- কুলাউড়া, ব্রেকিং নিউজ, রাজনীতি, স্লাইডার

সাবেক এমপি ও রাজনীতিবিদ আব্দুল জব্বারের ৭৪তম জন্মদিন আজ

এইবেলা, কুলাউড়া, ১৭ নভেম্বর ::

মৌলভীবাজার-২ আসনের সাবেক এমপি, বঙ্গবন্ধুর স্নেহধন্য, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক, কেন্দ্রীয় কৃষক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মরহুম আব্দুল জব্বার এর ৭৪তম জন্মদিন রবিবার। আজ ১৭ নভেম্বর ১৯৪৫ সালের এই দিনে কুলাউড়ার এক ধর্নাঢ্য মুসলিম পরিবারের জন্মগ্রহণ করেন তিনি। জন্মদিন উপলক্ষ্যে তার নিজ বাড়িতে নানা কর্মসূচি পালন করা হবে। আব্দুল জব্বারের পুত্র এবং প্রধানমন্ত্রীর প্রটোকল অফিসার-২ আবু জাফর রাজু জন্মবার্ষিকী অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করবেন।

মরহুম আব্দুল জব্বারের রয়েছে বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবন। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগষ্ট জাতির জনগক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপরিবারের হত্যার ঘটনায় প্রতিবাদ করায় আব্দুল জব্বারকে একাধিকবার গ্রেফতার করে অমানুসিক নির্যতন করে দীর্ঘদিন কারাগারে রাখা হয়। সেই সময় প্রথমবার জেল থেকে মুক্তি পেয়ে পুনরায় সক্রিয়ভাবে রাজনৈতিক কার্যক্রম শুরু করলে আবারও কুরবানী ঈদের রাতে গ্রেফতার হন আব্দুল জব্বার। জেলের অভ্যন্তরে বঙ্গবন্ধুর প্রধান খুনি মেজর নুর অমানুসিক নির্যাতন করে এবং হত্যার জন্য উদ্ধত হয়। সেই সময় তৎকালীন সেনা অফিসার, পরবর্তীতে রাষ্ট্রদূত প্রয়াত বিগ্রেডিয়ার জেনারেল আমিন আহমেদ চৌধুরী তাঁকে উদ্ধার করেন।

জানা যায়, ১৯৬২ সালে শিক্ষা আন্দোলনে ৬মাস, ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যার পর ১১মাস, ১৯৭৭ সালে একবছর কারা বরণ করেন আব্দুল জব্বার। আব্দুল জব্বার ৬২’র শিক্ষা আন্দোলন, ৬৬ এর ছয়-দফা, ৬৯ এর গণ অভ্যূত্থান, ৭০ এর নির্বাচন এবং ৯০-এর স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলন সহ সকল গনতান্ত্রিক আন্দোলনে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছিলেন।

আব্দুল জব্বারের দ্বিতীয় পুত্র বর্তমানে প্রধানমন্ত্রীর প্রটোকল অফিসার-২ দায়িত্ব পালন করছেন। তৃতীয় ছেলে আসম কামরুল ইসলাম সাবেক কুলাউড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ছিলেন এবং নব গঠিত কুলাউড়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন।

আব্দুল জব্বরের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে পরিবারের পক্ষ থেকে আজ সন্ধ্যায় দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে।

আব্দুল জব্বার কুলাউড়া থানা আওয়ামী লীগের প্রতিতষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক (১৯৬৪)। এছাড়া তিনি বঙ্গবন্ধু পরিষদ ও মুক্তিযোদ্ধা সংহতি পরিষদের প্রতিষ্ঠাকালীন থেকে কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি, মৌলভীবাজার রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির সহ-সভাপতি এবং ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি কুলাউড়া থানার আহবায়ক ছিলেন। ১৯৯২ সালের ২৮ আগস্ট শোকের মাসে মাত্র ৪৭ বছর বয়সে মারা যান তিনি।#

About eibeleamialabula

Read All Posts By eibeleamialabula

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *