আত্রাইয়ে স্বেচ্ছাশ্রমে রাস্তা সংস্কার করলো গ্রামবাসী আত্রাইয়ে স্বেচ্ছাশ্রমে রাস্তা সংস্কার করলো গ্রামবাসী – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
বৃহস্পতিবার, ১১ এপ্রিল ২০২৪, ০৪:৪৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বড়লেখা ফাউন্ডেশন ইউকে’র ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ মেয়রের আন্তরিকতায় উন্নয়নের ছোঁয়া পেলো কুলাউড়া দক্ষিণবাজার থেকে স্টেশনরোড কুলাউড়া উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদকের ঈদ শুভেচ্ছা কুলাউড়া মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতির ঈদ শুভেচ্ছা মৌলভীবাজার জেলা সাংবাদিক ফোরামের ইফতার মাহফিল সম্পন্ন হাকালুকি হাওরে আধা পাকা বোরো ধান কাটা শুরু করেছেন কৃষকরা বড়লেখায় দুস্ত পরিবার ও ক্বিরাত প্রশিক্ষকদের শাহবাজপুর কল্যাণ সমিতি ফ্রান্সের অর্থ সহায়তা বন্যার আগাম সংকেত পাওয়া যাবে ছয় মাস পূর্বেই জুড়ীতে এ এস বি ফাউন্ডেশনের ঈদ উপহার ও ইফতার বিতরণ জুড়ীতে দারুল ক্বিরাতের পুরস্কার বিতরণ

আত্রাইয়ে স্বেচ্ছাশ্রমে রাস্তা সংস্কার করলো গ্রামবাসী

  • মঙ্গলবার, ২১ জুলাই, ২০২০

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই ::

নওগাঁর আত্রাইয়ে প্রবল বর্ষণ ও ঢলের পানিতে বিধ্বস্ত রাস্তা স্বেচ্ছাশ্রমে সংস্কার করলো গ্রামবাসী। গত কয়েক দিন আগে আকষ্মিকভাবে আত্রাই নদীর পানি বিপদসীমা অতিক্রম করে প্রায় ১৭০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হতে থাকে। পানির গতিবেগ বেড়ে যাওয়ায় বিভিন্ন স্থানে ভাঙতে থাকে বেড়ি বাঁধসহ বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ। একই সাথে আত্রাই থেকে ভরতেঁতুলিয়া হয়ে কাশিয়াবাড়ি পর্যন্ত রাস্তা ডুবে বন্যা কবলিত হয়ে যায় তেঁতুলিয়া গ্রাম। কাশিয়াবাড়ি ও তেঁতুলিয়া গ্রামের হাজার হাজার লোকজনের চলাচলের একমাত্র রাস্তাটি বন্যায় ভেঙে যাওয়ায় চলাচলে তারা চরম দুর্ভোগের শিকার হন। বন্যার পানি রাস্তা থেকে নেমে গেলেও রাস্তার ভাঙনস্থল মেরামত না করায় চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয় ভরতেঁতুলিয়া গ্রামবাসীদের। আত্রাই রেলওয়ে স্টেশনের নিকটবর্তী এ গ্রামবাসীদের চলাচলের বিকল্প কোন রাস্তা না থাকায় তাদের দুর্ভোগ আরো বেড়ে যায়। এমন কি গ্রামের কেউ অসুস্থ হলে তাকে হাসপাতাল বা চিকিৎসা কেন্দ্রে নেয়াও সম্ভব হচ্ছিল না। তা ওই গ্রামের লোকজন স্বোচ্ছাশ্রমেই রাস্তাটি সংস্কার করছেন।

আত্রাই মাছ বাজার আড়ৎদার সমবায় সমিতির সভাপতি ও ভরতেঁতুলিয়া গ্রামের বাসিন্দা বাবলু আকন্দ বলেন, যুগ যুগ থেকে আমরা অবহেলিত। নদীর ধারের গ্রাম হিসেবে গ্রামকে রÿা করার টেকসই কোন ব্যবস্থা নেই। আত্রাই রেলওয়ে স্টেশন এবং উপজেলা সদরের খুব কাছের গ্রাম হলেও স্বাধীনতার পর থেকে পাকা রাস্তা নির্মিত হয়নি। ফলে প্রায় প্রতি বছরেই নদীর পানি বৃদ্ধি পেলেই আমাদের রাস্তা ডুবে ভেঙে যায়। এবারেও বন্যায় রাস্তাটি ভেঙে যাওয়ায় আমরা চরম দুর্ভোগের শিকার হই। যেহেতু আমাদের গ্রামবাসীর বের হওয়ার আর কোন রাস্তা নেই তাই আমি বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে মৌখিখভাবে বলেছিলাম। সরকারী কোন সাড়া না পাওয়ায়  রোববার থেকে নিজ উদ্যোগে স্বেচ্ছাশ্রমেই রাস্তাটি সংস্কার কাজ শুরু করেছি। #

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২২ - ২০২৪
Theme Customized By BreakingNews