- Uncategorized

কুলাউড়ার শরীফপুরে এক মাদক সম্রাটের যন্ত্রনায় অতিষ্ঠ প্রবাসী সহোদর

এইবেলা, কমলগঞ্জ, ২১ জানুয়ারি ::

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার শরীফপুর ইউনিয়নের সঞ্জবপুর গ্রামের চিহ্নিত এক মাদক স¤্রাটের চাঁদাবাজের যন্ত্রনায় অতিষ্ঠ এলাকার প্রবাসী দুই সহোদর পরিবার। চাহিদা মতো টাকা না দেয়ায় এলাকায় প্রবাসীর মার্কেটের ভাড়াকৃত দোকান কৌঠা দখল ও প্রবাসীর ভোগদখলকৃত বাগান থেকে নানা প্রজাতির গাছ কর্তন করে নিয়ে যাচ্ছে। এমনকি প্রবাসীদের মেরে ফেলারও ভয়ভীতি প্রদর্শন করছে। এসব ঘটনায় দুই প্রবাসী সহোদরের মা গত ১৮ জুনয়ারী কুলাউড়া থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

অভিযোগের বিষয়ে সরেজমিনে জানা যায়, শরীফপুর ইউনিয়নের সঞ্জবপুর গ্রামের জমির আলীর ছেলে আব্দুল আউয়াল তানু (৪২) এলাকায় একজন মাদক স¤্রাট হিসাবে পরিচিত। তার বিরুদ্ধে বিজিবি’র মাদক ও গাঁজাসহ নানা অপরাধে বিভিন্ন সময়ে একাধিক মামলা রয়েছে। এলাকায় তানুর ধাপট তুঙ্গে। তার ভয়ে কেউ মুখ খোলে কথা বলতে সাহস পাননা। আব্দুল আউয়াল তানু একই এলাকার হাজী সৈয়দ কদর আলীর দুই ছেলে সোদিআরব প্রবাসী সৈয়দ আহসান আলী ও কাতার প্রবাসী সৈয়দ মাহমুদ আলী দীর্ঘ সময় ধরে প্রবাসে কর্মরত আছেন। প্রবাসী এই সহোদরের কাছ থেকে তানু মিয়া মোবাইল ফোনে চাঁদা দাবি করে আসছে। চাঁদা না দেয়ায় দুই সহোদরের শরীফপুর ইউনিয়নের চাতলাঘাট বাজারের মার্কেটের ভাড়াটিয়াদের ঘর থেকে বের করে দোকান কৌঠা দখল করে নিয়েছে। দোকানের ঢেউটিন, চিরানো কাঠ, পানির মটর, বালু উত্তোলন মেশিনের ফাইভ ও নানা জিনিসপত্রসহ প্রায় তিন লক্ষাধিক টাকার মালামাল চুরি করে নিয়ে যায়। এছাড়াও প্রবাসীদের ভোগদখলকৃত বাগান থেকে শতাধিক বেলজিয়াম গাছ কেটে নিয়ে যাওয়ায় আরও চার লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি সাধিত হয়েছে।

প্রবাসী সহোদরদের মা হাজী মুসলিমা বেগম জানান, তানু মিয়াকে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন হারে চাঁদা দেয়া হয়েছে। সে সন্ত্রাসী, মাদক ব্যবসায়ী হিসাবে পরিচিত। সে যখন এক লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করে সেই টাকা দিতে না পারায় তানু মিয়া আমার ছেলেদের দোকান কৌঠা জবর দখল করে সাড়ে তিন লক্ষ টাকার মালামাল, কেটে রাখা গাছ ও ভোগ দখলকৃত জায়গা থেকে একশ’রও বেশি গাছ কেটে নিয়ে যায়। এছাড়াও আমার ছেলেরা দেশে আসলে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে। তার অব্যাহত চাঁদা দাবী ও হুমকি ধামকিতে বাধ্য হয়ে তিনি বাদী হয়ে আব্দুল আউয়াল তানুকে অভিযুক্ত করে কুলাউড়া থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন বলে জানান।

ফোনে অভিযোগ করে প্রবাসী সৈয়দ আহসান আলী ও সৈয়দ মাহমুদ আলী বলেন, সন্ত্রাসী ও মাদক স¤্রাট তানু মিয়ার যন্ত্রনায় আমরা বিদেশে এসেও শান্তিতে আয় রোজগার করতে পারছি না। নিয়মিত চাঁদা দাবি করছে। চাঁদা না দেয়ায় দোকান গৃহ দখল ও বাগান থেকে গাছ কেটে নিয়ে কয়েক লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধিত করেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় এলাকাবাসী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, তানু মিয়া এলাকায় মাদক স¤্রাট। সে একাধিকবার জেল খেটেছে। বিজিবিসহ বিভিন্নভাবে তার বিরুদ্ধে থানা ও আদালতে মামলা রয়েছে। তার ভয়ে কেউ মুখ খোলতে সাহস পান না।

সহোদর প্রবাসীদের মা হাজী মুসলিমা বেগম এর অভিযোগ বিষয়ে কুলাউড়া থানার এসআই কানাইলাল চক্রবর্তী বলেন, তারা পরস্পর একে অন্যের আত্মীয়। আমি সরেজমিন তদন্ত করে কিছু সত্যতা পেয়েছি আবার কিছু পাইনি। তবে বিষয়টি আরও তদন্ত করা প্রয়োজন বলে তিনি দাবি করেন।
তবে অভিযোগ বিষয়ে আব্দুল আউয়াল তানুর মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

About eibeleamialabula

Read All Posts By eibeleamialabula

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *