কমলগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় জেলা সমবায় পরিদর্শক গুরুতর আহত কমলগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় জেলা সমবায় পরিদর্শক গুরুতর আহত – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ০৬:০৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শিক্ষক হত্যা ও নির্যাতনের প্রতিবাদে মৌলভীবাজারে প্রতিবাদী সাংস্কৃতিক সমাবেশ বড়লেখায় সাংবাদিকদের সাথে প্রশাসনের মতবিনিময়, বন্যার্তদের ত্রাণের কোন সংকট নেই কুলাউড়ায় বন্যার্তদের মধ্যে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ শেখ হাসিনার উন্নয়নের ছোঁয়া প্রতিটি ঘরে ঘরে স্পর্শ করেছে..এমপি হেলাল দুর্যোগেও পুলিশ মানুষের পাশে থাকবে -ডিআইজি মফিজ উদ্দিন পিপিএম নাগেশ্বরীর কালিগঞ্জ এইচ এ উচ্চ বিদ্যালয়ে ম্যানেজিং কমিটি গঠনে অনিয়মের অভিযোগ আত্রাইয়ে ঐতিহ্যবাহী জগন্নাথ দেবের রথযাত্রা অনুষ্ঠিত কমলগঞ্জে দরিদ্র জারিয়া বেগমের ভাগ্যে আজও কোন ভাতা জুটেনি কমলগঞ্জে শ্রী শ্রী জগন্নাথদেবের রথযাত্রা উৎসব শুরু বড়লেখায় সীমাহীন দুর্ভোগে বানভাসিরা-ত্রাণ বিতরণ অব্যাহত

কমলগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় জেলা সমবায় পরিদর্শক গুরুতর আহত

  • বৃহস্পতিবার, ৩ জুন, ২০২১

কমলগঞ্জ  প্রতিনিধি ::

জমি সংক্রান্ত পূর্ব বিরোধ নিয়ে প্রতিপক্ষের অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর আহত হয়েছেন মৌলভীবাজার জেলা সমবায় কার্যালয়ের পরিদর্শক। গত বুধবার (০২ জুন) সকাল ৯টায় কমলগঞ্জের পতনঊষার ইউনিয়নের শ্রীসূর্য্য এলাকায়। ৯৯৯ নম্বরে ফোন পেয়ে শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়ির সদস্যরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

স্থানীয়রা জানান, জমির সীমানা কাটা নিয়ে উপজেলার পতনঊষার ইউনিয়নের মনসুরপুর গ্রামের মৃত জায়ফর আলীর ছেলে মিনার আলীর সাথে একই এলাকার জিতেন্দ্র বৈদ্য (নিখিল মাস্টার) এর মাঝে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। বুধবার জমির সীমানা কাটা নিয়ে উভয় পক্ষের বাক-বিতন্ডার এক পর্যায়ে জিতেন্দ্র বৈদ্য কোদালের গোড়ালি দিয়ে মাথায় আঘাত করলে রক্তাক্ত জখমপ্রাপ্ত হন মিনার আলী (৪৫)। এসময় পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠলে ৯৯৯ নম্বরে ফোন পেয়ে শমশেরনগর ফাঁড়ির এসআই আব্দুর রহমান এবং এএসআই এনামুল হক ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। পরে স্থানীয়রা মিনার আলীকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে সিলেট এমএজি ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি করেন। বর্তমানে তিনি হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে জিতেন্দ্র বৈদ্য (নিখিল মাস্টার) জানান, মিনার আলী আমাদের জমিতে জোরপূর্ব্বক গর্ত করে রাখে। প্রতিবাদ করলে মিনার ও তার ভাগিনা গংরা আমাদের বসতবাড়িতে ঢুকে উপর হামলা চালিয়ে লুটপাট করে। এ সময় সারীসহ আমাদের চারজন আহত হন। বেরিয়ে যাওয়ার সময় আমাদের বাড়ির কেচি গেইটে ধাক্কা লেগে মাথায় জখম হয়। এ ঘটনায় আমরা কমলগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছি।

এ বিষয়ে শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ওসি (নি:) মোশারফ হোসেন বলেন, ৯৯৯ নম্বরে ফোন পেয়ে আমাদের পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পাওয়া গেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। #

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৫ - ২০২০
Theme Customized By BreakingNews