- ব্রেকিং নিউজ, মৌলভীবাজার, স্থানীয়, স্লাইডার

জুড়ীতে শিপুল মিয়াকে ষড়যন্ত্রমূলক হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন

এইবেলা, জুড়ী, ২২ জুলাই ::

মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলায় শাহাপুর গ্রামের লেবু মিয়ার ছোট ভাই মো. শিপুল মিয়া (২৪) কে ষড়যন্ত্রমূলক হত্যার প্রতিবাদে ও দায়ী ব্যক্তিদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গত ২২ জুলাই মঙ্গলবার দুপুর ২ ঘটিকায় ভূয়াইবাজারে শাহপুর, রাজাপুর, মনোহরপুর নিশ্চিন্তপুর, মোহাম্মদপুর ও ভূয়াই এর সর্বস্থারের জনসাধারণের আয়োজনে সুমেল আহমদের পরিচালনায় ও আব্দুল গাফফারের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন ডা. মোস্তাকিম হোসেন বাবুল, সোহাগ মিয়া, আনছার আলী, ফখরুল ইসলাম, ফজলু মিয়া, বাহার উদ্দিন, এমরান আহমদ, জায়েদ হাসান প্রমুখ।

মানববন্ধন শেষে শিপুল মিয়ার বড় ভাই লেবু মিয়া জানান, বৃহস্পতিবার থেকে শিপুলকে পাওয়া যাচ্ছে না, অনেক খোঁজাখঁজির পর আমরা জুড়ী থানায় জিডি করতে গেলে ওই সময় থানায় একটি কল আসে মনোহরপুর হাওরে একটি ভাসমান লাশ পাওয়া গেছে। পুলিশসহ ঘটনাস্থলে গেলে শিপুলের লাশ আমরা সনাক্ত করি। পরে ময়নাতদন্ত শেষ তার লাশ দাফন করি। বৃহস্পতিবার রাতে শিপুল কোথায় ছিলো তার খোঁজ নিতে গিয়ে জানতে পারি শাহগঞ্জ বাজারের ব্যবসায়ী আব্দুস শুক্কুর কে আমার ভাই রাত ৩টায় দোকান থেকে ডেকে তোলে ২টা কোল্ডডিং ও ২টা সিগারেট ক্রয় করে। এসময় আব্দুস শুক্কুর শিপুলকে জিজ্ঞাসাবাদ করে এতো রাতে ২টা কোল্ডডিং সাথে কে তখন সে জানায় সেবু মিয়ার ছেলে তায়েফ মিয়া জন্য। এর সূত্রে ধরে তায়েফ মিয়া কে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে জানায় শিপুল এর সাথে ওই দিন রাত ১২ পর্যন্ত ছিলো তার পরে শেষে কোথায় ছিলো সে জানেনা। জিজ্ঞাসাবাদের পরদিন থেকে তায়েফ মিয়া পলাতক রয়েছে।

উল্লেখ্য যে, সিএনজি অটোরিকশা চালক শিপুল মিয়া বৃহস্পতিবার রাতে নিখোঁজ হয়। শনিবার বিকেল ৩ টায় মনোহরপুর হাওরে তার ভাসমান লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

জুড়ী থানার ওসি (তদন্ত) আমিনুল ইসলাম জানান, শিপুলের সাথে বৃহস্পতিবার তায়েফ মিয়া ছিলো জানতে পেরেছি। তায়েফ বর্তমানে পলাতক রয়েছে। এঘটনার সাথে যারা জড়িত এবং দোষীদের খুব শিঘ্রই খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনা হবে।#

About eibeleamialabula

Read All Posts By eibeleamialabula

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *