- কুলাউড়া, ব্রেকিং নিউজ, মৌলভীবাজার, স্লাইডার

কুলাউড়ায় বিধবার ছবি ফেসবুকে ছেড়ে হয়রানীর অভিযোগ

এইবেলা, কুলাউড়া, ১৮ মার্চ ::  কুলাউড়া পৌর শহরের জয়পাশা এলাকায় আলেয়া বেগম (৩৫) নামক এক বিধবার ছবি ও ফোন নাম্বার সোস্যাল মিডিয়ায় (ফেসবুক) ছেড়ে হয়রানী করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিষয়টি নিয়ে ওই মহিলা ১৭ মার্চ রাতে কুলাউড়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগ থেকে জানা যায়, পৌর শহরের ৬নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা শিবলু মিয়া প্রায় ৩বছর আগে ক্যান্সার আক্রান্ত হয়ে মারা যান। স্বামী মারা যাবার পর স্ত্রী আলেয়া বেগম অসুস্থ বৃদ্ধ শাশুড়ীর সেবা-যতেœর লক্ষে আর বিয়ের পিড়িতে বসেননি। শাশুড়ীকে নিয়ে কোন রকমে দিন যাপন করছিলেন। বছর খানেক যাবার পর স্বামীর ছোট ভাই আব্দুর রহিম আলেয়াকে বিয়ের প্রস্তাব দেন। রহিম এর আগেও দুইটি বিয়ে করেছেন। কিন্তু তিনি মাদকাশক্তসহ নানা খারাপ কাজে জড়িত থাকার কারনে আগের দুই স্ত্রীই তাকে ছেড়ে চলে যায়। এর কারনে আলেয়াও তাকে বিয়ে করতে রাজি হননি।

আর বিয়েতে রাজি না হওয়ায় রহিম প্রায় সময় আলেয়াকে হুমকি-ধামকি দিতে থাকেন। আলেয়াকে দেখলেই নানা ধরনের অশ্লিল অঙ্গ-ভঙ্গি করে কু-রুচি পূর্ণ কথাবার্তা বলতে থাকেন রহিম। কয়েকবার তার গায়েও হাত দিয়েছে। রহিমের ধারাবাহিক অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে আলেয়া শেষতক কুলাউড়া গ্রাম এলাকায় তার বড় বোনের বাসায় আশ্রয় নেন। সেখানে গিয়েও রহিম তাকে ও তার বড় বোনকে অশ্লিল ভাষায় গালিগালাজ ও এসিড দিয়ে পুড়িয়ে মারার হুমকি প্রদান করে। বিষয়টি স্থানীয় গন্যমান্য লোকদের নিকট বিচার প্রার্থী হলে ক্ষিপ্ত হয়ে রহিম গত ১৪ মার্চ রাতে নানা ধরনের অশ্লিল কথাবার্তা লিখে আলেয়ার ছবি ও ফোন নাম্বার দিয়ে ফেসবুকে পুষ্ট করেন। নিরুপায় হয়ে অসহায় আলেয়া শেষতক আইনের আশ্রয় নেন।

এব্যাপারে অভিযোগের তদন্তকারী কর্মকর্তা কুলাউড়া থানার এসআই নিরঞ্জন তালুকদার জানান, অসহায় মহিলা আলেয়া বেগমের অভিযোগের কপিটি পেয়েছি। সরেজমিন তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য অফিসার ইনচার্জ বরাবর প্রেরণ করা হবে।#

About eibeleamialabula

Read All Posts By eibeleamialabula

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *