আত্রাইয়ে ইরি বোরো ধান পরিচর্যায় ব্যস্ত কৃষক আত্রাইয়ে ইরি বোরো ধান পরিচর্যায় ব্যস্ত কৃষক – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ০১:৪২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কুলাউড়ার জয়চন্ডীতে রাজু ফাউন্ডেশনের ত্রাণ উপহার বালাগঞ্জের বোয়ালজুর ইউপির উপ-নির্বাচন : চেয়ারম্যান প্রার্থীর উপর হামলার অভিযোগ হাকালুকি হাওর তীরের ৩ উপজেলার জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে কুলাউড়ায় মতবিনিময় কমলগঞ্জে ওমান প্রবাসীর বাড়ির সীমানা প্রাচীর নির্মাণে বাঁধা নতুন ঘোষণা কোটা আন্দোলনকারীর, কাল সারাদেশ শাটডাউন রাজারহাটে ধর্মীয় নেতৃবৃন্দের দক্ষতা বৃদ্ধি বিষয়ক ৩ দিন ব্যাপী ওরিয়েন্টশন সভা কবি সঞ্জয় দেবনাথ ও মাহফুজ রিপনকে ভারতের কুমারঘাটে সম্মাননা প্রদান . সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ : প্রতিপক্ষের হুমকিতে নিরাপত্তাহীনতায় প্রবাসী পরিবার কুড়িগ্রামে ৯ উপজেলায় কৃষিতেই ১০৫ কোটি টাকা ক্ষতি সিলেটের কোম্পানীগঞ্জে খাসিয়াদের গুলিতে ২ বাংলাদেশি নিহত

আত্রাইয়ে ইরি বোরো ধান পরিচর্যায় ব্যস্ত কৃষক

  • শুক্রবার, ৫ মার্চ, ২০২১

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই ::

উত্তর জনপদের শষ্য ভান্ডার খ্যাত নওগাঁর আত্রাইয়ে বিভিন্ন এলাকায় অতিরিক্ত ইরি-বোরো ধান চাষ হওয়ায় উপজেলায় লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি জমিতে ধান উৎপাদনের সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে। চলতি মৌসুমে বোরো ধানের বীজতলা ও রোপনের আগ্রহ দেখে এমনটাই ধারণা করছে উপজেলা কৃষি বিভাগ। জমি চাষ, চারা উত্তোলন, চারা রোপন ও পরিচর্যায় ব্যস্ত সময় পার করছেন উপজেলার কৃষকরা।

তবে শ্রমিকদের মজুরি বেশি হওয়ায় ধান রোপনের সাথে অধিক খরচ যোগ করতে হচ্ছে। গত বছর উপজেলায় বোরো ধান চষের লক্ষ্যমাত্রা ধার্য্য ছিল ১৭ হাজার ৯শত ৫০ হেক্টর জমি। চলতি বছরে বোরো ধান চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধার্য্য ১৮ হাজার ৮শত ৮৫ হেক্টর জমিতে। এ বছর বোরো ধান একটু আগেই রোপন শুরু হয়েছিল, তা এখন পর্যন্ত রোপন চলছে। এ পর্যন্ত ৯০ ভাগ জমিতে বোরো ধান রোপন হয়েছে। আশা করা যাচ্ছে, আগামী সপ্তাহের মধ্যে সিংহভাগ জমিতে বোরো ধান রোপন সম্পন্ন হবে।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, ৮টি ইউনিয়নের প্রতিটি ব্লকে কম-বেশি বোরো ধান চাষ হয়েছে। উপজেলার কৃষকদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে কম জমিতে উন্নত জাতের বোরো ধান চাষ করে বেশি ফলন পেতে ব্যাপক সহায়তা করছে কৃষি বিভাগ। উন্নত জাতের বীজ ও সার প্রদান করে কৃষি বিভাগ উপজেলার কৃষকদেরকে সার্বক্ষণিক পরামর্শ দিয়ে আসছেন। যেন রোপন করা চারা সঠিক যতœ সহকারে বড় হতে পারে।

উপজেলার সাহাগোলা ইউনিয়নের মির্জাপুর গ্রামের ইকরাইল হোসেন, মেহেদী হাসান এবং গোলাপসহ কয়েকজন কৃষক বলেন, গত বছর শুরুতে অতি বৃষ্টি হওয়ায় অনেক জমিতে চারা রোপন করতে দেরি হয়েছিল। কিন্তু চলতি মৌসুমে তারাতারি বিলের পানি নেমে যাওয়ায় সময়মতো জমিতে বোরো ধান রোপন সম্পন্ন হয়েছে।

রসুলপুর গ্রামের ফাদিল হোসেন বলেন, গত বছরের চেয়ে এ বছর আমি বেশি জমিতে বোরো ধান চাষ করেছি। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আমাকে ধান চাষে সার্বক্ষণিক পরামর্শ দিয়ে আসছেন। সঠিক পরিচর্যা, আবহাওয়া ভালো থাকায় ও কীটপতঙ্গের আক্রমণ না হওয়ায় এ বছর বোরো ধানের বাম্পার ফলন হবে বলে আশা করছি।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ কে.এম কাউছার হোসেন বলেন, অল্প সময়ের মধ্যে বাকি জমিতে বোরো ধান রোপন সম্পন্ন হবে। রোগ-বালাইয়ে কি পরিচর্যা করতে হবে তা কৃষি অফিস সব সময় পরামর্শ দিয়ে আসছে। #

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২২ - ২০২৪
Theme Customized By BreakingNews