- ব্রেকিং নিউজ, সিলেট, স্লাইডার

ফেঞ্চুগঞ্জে বিয়ে করতে গিয়ে মুচলেকা দিয়ে ফিরলেন সৌদি প্রবাসী বর

এইবেলা, ফেঞ্চুগঞ্জ, ২৩ অক্টোবর ::- সব আয়োজন শেষ, বরপক্ষও এসেছে। পরিবেশন করা হয়েছে খাবার । ঠিক ওই মুহূর্তে উপস্থিত হন স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তারা।  শেষতক মুচলেকা দিয়ে কনে রেখেই বাড়ি ফিরলেন সৌদি প্রবাসী বর!

ঘটনাটি ঘটেছে সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলায় বৃহস্পতিবার ২২ অক্টোবর একটি কমিউনিটি সেন্টারে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জের ইলাশপুরের এক কিশোরীর (১৫) সঙ্গে বিয়ের আয়োজন চলছিল পার্শ্ববর্তী দক্ষিণ সুরমা উপজেলার মোগলাবাজার ইউনিয়নের নইখাই গ্রামের মৃত আশিদ আলীর সৌদি আরব প্রবাসী ছেলে জাবের আহমদ দলা মিয়ার (৩৬)।

উপজেলার ক্রিস্টাল লাইট কমিউনিটি সেন্টারে আয়োজন করা বিয়ের অনুষ্ঠান। নিয়ম অনুযায়ী বৃহস্পতিবার দুপুরে সৌদি প্রবাসী বর বিশাল গাড়িবহর নিয়ে কমিউনিনিটি সেন্টারে আসেন। কনেপক্ষ তাদের ফুলেল অভ্যর্থনা জানায়।

এরপর বরযাত্রীদের পরিবেশন করা হয় মুরগীর রোস্ট, পোলাওসহ কয়েক পদের খাবার। আমন্ত্রিত অতিথিরা ও বরযাত্রীরা শুরু করেন খাওয়া।

ওদিকে, বধূর সাজে অপেক্ষায় কিশোরী। তখনও বিয়ে পড়ানো হয়নি। হঠাৎ কমিউনিটি সেন্টারে পুলিশ নিয়ে প্রবেশ করেন ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার হুরে জান্নাত।

উভয়পক্ষের সঙ্গে আলাপ আলোচনা করে তিনি নিশ্চিত হন েকনে অপ্রাপ্ত বয়স্ক। এরপর কনের বাবাকে ডেকে ভৎসনা করে এক হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। সেই সঙ্গে বর এবং কনের বাবারা মুচলেকা দেন।  কনের সঠিক বয়স হওয়ার পর এই বিয়ে হবে এ ব্যাপারে তারা অঙ্গীকার করেন।

এ ব্যাপারে ইউএনও হুরে জান্নাত বলেন, ‘কনের ভাষ্যমতে, ২০০০ সালে তার জন্ম হয়েছে। সে হিসাবে তার বিয়ের বয়স হয়নি। তাই বিয়েটি ভেঙে দেয়া হয়েছে।’ #

About eibeleamialabula

Read All Posts By eibeleamialabula

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *