ফুলবাড়ীতে আঙ্গুর চাষে রুহুল আমিনের চমক! ফুলবাড়ীতে আঙ্গুর চাষে রুহুল আমিনের চমক! – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
বৃহস্পতিবার, ১১ এপ্রিল ২০২৪, ০১:৫৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বড়লেখা ফাউন্ডেশন ইউকে’র ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ মেয়রের আন্তরিকতায় উন্নয়নের ছোঁয়া পেলো কুলাউড়া দক্ষিণবাজার থেকে স্টেশনরোড কুলাউড়া উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদকের ঈদ শুভেচ্ছা কুলাউড়া মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতির ঈদ শুভেচ্ছা মৌলভীবাজার জেলা সাংবাদিক ফোরামের ইফতার মাহফিল সম্পন্ন হাকালুকি হাওরে আধা পাকা বোরো ধান কাটা শুরু করেছেন কৃষকরা বড়লেখায় দুস্ত পরিবার ও ক্বিরাত প্রশিক্ষকদের শাহবাজপুর কল্যাণ সমিতি ফ্রান্সের অর্থ সহায়তা বন্যার আগাম সংকেত পাওয়া যাবে ছয় মাস পূর্বেই জুড়ীতে এ এস বি ফাউন্ডেশনের ঈদ উপহার ও ইফতার বিতরণ জুড়ীতে দারুল ক্বিরাতের পুরস্কার বিতরণ

ফুলবাড়ীতে আঙ্গুর চাষে রুহুল আমিনের চমক!

  • বুধবার, ২৪ মে, ২০২৩

ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি:: কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে বাণিজ্যিকভাবে আঙ্গুর চায়ে চমক দেখাচ্ছেন রুহুল আমিন। রুহুল আমিনের বাড়ী উপজেলার কাশিপুর ইউনিয়নের গঙ্গারহাট গ্রামে।

দুই বছর আগে রাশিয়া, ইউক্রেনসহ বিভিন্ন দেশ থেকে উন্নত জাতের আঙ্গুরের চারা এনে প্রায় তিন বিঘা জমিতে বাণিজ্যিকভাবে চাষ শুরু করেন। বর্তমানে তার বাগানে শোভা পাচ্ছে ২২ জাতের আঙ্গুরের গাছ। বাইকুনর, গ্রীনলং, একেলো, এনজেলিকা, মুনড্রপসহ বিভিন্ন জাতের থোকা থোকা আঙ্গুর।

এসব আঙ্গুরের রং ও স্বাদ বিদেশ থেকে আমদানি করা আঙ্গুরের মতো হওয়ায় মিলেছে সফলতাও। লাভজনক এ ফল চাষ ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে দেয়া গেলে আমদানি নির্ভরতা কমার পাশাপাশি লাভবান হতে পারবেন কৃষকরাও।

আঙ্গুর চাষি রুহুল আমিন বলেন, ‘রাশিয়া, ইউক্রেনসহ বিভিন্ন দেশ থেকে আঙ্গুর চারা সংগ্রহ করে দুই বছর আগে রোপণ করেছিলাম। পাশাপাশি বিদেশে যেভাবে আঙ্গুর চাষ করা হয় সে কৌশল অবলম্বন করেছি। গত বছর কিছু আঙ্গুর এসেছিল। এ বছর আরও বেশি ফল এসেছে। আগামী বছর সবগুলো গাছে আঙ্গুর আসলে তা দিয়ে জেলার বাজারের চাহিদা অনেকটাই মেটানো সম্ভব হবে।

কুড়িগ্রাম জেলায় বিভিন্ন রকম ফলের চাষ হলেও আঙ্গুরের বাগান এটিই প্রথম। এখানের মাটিতে আঙ্গুর চাষের সম্ভাবনা জাগায় আগ্রহী হয়ে উঠছেন নতুন উদ্যোক্তারাও। এ ছাড়া প্রতিদিন অসংখ্য মানুষ রুহুল আমিনের আঙ্গুর ক্ষেত দেখতে ভিড় করছে। এছাড়াও কুড়িগ্রাম কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরে লোকজনও এসেছেন আঙ্গুর বাগান দেখতে

আঙ্গুর বাগান দেখতে আসা কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার তরুণ কৃষি উদ্যোক্তা আবু রায়হান ফারুক জানান,রুহুল আমিনের কাছ থেকে আঙ্গুর চারা সংগ্রহ করে বাগানে রোপণ করার পর ইতোমধ্যেই ফল এসেছে। এই আঙ্গুরের রং ও স্বাদ বাজারে আমদানি করা আঙ্গুরের চেয়েও ভালো। এই জেলায় আঙ্গুর চাষ ছড়িয়ে দেয়া গেলে আমদানি নির্ভরতা কমে আসবে।

কুড়িগ্রাম কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরে উপপরিচালক কৃষিবিদ বিল্পব কুমার মোহন্ত জানান, আঙ্গুর চাষের উপযোগী বিপুল পরিমাণ জমি থাকায় ভবিষ্যতে কুড়িগ্রাম জেলায় এ ফল চাষের সম্ভাবনা রয়েছে। কৃষি বিভাগের তথ্য অনুযায়ী,জেলায় আঙ্গুর চাষের উপযুক্ত জমি রয়েছে ৪৭ হাজার ৩০২ হেক্টর।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২২ - ২০২৪
Theme Customized By BreakingNews