জুন ২৫, ২০১৯
Home » আন্তর্জাতিক » ভারতে মণিপুরি এক পেশাদার গোলরক্ষক মোহাম্মদ নওয়াজ

ভারতে মণিপুরি এক পেশাদার গোলরক্ষক মোহাম্মদ নওয়াজ

রফিকুল ইসলাম জসিম, ২৫ জুন ::
ফুটবলের চূড়ান্ত পর্যায় হলো গোল করা ও গোল যেন না হয় তাই প্রতিপক্ষের কাছ থেকে বলকে সেভ করা। তাই ফুটবল মাঠে সবচেয়ে বেশি নজর কাড়ে গোলরক্ষক ও ফরয়োডার বা ষ্ট্রাইকার। তবে আলোচনার ক্ষেত্রে আমরা সকলেই কোন ফুটবলার বেশি গোল করেছে তার উপরই বেশি জোড় দেই, কিন্তু তিন কাঠির গোলপোষ্টে প্রতিপক্ষের কাছ থেকে তেড়ে আসা বলটিকে জালে জড়াতে না দিয়েও হওয়া যায় সেরা।
ফুটবল খেলায় এমন কিছু গোলকিপার আছে যাদের গোল বাঁচানো দেখলে মনে হয় কখনো তারা স্পাইডারম্যান, কখনো সুপারম্যান। আসুন জেনে নেই ভারতের গোয়া ক্লাবে নিয়মিত খেলে থাকেন মণিপুরি মুসলিম উদীয়মান এক পেশাদার গোলরক্ষক মোহাম্মদ নওয়াজ ।
মণিপুরি মুসলিম (পাঙাল) সম্প্রাদায়ের  হয়ে ইতিহাস গড়লেন ভারতীয় ফুটবলার মোহাম্মদ নওয়াজ। ভারতে আয়োজিত ফিফা অনুর্ধ  -১৭ বিশ্বকাপের প্রস্তুতিতে ভারদের ১৭-এর অধীনে দলের অংশ ছিল।
ভারতের ১৭ সদস্যের দল হিসেবে অংশ নেওয়ার পর নওয়াজ ইন্ডিয়ান সুপার লীগের গোয়া নিয়ে স্বাক্ষরিত হন।  তিনি ঋতু বাকি জন্য আই-লীগ দ্বিতীয় বিভাগে ক্লাব এর রিজার্ভ পার্শ্ব জন্য খেলেছে।   বতমানে মোহাম্মদ নওয়াজ  একজন ভারতীয় মণিপুরি মুসলমান পেশাদার ফুটবলার যিনি ভারতীয় সুপার লীগে এফসি গোয়া দলের গোলরক্ষক হিসেবে  খেলেছে।
ইন্ডিয়ান সুপার লীগে অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশন (এআইএফএফ) এর লাইসেন্সের অধীনে এফসি গোয়া ভিত্তিক একটি ভারতীয় পেশাদার ফুটবল ক্লাবে ২০১৮ -১৯,  ১৯মৌসুমের জন্য , নওয়াজকে  প্রথম দলটিতে উন্নীত করা হয়। নওয়াজ তারপরে নর্থ ইস্ট ইউনাইটেডের বিপক্ষে  ১ অক্টোবর ২০১৮ সালে ক্লাবের জন্য তার পেশাদার অভিষেক করেন।ম্যাচ চলাকালীন, তিনি বক্সের বাইরের বলটি পরিচালনা করেন যা ফ্রিকিকের দিকে পরিচালিত করেছিল, যা নর্থইস্ট ইউনাইটেডের 8র্থ মিনিটে প্রথম দিকে ৫৩ তম মিনিটে ফিরে আসার আগেই প্রথম ইনিংসে পরিণত হয়। ম্যাচ ২-২ ড্র মধ্যে শেষ। ম্যাচের ভুলের সত্ত্বেও, গোয়া প্রধান কোচ, সার্জিও লোবেরা  ৬ নভেম্বর ২০১৮ এ চলমান চ্যাম্পিয়নচেন্নাইনের বিপক্ষে গোয়া এর পরবর্তী ম্যাচে নওয়াজকে আবার শুরু করেন। ফলাফলটি গোয়াতে ৩-১ গোলে জিতেছিল। তখন নওয়াজ উদীয়মান  প্লেয়ার অফ দ্য ম্যাচ অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন।
ফিফার সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে প্রাথমিক স্তর থেকে ফুটবল-প্রতিভা তুলে আনার লক্ষ্যে সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশন ২০১২ থেকেই উদ্যোগ নিয়েছে। এআইএফএফ-এর নির্দেশেই মিজোরাম, মুম্বই, চণ্ডীগড়, মণিপুর ও গোয়ায় রাজ্য ফুটবল সংস্থা ফিফা এবং এআইএফএফ-র সহায়তায়  মোহাম্মাদ নওয়াজ-কে প্রতিশ্রুতিমান ফুটবলার হিসাবে খুঁজে বের করেন।