৩৩৩ নাম্বারে কল করে জুড়ীর দিনমজুর এমরান পেলেন খাদ্য সহায়তা ৩৩৩ নাম্বারে কল করে জুড়ীর দিনমজুর এমরান পেলেন খাদ্য সহায়তা – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১২:১৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বড়লেখার ১০ ইউনিয়নে নৌকার মনোনয়ন চান ৫৩ জন কুমিল্লার ঘটনা সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রেরই অংশ : পরিবেশমন্ত্রী ড. আবেদ চৌধুরীর উদ্ভাবিত আমন ধান কাটা হলো নির্ধারিত সময়ের দেড় মাস আগে  বড়লেখায় সোয়া ৩ কোটি টাকার নদী খননে ব্যাপক লুটপাটের অভিযোগ কুলাউড়ায় ৩টি পূজামন্ডপ ভাঙচুরের ঘটনায় ৫ শতাধিক আসামী : ১০ গ্রামে গ্রেফতার আতঙ্ক কবি ও কথা সাহিত্যিক দিলারা রুমার দু’টি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন বড়লেখায় টিলা কাটায় ঘরে ফাটলে দুর্ঘটনার আশংকা কমলগঞ্জের লক্ষ্মীপুর সার্বজনীন পুজামন্ডপে সুবিধাবঞ্চিদের মধ্যে বস্ত্র বিতরণ  বিএনপি নেতার জামিনে আ’লীগ নেতাকর্মীদের আনন্দ মিছিল কুমিল্লার বিচ্ছিন্ন ঘটনায় দেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি যেন বিনষ্ট না হয়- সুলতান মো.মনসুর এমপি

৩৩৩ নাম্বারে কল করে জুড়ীর দিনমজুর এমরান পেলেন খাদ্য সহায়তা

  • মঙ্গলবার, ৪ মে, ২০২১
  • ১০৭ বার পড়া হয়েছে
এইবেলা, জুড়ী ::
করোনা ভাইরাসের কারণে সরকার ঘোষিত লকডাউনে অসহায় দিনমজুরদের খাদ্য সহায়তা  জাতীয় কল সেন্টার ৩৩৩-এ কল করে খাদ্য সহায়তা পেয়েছেন জুড়ীর  অসহায় এক দিনমজুর।
 সোমবার (০৩ মে) বিকাল ৫ টায় তাকে এনে  খাদ্য সহায়তা পৌছে দেন উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা মো ওমর ফারুক।
সহায়তাপ্রাপ্ত এমরান হোসেন হলেন উপজেলার সীমান্তবর্তী ফুলতলা ইউনিয়নের মধ্যবটুলী গ্রামের  মৃত আব্দুর নূরের  ছেলে। খাদ্য সহায়তা পাওয়ার পর তিনি অনেক খুশী।
উপজেলা প্রকল্প অফিস সূত্রে জানা যায়, সোমবার  (০৩ মে ) ৩৩৩-এ ফোন করে খাদ্য সহায়তা চান এক ব্যক্তি। পরে সাহায্য চাওয়া ব্যক্তির খোজখবর নেওয়া হয়।  বিকাল ৫ টার দিকে  উপজেলা পিআইও তাকে ফুলতলা ইউনিয়নের সামনে  এনে   প্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী পৌছে দেন।
 করোনা ভাইরাসের কারনে লকডাউনে কেউ যাতে খাদ্যের অভাববোধ করতে না পারে সে জন্য ৩৩৩ কল সেন্টারে সহায়তার জন্য ইউএনও ও পিআইও তাদের ব্যক্তিগত ও উপজেলা প্রশাসনের ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন।
সহায়তাপ্রাপ্ত এমরান  বলেন,পেশায় দিনমজুর মানুষ আমি। ছোট ভাই বোনসহ মোট ৫ জনের পরিবারের সদস্যরা আমার উপর নির্ভরশীল।মহামারি করোনাভাইরাসে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে গত কয়েকদিন ধরে  অসহায় অবস্থায় দিন কাটছে। আজ  ৩৩৩ নম্বরে ফোন দিয়ে খাদ্য সহায়তা চাই। পরে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে চাল, ডাল, তেল, পিয়াজ সহ  খাদ্যসামগ্রী দেয়া হয়।
উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো ওমর ফারুক  বলেন, খাদ্য সহায়তার জন্য এক ব্যক্তি ৩৩৩-এ ফোন দিয়েছিলেন। যাচাই -বাছাই শেষে সে সহায়তা পাওয়ার যোগ্য বিধায় তাকে কল করে ইউনিয়নের সামনে এনে সহায়তা দিয়েছি। করোনাকালীন সহায়তার জন্য উপজেলা প্রশাসনের সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে বলেও জানান তিনি।#

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৫ - ২০২০
Theme Customized By BreakingNews