিরে থেকে ধান এনে কোন ডিলারের বিক্রির সুযোগ নেই। প্রত্যেক কৃষকের ব্যাংক একাউন্টে ধানের মূল্য পরিশোধ করা হবে।