মৃত্যুঝুঁকি নিয়ে মাধবকুণ্ডের পাহাড় চুড়ায় উঠছে টিকটকাররা, দুর্ঘটনার আশংকা মৃত্যুঝুঁকি নিয়ে মাধবকুণ্ডের পাহাড় চুড়ায় উঠছে টিকটকাররা, দুর্ঘটনার আশংকা – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০৫:০৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বড়লেখায় ঘরে অবরুদ্ধ অর্ধমৃত গৃহবধুকে পুলিশের উদ্ধার কমলগঞ্জে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবলে কমলগঞ্জ পৌরসভা চ্যাম্পিয়ান       বড়লেখায় ভুমিসেবা সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘরপ্রাপ্ত ১৬ পরিবারকে জমির দলিল হস্তান্তর ভোরের কাগজের বিরুদ্ধে মামলা : বড়লেখায় প্রেসক্লাবের প্রতিবাদ সভা কুলাউড়ায় অগ্নিকান্ড জনিত দূর্যোগ মোকাবেলায় করণীয় বিষয়ক প্রশিক্ষণ সমাপ্ত রাজনগরে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সাথে পুলিশের গাড়ির ধাক্কা এসআই’র মৃত্যু কুলাউড়ায় চা শ্রমিক সমাবেশে নাদেল – চা শ্রমিকদের সকল সুবিধা নিশ্চিত করবে সরকার বড়লেখায় কেক কেটে ইউএনও’র বর্ষপূর্তি পালন বড়লেখায় সাংবাদিক লাভলুর চাচা আরব আলীর কোলখানি বড়লেখায় ইউএনও’র এক বছর পূর্ণ হচ্ছে ২০ মে

মৃত্যুঝুঁকি নিয়ে মাধবকুণ্ডের পাহাড় চুড়ায় উঠছে টিকটকাররা, দুর্ঘটনার আশংকা

  • শনিবার, ৭ মে, ২০২২

বড়লেখা প্রতিনিধি :

মাধবকুণ্ড জলপ্রপাতে কিশোর-তরুণ বয়সী টিকটকারদের চরম উৎপাত বেড়েছে। টিকটিক ভিডিও তৈরি করতে পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে টিকটকাররা মৃত্যুঝুঁকি নিয়ে পাহাড় চুড়ায় উঠছে। আর এতে মারাত্মক দুর্ঘটনার আশংকা দেখা দিয়েছে। পাহাড় চ‚ড়ায় উঠার কয়েকটি ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়েছে। এছাড়া তাদের বিরুদ্ধে পর্যটক হয়রানি ও শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করারও অভিযোগ পাওয়া গেছে। টিকটকারদের উৎপাতের মাধবকুণ্ডে ঘুরতে আসা পর্যটকরা রীতিমতো বিব্রত, নিরাপত্তা নিয়েও উদ্বিগ্ন। তবে পুলিশ বলছে, পর্যটকের নিরাপত্তায় তারা সবসময় তৎপর রয়েছেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে গেছে, ঈদুল ফিতরের ছুটিতে মাধবকুণ্ড জলপ্রপাতে পর্যটকদের ঢল নেমেছে। প্রতিদিন আশপাশের জেলা-উপজেলার পাশপাশি দেশের নানা প্রান্তের মানুষ ছুটে আসছেন মাধবকুণ্ডে। এই সুযোগে বড়লেখা ও আশপাশের উপজেলার উঠতি বয়সী কিশোর ও তরুণ টিকটকররা মাধবকুণ্ডে ঘুরতে আসছেন। তারা এখানে ঘুরতে আসা পর্যটকদের নানাভাবে হয়রানি করছে। জলপ্রপাতের পানিতে গোসল করতে নামা নারী পর্যটকের ভিডিও ধারণ করছে। এতে পর্যটকদের সঙ্গে তাদের বাকবিতন্ডা হচ্ছে। এছাড়া তারা টিকটিক ভিডিও তৈরি করতে পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে মৃত্যু ঝুঁকি নিয়ে পাহাড় চ‚ড়ায় উঠছে। এদিকে শুক্রবার মাধবকুণ্ডে ঘুরতে আসা কয়েকজন পর্যটককে টিকটকাররা হয়রানি ও শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

স্থানীয়রা জানান, শুক্রবার মাধবকুণ্ড জলপ্রপাতে কুলাউড়া ও জুড়ী থেকে ঘুরতে আসা কয়েকজন পর্যটককে টিকটকারা পানি দিয়ে ভিজিয়ে দেয়। এনিয়ে তাদের মধ্যে কথাকাটি হয়। পরে তারা পর্যটকদের মারধর করে। এসময় স্থানীয়রা টিকটকারদের উত্তম-মাধ্যম দিয়ে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদে আটকে রাখেন। অভিযুক্তরা অপ্রাপ্ত বয়স্ক হওয়ায় তাদের নাম প্রকাশ করা হয়নি।

দক্ষিণভাগ উত্তর ইউপির চেয়ারম্যান এনাম উদ্দিন শনিবার সন্ধ্যায় জানান, মাধবকুণ্ডে কুলাউড়া ও জুড়ী থেকে ঘুরতে আসা কয়েকজন পর্যটককে টিকটকাররা পানি দিয়ে ভিজিয়ে দেয়। এনিয়ে কথা কাটাকাটি ও পরে তাদের মারধর করে টিকটকররা। স্থানীয়রা তাদের ইউনিয়ন পরিষদে নিয়ে আসেন। পরে ভবিষ্যতে এরকম কাজ করবে না মর্মে মুচলেকা নিয়ে তাদের পরিবারের জিম্মায় ছেড়ে দেওয়া হয়।

মাধবকুণ্ডে ঘুরতে আসা পর্যটক জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, মাধবকুণ্ডে ইদানিং যেভাবে টিকটকারদের উৎপাত বেড়েছে তাতে মাধবকুণ্ডের পরিবেশ অনিরাপদ হয়ে যাচ্ছে। এখানে ঘুরতে এসে দেখছি টিকটিকরা যেখানে সেখানে দাঁড়িয়ে ভিডিও করছেন। এই অবস্থায় নারী পর্যটকরা বিব্রতবোধ করছেন। এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া প্রয়োজন।

নাম প্রকাশ না শর্তে স্থানীয় মাধবকুণ্ড এলাকার কয়েকজন ব্যবসায়ী বলেন, প্রতিদিন কিশোর-তরুণ টিকটকরার এখানে এসে ভিডিও তৈরি করছে। তারা পর্যটকদের হয়রানি করছে। আপত্তিকর ভাষায় কথা বলছে। অনেকে প্রতিবাদ করেন। অনেকে আবার ভয়ে কথা বলেন না। তাদের উৎপাতে পর্যটকরা বিব্রত। তাদের বিরুদ্ধে কথা বললে পরে আমাদের ওপর হামলা করবে। তাই আমরাও প্রতিবাদ করিনা। পুলিশও তাদের বিরুদ্ধে কোনো এ্যাকশন নিচ্ছে না। তবে গতকাল শুক্রবার কয়েকজন নারী পর্যটককে হয়রানির কারণে পুলিশের টনক নড়েছে।

মাধবকুণ্ডের ট্যুরিস্ট পুলিশের এসআই খায়রুল ইসলাম শনিবার বিকেল মুঠোফোনে বলেন, পর্যটকরা যাতে কোনোভাবে হয়রানির শিকার না হন সেজন্য আমরা সবসময় কাজ করছি। শুক্রবার পর্যটকদের সাথে একটি অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটেছে। আমি ডিউটিতে ছিলাম না। অন্য একজন ছিলেন। পরে শুনেছি বিষয়টি সমাধান হয়েছে। আজকেও প্রতিদিনের মতো পর্যটকরা আসছেন। পরিবেশও ভালো। ঝুঁকি নিয়ে পাহাড় চ‚ড়ায় উঠার বিষয়ে তিনি বলেন, পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে কেউ উপরে উঠতে পারে না। যারা উঠার চেষ্টা করেন তাদের আমরা সতর্ক করছি।

এব্যাপারে ইউএনও খন্দকার মুদাচ্ছির বিন আলী জানান, ঈদের দিন থেকে এখানে অনেক পর্যটকের সমাগম ঘটছে। শুক্রবার পর্যটকদের মধ্যে গায়ে ধাক্কা লাগা নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। পর্যটকদের নিরাপত্তায় সেখানে ট্যুরিস্ট পুলিশ কাজ করছে। পর্যটকের নিরাপত্তায় ভ্রাম্যমাণ আদালতও পরিচালতি হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৫ - ২০২০
Theme Customized By BreakingNews