বড়লেখা ও জুড়ী সীমান্তে ফের সক্রিয় চোরাচালানী চক্র বড়লেখা ও জুড়ী সীমান্তে ফের সক্রিয় চোরাচালানী চক্র – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ০৫:৩৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী সাব্বির, জাহাঙ্গির ও ডালিয়া শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাচনে বিজয়ী ভানু লাল, রাজু দেব ও হাজেরা খাতুন উপজেলা নির্বাচন: কমলগঞ্জে বিজয়ী বুলবুল, ওহাব ও বিলকিস শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাচন : ৪ সহকারী প্রিসাইডিং অফিসারকে অব্যাহতি রাজনগরে অটোরিক্শায় চার্জ দিতে গিয়ে যুবকের মৃত্যু হবিগঞ্জে নির্বাচনে দায়িত্ব পালনকালে সহকারী প্রিসাইডিং অফিসারের মৃত্যু সানি খানের নিপূণ হাতে চিত্রগ্রহণ হচ্ছে ব্যাড গার্লস সিরিজ ‘আমি কষ্টকর ও অগোছালো জীবন চাইনা – প্রভা উপজেলা নির্বাচন, কমলগঞ্জে ভোট গ্রহণ কাল, বৈরী আবহাওয়ার মধ্যেও নির্বাচনের প্রস্তুুতি নদী ভাঙ্গনে বন্যা কবলিত কমলগঞ্জের বিভিন্ন এলাকা, ১০টি স্থান ঝুঁকিপূর্ণ

বড়লেখা ও জুড়ী সীমান্তে ফের সক্রিয় চোরাচালানী চক্র

  • রবিবার, ৪ অক্টোবর, ২০২০

এইবেলা, বড়লেখা প্রতিনিধি :

বড়লেখা ও জুড়ী উপজেলার সীমান্ত এলাকায় চোরাকারবারীরা ফের তৎপর হয়ে উঠেছে। সংঘবদ্ধ চক্র প্রায় প্রতি রাতে ভারতীয় অবৈধ গবাদি (মহিষ ও গরু) পশুর চালান নিয়ে আসছে। জুড়ীর ফুলতলা ইউনিয়নের পূর্ব-বটুলি সীমান্ত এলাকা থেকে বিজিবি’র ফুলতলা বিওপির টহল দল শুক্রবার রাতে ভারত থেকে পাচারকালে একটি অবৈধ মহিষ ও পাঁচটি গরু জব্দ করেছে। এ সময় চোরাচালানীরা পালিয়ে যায়। শনিবার বিকেলে আটক অবৈধ গবাদিপশুগুলো বিজিবি জুড়ী কাষ্টমসে জমা দিয়েছে।

বিজিবি ৫২ ব্যাটালিয়ন সুত্রে জানা গেছে, গত শুক্রবার মধ্যরাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ফুলতলা বিওপির টহল কমান্ডার সুবেদার মো. শহিদুল ইসলামের নেতৃত্বে বিজিবি’র টহল দল জুড়ী উপজেলার পূর্ব-বটুলী নামক স্থানে অবস্থান নেয়। মেইন পিলার ১৮২৩/৩৩-এস হতে ১০ গজ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে একজন চোরাকারবারী ভারতীয় অবৈধ মহিষ ও গরুর একটি চালান নিয়ে আসতে দেখে বিজিবি তাকে ধাওয়া করে। পরবর্তীতে বিজিবি টহলদল মালিকবিহীন অবস্থায় ১টি ভারতীয় মহিষ ও ৫টি ভারতীয় গরু আটক করতে সক্ষম হয়। যার আনুমানিক বাজার মূল্য ২ লাখ টাকা। সীমান্তবাসী সুত্র জানায়, বড়লেখা উপজেলার বোবারথল ও জুড়ী উপজেলার বটুলি সীমান্ত দিয়ে গত দেড়/২ মাস ধরে চোরাকারবারীরা ভারতীয় মহিষ-গরু পাচারে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। বোবারথলের সীমান্ত পিলার ৮২ ও ৮৩ সংলগ্ন স্থান দিয়ে অবাধে ৪০ থেকে শতাধিক অবৈধ মহিষের চালান দেশে ঢুকলেও নির্বাক বিজিবি। রাতের আধার ছাড়াও সকালে মহিষ ও গরুর চালান ছোটলেখা বাজার ও পাল্লাথল চা বাগান হয়ে বড়লেখা সদর ইউনিয়নের বিছরাবাজারের জনৈক হাসানের ঘাটে নেয়া হয়। সেখান থেকে ছোটবড় স্মাগলাররা দেশের বিভিন্ন স্থানের পাইকারের কাছে ভারতীয় গরু-মহিষগুলো বিক্রি করছে। দূর্গা পুজাকে সামনে রেখে চোরাকারবারীরা অবৈধ গবাদি পশুর আড়ালে মাদকের বড় চালান নিয়ে আসার আশংকা রয়েছে।

বিবিজি ৫২ ব্যাটলিয়নের অধিনায়ক লে. কর্ণেল গাজী শহীদুল্লাহ জানান, সীমান্তে সবধরণের চোরাচালান বন্ধে বিজিবি তৎপর রয়েছে। শুক্রবার রাতে আটক ভারতীয় অবৈধ গবাদিপশুগুলো শনিবার বিকেলে জুড়ী কাষ্টমসে জমা দেয়া হয়েছে।#

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২২ - ২০২৪
Theme Customized By BreakingNews