প্রত্যয়নপত্র সরবরাহ করতে হিমশিম খাচ্ছেন প্রতিষ্ঠান প্রধানরা! প্রত্যয়নপত্র সরবরাহ করতে হিমশিম খাচ্ছেন প্রতিষ্ঠান প্রধানরা! – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২, ০৭:৩৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বড়লেখা ও জুড়ীতে মজুরী বৃদ্ধির দাবীতে চা শ্রমিকদের কর্মবিরতি বড়লেখায় ছুটি কাটিয়ে দুবাই যাওয়া হল না দুবাই প্রবাসী হাদীর বেতন ভাতা বৃদ্ধিতে ৩৪ চা বাগানে শ্রমিকদের কর্মবিরতি চলছে বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম কমছে, দেশেও কমবে : অর্থমন্ত্রী কুলাউড়ায় বখাটেপনার প্রতিবাদ করায় শতাধিক পানগাছ কাটার অভিযোগ জুড়ীতে অধ্যক্ষ ফখর উদ্দিন ও অধ্যাপক সেলিনা বেগমকে সংবর্ধনা কুলাউড়া যুবলীগের আজীবন সভাপতি খসরুজ্জামানের ২১তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত বড়লেখার সুজানগরে বন্যার্তদের জন্য ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প মাধবকুণ্ডে অসামাজিক কর্মকান্ডে আটক ৮ কিশোক-কিশোরী কুলাউড়া উপজেলা প্রকৌশলীর উপর হামলা : আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভায় নিন্দা

প্রত্যয়নপত্র সরবরাহ করতে হিমশিম খাচ্ছেন প্রতিষ্ঠান প্রধানরা!

  • রবিবার, ৭ মার্চ, ২০২১

এইবেলা, কমলগঞ্জ ::

আবেদন করলেই মিলবে ৭ থেকে ১০ হাজার টাকা পাওয়া যাবে এমন গুজবে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে হঠাৎ করেই স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষা করে কয়েকেদিন থেকে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের ঢল দেখা যাচ্ছে। উপজেলার বিভিন্ন কম্পিউটার ও ফটোকপি দোকানগুলোতে শিক্ষার্থীদের উপচেপড়া ভিড় পরিলক্ষিত হয়।

জানা যায়, শিক্ষা মন্ত্রণালয় গত ১৮ জানুয়ারি সিনিয়র সহকারী সচিব স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে সারাদেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, শিক্ষক-কর্মচারী, প্রতিবন্ধী, অসহায়, রোগগ্রস্ত, গরিব মেধাবী অনগ্রসর সম্প্রদায়ের শিক্ষার্থীদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে অনুদানের টাকা বিতরণের জন্য অনলাইনে আবেদনপত্র আহ্বান করে। এই আবেদনের তারিখ ২৮ ফেব্রুয়ারি শেষ হলে শিক্ষা মন্ত্রণালয় তা ৭ মার্চ পর্যন্ত বৃদ্ধি করে। মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে আবেদন করলেই ৭ থেকে ১০ হাজার টাকা পাওয়া যাবে এই খবর উপজেলার সর্বত্র ছড়িয়ে পরে। এতে অনেক শিক্ষার্থী ও অভিভাবক অনুদানের আবেদনের জন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে প্রত্যয়নপত্র নিতে ভিড় জমাতে দেখা গেছে।

কমলগঞ্জ সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী কারিমা রিতু বলেন, আবেদন করলেই ১০ হাজার টাকা পাওয়া যাবে এমন খবরে কলেজে গিয়ে দেখি অনেক শিক্ষার্থী উপস্থিত হয়ে প্রত্যয়নপত্র সংগ্রহ করছে। আমিও প্রত্যয়ন নিয়ে আবেদন করেছি। তবে টাকা পাবো কিনা জানি না। তবে সবাই করছে, তাই আমি করেছি।

এ বিষয়ে কমলগঞ্জ সরকারি গণ মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ কামরুজ্জামান মিয়া বলেন, আবেদনে প্রত্যয়ন প্রয়োজন হওয়ায় আমরা তা সরবরাহ করছি। সবাই ১০ হাজার টাকা পাবে এটি গুজব। মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তি মোতাবেক সকল শিক্ষার্থীই আবেদন করতে পারে, কিন্তু টাকা সবাই পাবে না। এটি চলমান প্রক্রিয়া। যাচাই বাছাই করে ক্যাটাগরি অনুসারে অনুদান পাবে।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার সামছুন্নাহার পারভীন বলেন, সবাই ১০ হাজার টাকা পাবে এটি গুজব। মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তি মোতাবেক সকল শিক্ষার্থীই আবেদন করতে পারে, কিন্তু টাকা সবাই পাবে না। এটি চলমান প্রক্রিয়া। যাচাই বাছাই করে ক্যাটাগরি অনুসারে অনুদান পাবে। গুজব রোধে আমরা সচেষ্ট আছি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আশেকুল হক বলেন, গুজবের ব্যাপারে আমরা সর্বদা সতর্ক অবস্থানে রয়েছি। যেকোনো ধরণের গুজব প্রতিহত করা হবে। #

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৫ - ২০২০
Theme Customized By BreakingNews