- কমলগঞ্জ, কৃষি, ব্রেকিং নিউজ, স্লাইডার

কমলগঞ্জে শত্রুতার জেরে সবজি ও গাছ কর্তন

এইবেলা, কমলগঞ্জ, ১৬ অক্টোবর ::

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার মাধবপুরে পূর্ব শক্রতার জের ধরে কয়েকজন কৃষকের সবজি বাগানের গাছ কর্তন করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। তাদের কষ্টাজিত এসব ফসল ও গাছ কর্তন করায় এখন পরিবার-পরিজন নিয়ে পথে বসার উপক্ষম হয়েছে।

জানা যায়, মাধবপুর ইউনিয়নের ধলাইপাড় গ্রামের কবরস্থানের উত্তরকোনে অবস্থিত এলাকায় স্থানীয় কয়েকজন কৃষক দীর্ঘদিন যাবৎ নানা জাতের মৌসুিম সবজি সহ নানা জাতে গাছ রোপন করে আসছেন। তার মধ্যে রয়েছে কাঁঠাল, পেয়ারা, কলা, তেজপাতা, শিমগাছ, লাউগাছ, টমেটো, বেগুন, ফরাস ও বৃক্ষ প্রজাতির মধ্যে আকাশমনি, বেলজিয়াম, সেগুন ও বাঁশ বাগান রয়েছে। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বুধবার ভোর রাতের কোন এক সময় কে বা কারা মনাফ মিয়ার পিয়ারা, কলা, কাঁঠাল, তেজপাতা, শিম ও লাওগাছ প্রায় ৩ লাখ টাকার,সানুর মিয়ার সবজি বাগান প্রায় ৫০ হাজার টাকা,আব্দুল মজিদের আকাশমনি,বেলজিয়াম, সেগুন, কলা ও সবজি ক্ষেতের প্রায় ২ লাখ টাকার, ইউনুছ মিয়ার বাঁশ ,আকাশমনি গাছ ও সবজি ক্ষেতের প্রায় ২ লাখ টাকার, সিরাজ মিয়ার টমেটো, বেগুন ও ফরাসের সবজি ক্ষেতের প্রায় দেড় লাখ টাকার ও আফিয়া বেগমের গাছ ও সবজি বাগানের প্রায় ৫০ হাজার টাকার সবজি ক্ষেত ও গাছ গাছালি কেটে বিনষ্ট করে যায়। বুধবার সকালে তাদের জমির এই অবস্থা দেখে সবাই কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে।

কৃষক মনাফ মিয়া, আব্দুল মজিদ সানুর মিয়া ও আফিয়া বেগম বলেন, একই এলাকার হাজী জহির উদ্দিন, আব্বাছ আলী ও আহমদ আলীদের সাথে জমি-জমা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। তারাই হয়তো আমাদের এই কষ্টার্জিত বাগান বিনষ্ট করেছে। ধারদেনা করে এই জমি চাষাবাদ করেছি যাথে পরিবার-পরিজন নিয়ে ভালো ভাবে সংসার চালাতে পারি। কিন্তুু এখন আমরা ধারদেনা কিভাবে পরিশোধ করবো আর সংসারই কি ভাবে চালাবো ? এখন পথে বসা ছাড়া আর কোন রাস্তা দেখছিনা।

ঘটনার খবর পেয়ে কমলগঞ্জ থানার এস আই তোফায়েল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন মাধবপুর ইউপি চেয়ারম্যান পুষ্প কুমার কানু ও ইউপি সদস্য মোতাহের আলী। এ ঘটনায় কৃষক আব্দুল মজিদ বাদী হয়ে কমলগঞ্জ থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। #

About eibeleamialabula

Read All Posts By eibeleamialabula

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *