কুলাউড়া পুত্রবধুর করা মিথ্যা মামলায় ফেরারি ৯০ বছরের বৃদ্ধ শ্বশুড় কুলাউড়া পুত্রবধুর করা মিথ্যা মামলায় ফেরারি ৯০ বছরের বৃদ্ধ শ্বশুড় – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
মঙ্গলবার, ০৩ অগাস্ট ২০২১, ০৭:৫৬ পূর্বাহ্ন

কুলাউড়া পুত্রবধুর করা মিথ্যা মামলায় ফেরারি ৯০ বছরের বৃদ্ধ শ্বশুড়

  • মঙ্গলবার, ২২ জুন, ২০২১
  • ২৩৪ বার পড়া হয়েছে

ছেলের অপকর্মের বিরুদ্ধে অসহায় পিতার সংবাদ সম্মেলন-

এইবেলা, কুলাউড়া  ::

কুলাউড়া উপজেলার টিলাগাঁও ইউনিয়নের ৯০ বছরের এক বৃদ্ধ নিজ পুত্র আর পুত্রবধুর অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে ২২ জুন মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলন করে প্রতিকার চেয়েছেন। ভরণপোষণ তো দুরের কথা উল্টো পুত্রবধুর দায়েরকৃত মিথ্যা মামলায় ফেরারি হয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। এলাকায় প্রশাসন, জনপ্রতিনিধিসহ একাধিক সালিশ বৈঠক অনুষ্ঠিত হলেও বিষয়টি নিষ্পত্তি করতে ব্যর্থ হয়েছেন সালিশকারীরা।

উপজেলার টিলাগাঁও ইউনিয়নের চান্দপুর গ্রামের ৯০ বছরের বৃদ্ধ মো. আব্দুল লতিফের ৪ পুত্র। এরমধ্যে সবার বড় মো. আব্দুল মোতালেব বিজিবির সুবেদার। বড় ছেলে সুবেদার মো. আব্দুল মোতালেব ও তার স্ত্রী ছালেমা বেগমের অত্যাচার নির্যাতন ও মিথ্যা মামলায় আসামী হয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন।

সংবাদ সম্মেলন লিখিত বক্তব্যে বৃদ্ধ মো. আব্দুল লতিফ জানান, উনার ৩৬ শতক সম্পত্তি ৪ ছেলেকে সমানভাগে বন্টন করে দেন। কিন্তু উনার বড় ছেলে বিজিবিতে কর্মরত মো. আব্দুল মোতালেব গত ০৬ এবং ২১ মার্চ বাড়িতে ছুটিতে এসে তার স্ত্রী ছালেমা বেগমকে নিয়ে ৩য় ছেলে মো. আব্দুল হান্নানের বসতঘর সংলগ্ন কিছু জায়গা জোরপূর্বক দখল করে নেয়। এঘটনায় টিলাগাঁও ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের নিকট আমার ছেলে লিখিত অভিযোগ করেন। গত ১২ মার্চ ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মালিক স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ নিয়ে সালিশ বৈঠকে বসেন। বিষয়টি বানচাল করতে সুবেদার মো. আব্দুল মতলিব ও তার স্ত্রী ছালেমা বেগম বাড়িতে অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টি করে। গত ০৩ এপ্রিল কুলাউড়া থানায় লিখিত অভিযোগ দিলে অফিসার ইনচার্জ বিনয় ভূষন রায়ের নির্দেশে বিষয়টি স্থানীয় পর্যায়ে নিষ্পত্তির চেষ্টা করেন। কিন্তু সুবেদার মো. আব্দুল মোতালেব নিষ্পত্তিকালে বাড়িতে না আসায় বিচষয়টি নিষ্পত্তি হচ্ছে না।

বৃদ্ধ আব্দুল লতিফ আরও অভিযোগ করেন গত ১৯ জুন বিকেলে পুত্রবধু ছালেমা বেগম তাকে মারপিট করেন। তার ছেলেরা তাকে উদ্ধার করে কুলাউড়া হাসপাতালে ভর্তি করেন। সোমবার ২১জুন এ ব্যাপারে কুলাউড়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

তিনি আরও জানান, ছেলের এসব অপকর্মের ব্যাপারে গত ০৫ মে এবং ০৪ এপ্রিল বিজিবির মহাপরিচালকের কাছে পৃথক লিখিত অভিযোগ করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনকালে বৃদ্ধ মো. আব্দুল লতিফের ৩ পুত্র মো. আব্দুল জলিল, মো. আব্দুল মান্নান ও মো. আব্দুল হান্নান উপস্থিত ছিলেন।

এ ব্যাপারে কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ বিনয় ভুষণ রায় জানান, এই ঘটনায় দু’পক্ষই পৃথক অভিযোগ দায়ের করেছে। এব্যাপারে আমরা আইনগত ব্যবস্থা নেবো।#

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৫ - ২০২০
Theme Customized By BreakingNews