- কমলগঞ্জ, বিনোদন, ব্রেকিং নিউজ, স্লাইডার

কমলগঞ্জে বর্ণাঢ্য আয়োজনে খাসিয়া বর্ষ বিদায় উৎসব পালন

প্রনীত রঞ্জন দেবনাথ, কমলগঞ্জ, ২৩ নভেম্বর ::

খাসিয়া সম্প্রদায়ের বর্ষ বিদায় ২৩ নভেম্বর। খাসিয়াদের ভাষায় একে বলা হয় ‘খাসি সেঙ কুটস্যাম’। বর্ষ বিদায়ের এই অনুষ্ঠান চিরাচরিত ঐতিহ্যবাহী প্রথায় উদযাপন করেন খাসিয়ারা। মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের ভেতরে মাগুরছড়া ও লাউয়াছড়ায় তাদের দু’টি পুঞ্জি রয়েছে। খাসি সোসিয়্যাল কাউন্সিলের আয়োজনে শনিবার দিনব্যাপী মাগুরছড়া খাসিপুঞ্জি মাঠে এ উৎসব শুরু হয়। বর্ণাঢ্য আয়োজনে খাসি (খাসিয়া) বর্ষ বিদায় উৎসবের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজারের জেলা প্রশাসক নাজিয়া শিরীন।

খাসি সোসিয়্যাল কাউন্সিলের সভাপতি ও মাগুরছড়া খাসিয়া পুঞ্জির হেডম্যান জিডিসর প্রধান সুচিয়াং-এর সভাপতিত্বে এবং লাউয়াছড়া খাসিয়া পুঞ্জির হেডম্যান ফিলা পত্মী, খাসি সোসিয়্যাল কাউন্সিলের সেক্রেটারী এলিসন সুঙ এর সঞ্চালনায় খাসি বর্ষ বিদায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সম্প্রীতি বাংলাদেশ এর আহবায়ক পীযুষ বন্ধ্যোপাধ্যায়, মৌলভীবাজারের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মল্লিকা দে, বৃহত্তর সিলেট আদিবাসী ফোরামের চেয়ারপার্সন পিডিশন প্রধান সুচিয়াং, মৌলভীবাজার প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সালেহ এলাহী কুটিসহ সিলেট বিভাগের বিভিন্ন খাসিয়া পুঞ্জির হেডম্যানবৃন্দ।

অনুষ্ঠানস্থল লাউয়াছড়া মাঠের এক প্রান্তে বাঁশের খুঁটির উপর প্রাকৃতিক পরিবেশে নারিকেল গাছের পাতায় ছাউনি দিয়ে আলোচনা সভার মঞ্চস তৈরী করা হয়। মাঠের চারপাশে তাদের নিজস্ব পণ্য সামগ্রী নিয়ে মেলায় স্টল বসে। স্টল সমুহে খাসিয়া সম্প্রদায়ের প্রয়োজনীয় সামগ্রী ছাড়াও খেলনা, খাদ্য, পোশাক ও মশলা সামগ্রী স্থান পেয়েছে। বৃহত্তর সিলেট বিভাগের ৭০টি খাসিয়া পুঞ্জি থেকে আগত নারী-পুরুষ, শিশু কিশোররা তাদের ঐতিহ্যবাহী পোশাক পরিধান করে এসে এসব স্টল থেকে প্রয়োজনীয় সামগ্রী কিনছেন।

উৎসবের মূল আকর্ষণ ছিল ঐহিত্যবাহী খাসি পোশাক পরে মেয়েদের নাচ-গান, তৈল যুক্ত একটি বাঁশে উঠে উপরে রাখা মোবাইল ফোন গ্রহন, দুটি পুকুরে বড়শী দিয়ে মাছ শিকার,তীর ধুনক খেলা, গুলতি চালানো, র‌্যাফেল ড্র ও মেলা। মাগুরছড়া ইয়ূথ ক্লাবের সভাপতি ফরলী মিয়াঙ, খাসি সোশাল কাউন্সিলের তথ্য সম্পাদক সাজু মারছিয়াঙ বলেন, এ উৎসবের মাধ্যমে তাদের বিলুপ্ত প্রায় সংস্কৃতি ও খেলাধূলাকে ধরে রাখার চেষ্টা করা হচ্ছে।

২০১২ সাল থেকে মাগুরছড়া থাসিয়া পুঞ্জির ফুটবল মাঠে আনুষ্ঠানিকভাবে খাসি বর্ষ বিদায় “খাসি সেঙ কুটস্যাম” পালন করা হচ্ছে। ৭২টি থাসিয়া পুঞ্জির থেকে খাসি নারী পুরুষ, কিশোর- কিশোরীরা এ উৎসবে যোগ দিয়েছেন। আর এখানের সব আয়োজনই প্রাকৃতিক পরিবেশে হচ্ছে। অনুষ্ঠান চলবে সন্ধ্যা পর্যন্ত।

মাগুরছড়া খাসিয়া পুঞ্জির হেডম্যান জিডিশন প্রধান সুচিয়াং ও লাউয়াছড়া খাসিয়া পুঞ্জির হেডম্যান ফিলা পত্মী জানান. ব্রিটিশ শাসন আমল থেকে ভারদের মেঘালয় রাজ্যে ২৩ নভেম্বর খাসি বর্ষ বিদায় “খাসি সেঙ কুটস্যাম” পালন করা হয়। পরদিন ২৪ নভেম্বর থেকে শুরু হবে খাসি বর্ষ বরণ ।#

About eibeleamialabula

Read All Posts By eibeleamialabula

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *