কুলাউড়ায় সিএনজি অটোরিক্সা ও অটোরিক্সা শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষে শহর রণক্ষেত্র কুলাউড়ায় সিএনজি অটোরিক্সা ও অটোরিক্সা শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষে শহর রণক্ষেত্র – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১০:৫৫ অপরাহ্ন

কুলাউড়ায় সিএনজি অটোরিক্সা ও অটোরিক্সা শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষে শহর রণক্ষেত্র

  • বুধবার, ৪ নভেম্বর, ২০২০
  • ৩০১ বার পড়া হয়েছে

উভয় পক্ষে ৩০ জন আহত :: অর্ধশতাধিক গাড়ী ভাঙচুর

এইবেলা, কুলাউড়া ::

কুলাউড়ায় উপজেলা সদরে সিএনজি অটোরিক্সা ও ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সা শ্রমিকদের মধ্যে ০৪ নভেম্বর বুধবার সকাল থেকে দফায় দফায় সংঘর্ষে শহর রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। এতে উভয়পক্ষে কমপক্ষে ৩০ জন আহত হয়। অর্ধশতাধিক ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সা ও সিএনজি অটোরিক্সা ভাঙচুর করা হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আনতে শহরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

ব্যাটারিচালিত অটোরিক্সা বন্ধের দাবিতে কুলাউড়া শহরের চৌমুহনীতে বুধবার ০৪ নভেম্বর সকাল ১১টায় সিএনজি অটোরিকশা চালকরা মানববন্ধন কর্মসূচির পালন করে। কর্মসূচি পালন শেষে পৌর শহরের বিভিন্ন মোড়ে অবস্থান নেয় সিএনজি অটোরিক্সা চালকরা। এসময় সকাল ১১ টার দিকে ইজিবাইক চালকরাও রাস্তায় নেমে এলে দু’পক্ষে সংঘর্ষ বেঁধে যায়। শুরু হয় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া।


ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সা শ্রমিক সমিতির সভাপতি আকাশ আহমদ দাবি করেন, সংঘর্ষ চলাকালে সিএনজি অটোরিক্সা শ্রমিকরা ৩০-৩৫টি ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সা ভাঙচুর করে এবং ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সার অফিস ভাঙচুর করা হয়। তিনি আরও জানান, উপজেলা চেয়ারম্যান উভয়পক্ষকে বিষয়টি নিষ্পত্তি করে দেয়ারও আশ্বাসের পরও ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সা চালকদের উপর নির্বিচারে হামলা চালিয়েছে সিএনজি অটোরিক্সা শ্রমিকরা। হামলাকারীদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করা হবে বলে জানান।

অপরদিকে সিএনজি অটোরিক্সা শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সোহাগ মিয়া জানান, ১৫-১৬টি সিএনজি ভাঙচুর করেছে ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সা শ্রমিকরা। আমাদের শান্তিপূর্ন মানববন্ধন কর্মসূচি চলাকালে রবিরবাজার থেকে একটি মিছিল কুলাউড়া শহরে প্রবেশকালে স্কুল চৌমুহনী এলাকায় ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সা শ্রমিকরা মিছিলে হামলা চালায়। এতে সিএনজি অটোরিক্সা শ্রমিকরা বিক্ষুব্ধ হয়।

সংঘর্ষ চলাকালে লুৎফুর রহমান (৫০), মরম আলী (৪০) , নওশাদ (২৮), বদরুল (৩০), জব্বর (৩২) ফখরুল (২১), ফয়ছল (৩০)সহ উভয় পক্ষে ৩০ জন আহত হয়েছে। এরমধ্যে লুৎফুর রহমানের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

এব্যাপারে কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. ইয়ারদৌস হাসান জানান, বর্তমানে পুলিশ পরিস্থিতি শান্ত করেছে। বোরবার উভয়পক্ষকে নিয়ে শান্তিপূর্ণ সমাধান করা হবে। শহরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।#

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৫ - ২০২০
Theme Customized By BreakingNews