- বড়লেখা, ব্রেকিং নিউজ, স্লাইডার

বড়লেখায় বিশ্বস্থ দোকান কর্মচারির কান্ড !

এইবেলা, বড়লেখা, ১৩ নভেম্বর ::

বড়লেখা পৌরশহরের আয়শা ট্রেডার্সের বিশ্বস্থ দোকান কর্মচারী অনুপম দত্ত যিশু (২৮) দোকানের ৪ লাখ ৬০ হাজার টাকা হাতিয়ে নিতে ছিনতাইয়ের নাটক সাজিয়েও শেষ রক্ষা পায়নি। অবশেষে পুলিশের জেরায় টাকা আত্মসাতের কথিত ছিনতাই নাটক সাজানোর কথা স্বীকার করে। মঙ্গলবার বিকেলে তার সহযোগী স্বপন দত্তের বাড়ি থেকে পুলিশ পুরো টাকা উদ্ধার করে তাদেরকে গ্রেফতার করেছে।

পুলিশ ও ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী সুত্রে জানা গেছে, আয়শা ট্রেডার্সের মালিক মাহবুবুর রহমান সোমবার বিকেলে বিশ্বস্থ দোকান কর্মচারী অনুপম দত্ত যিশুকে পুবালী ব্যাংক ও ডাচবাংলা ব্যাংক থেকে ৪ লাখ ৬০ হাজার টাকা উত্তোলন করে এনসিসি ব্যাংকে গিয়ে কোম্পানীর নামে টিটি করার জন্য ৩ টি চেক প্রদান করেন। অনুপম টাকা তুলে কথিত ছিনতাইয়ের নাটক সাজায়। এনসিসি ব্যাংকে যাওয়ার পথে একটি কালো রঙের লাইটেসে ছিনতাইকারীরা তাকে প্রাণে হত্যার ভয় দেখিয়ে জোরপুর্বক তুলে নিয়ে উপজেলার দক্ষিণভাগ দক্ষিণ ইউপির হাতলিঘাট এলাকায় মারধর করে ফেলে যায়। রাতে সেখান থেকে আহত অবস্থায় কোনমতে সে বড়লেখা হাসপাতালে গিয়ে ভর্তি হয়। দোকান মালিক মাহবুবুর রহমান এঘটনাটি পুলিশকে অবহিত করেন এবং মঙ্গলবার সকালে থানায় গিয়ে অজ্ঞাতনামা আসামী করে ছিনতাই মামলা দায়ের করেন।

থানার ওসি মো. ইয়াছিনুল হক হাসপাতালে গিয়ে আহত দোকান কর্মচারী অনুপদ দত্ত যিশুকে ছিনতাইয়ের ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তার কথাবার্তায় ব্যাপক অসঙ্গতি পান। পুলিশের তদন্তে ক্রমশ সন্দেহের তীর তার দিকে ধাবিত হতে থাকে। এক পর্যায়ে টাকা আত্মসাতের লক্ষে সে ছিনতাইয়ের নাটক সাজানোর কথা পুলিশের নিকট স্বীকার করে। পরে তার দেয়া তথ্যমতে মঙ্গলবার বিকেলে সহযোগী স্বপন দত্তের বারইগ্রামস্থ বাড়ির বাথরুমে শপিং ব্যাগে রক্ষিত অবস্থায় সমুদয় টাকা উদ্ধার করে তাদের দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়।

থানার ওসি মো. ইয়াছিনুল হক জানান, আহত অনুপমের কথাবার্তায় অসঙ্গতি পাওয়ায় পুলিশের সন্দেহ হয়। পরবর্তীতে পুলিশ সুপার ফারুক আহমেদ পিপিএম (বার) এর নির্দেশনা অনুযায়ী অভিযান চালিয়ে আহত দোকান কর্মচারী অনুপম দত্তের স্বীকারোক্তিতে তার সহযোগী স্বপন দত্তকে গ্রেফতার ও কথিত ছিনতাইয়ের সমুদয় টাকা উদ্ধার করতে সক্ষম হন।#

About eibeleamialabula

Read All Posts By eibeleamialabula

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *