কুড়িগ্রামে প্রতারণার শিকার শল্লীধরা গ্রামের ৫ ব্যক্তি   কুড়িগ্রামে প্রতারণার শিকার শল্লীধরা গ্রামের ৫ ব্যক্তি   – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ০৫:২৬ অপরাহ্ন

কুড়িগ্রামে প্রতারণার শিকার শল্লীধরা গ্রামের ৫ ব্যক্তি  

  • শুক্রবার, ১৬ জুলাই, ২০২১
  • ৮৭ বার পড়া হয়েছে
কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি ::
কুড়িগ্রাম জেলার ফুলবাড়ী উপজেলার বড়ভিটা ইউনিয়নের নওদাবস (শল্লীধরা) গ্রামের কয়েক জন সহজ সরল কৃষক প্রতারণার শিকার হয়ে জেল খাটছেন।
প্রতারণার শিকার হওয়া কৃষকরা হচ্ছেন- রনজিত কুমার (৩৭) পিতা-মৃত- রজনী কান্ত রায়, প্রভাস চন্দ্র রায় (৪৩) পিতা-মৃত- প্রফুল্ল চন্দ্র রায়, সুবল চন্দ্র মহন্ত (৩২) পিতা- সুবাস চন্দ্র মহন্ত, গৃহিনী ফুলমনি রানী (৩৭) স্বামী- মৃত সিবেন্দ্র চন্দ্র রায় ও প্রভাসের জামাই নিখিল চন্দ্র বর্মন (৩২) পিতা- হরিমোহন ওরফে বাচ্চা বর্মন, মাতা- শ্রীমতি রেনুবালা বর্মন সাং আংগায়রিয়া, পোষ্ট -ভূরুঙ্গামারী।
গত  জুন মাসে প্রভাসের জামাই  নিখিল চন্দ্র বর্মন ও তার এক বন্ধু (স্বপন) মিলে বড়ভিটার (শল্লীধরা ) শ্বশুরবাড়িতে এসে তার শ্বশুর ও বিধবাসহ ৫জনের নামে  নাগেশ্বরী সোনালী ব‍্যাংকে এ‍্যাকাউন্ড খোলে এবং তাদেরকে জানায় যে এই এ‍্যাকাউন্ডে অনুদানের টাকা চলে আসবে।
যাহার শ্রীপুর থানার মামলা (নং: ০২ তাং :০১/০৭ /২০২১ ধারা:৪০৬/৪২০/৪০৯/৪৬৮/৪৭১/৫১১/৩৪ পেনাল কোড ) রুজু করা হয়।
নিখিল চন্দ্র বর্মন তার বন্ধু (স্বপন) ও মামলার ২নং আসামী তানভীর ( সাং: পিতা- অজ্ঞাত, মাস্টার রোলে কর্মরত হিসাব রক্ষণ অফিস, শ্রীপুর, গাজীপুর) এবং ৮ নং মামলার আসামী আরিফুল ইসলাম, অডিটর (পিতা-অজ্ঞাত, সাং: উপজেলা হিসাব রক্ষণ অফিস শ্রীপুর, গাজীপুর) এর   প্ররোচনায় পড়ে ওই ২ নং ও ৮ নং আসামীর যোগসাজশে এ‍্যাকাউন্ট করান।
পরবর্তীতে ৪ কৃষক ও ১জন গৃহিনীসহ ৫ জন ব‍্যক্তিকে ফুসলিয়ে অনুদানের টাকা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে  গাজীপুরের শ্রীপুরে নিয়ে গিয়ে ২ নং ও ৮ নং আসামী তানভীর ও আরিফুল ইসলাম ৫ জন ব‍্যক্তির নামে ৫টি এ‍্যাডভাইজ বিল তৈরি করে ২ কোটি ৪৬ লক্ষ ৯ হাজার ৯ শত ৬০ টাকার হার্ডকপি হিসাব রক্ষণ অফিস, শ্রীপুর,গাজীপুর হইতে সোনালী ব‍্যাংক লিমিটেড, শ্রীপুর থানা হেড কোয়ার্টার শাখা, গাজীপুরে নিয়ে আসে এবং উক্ত বিলের টাকা পরিশোধের জন‍্য ব‍্যাংক শাখায় দাখিল করেন।
নিয়ম অনুযায়ী এ সময় ব‍্যাংক থেকে হিসাব রক্ষণ অফিসে ফোন করলে মামলার ১ নং আসামী হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা বজলুর রশিদ  এসব এ‍্যাডভাইজের নিশ্চিয়তা প্রদান করেন।
পরে সোনালী ব‍্যাংক নাগেশ্বরী কুড়িগ্রাম শাখায় অভিযুক্ত ৫ জন ব‍্যক্তির ওই টাকা এ‍্যাকাউন্টে চলে আসে।
অভিযুক্ত ব‍্যক্তিদের ব‍্যাংক এ‍্যাকাউন্ডে টাকা চলে আসার পর গাজীপুর, শ্রীপুর সোনালী ব‍্যাংক কর্তৃপক্ষের সন্দেহ হলে নাগেশ্বরী সোনালী ব‍্যাংক কর্তৃপক্ষের সাথে ফোনে যোগাযোগ করে এ‍্যাকাউন্ড নাম্বারগুলো যাচাই-বাচাই করতে বলেন।
নাগেশ্বরী সোনালী ব‍্যাংক কর্তৃপক্ষ যাচাই করে জানান, এ‍্যাকাউন্টধারীরা কেউই সরকারি চাকুরীজীবি নয়। এরা গ্রামের সাধারণ কৃষক ও গৃহিনী।
 এর পেক্ষিতে শ্রীপুর উপজেলার জুনিয়র অডিটর খলিল উদ্দিন এ‍্যাকাউন্টে ঝামেলা রয়েছে বলে জানান ।
পরে সোনালী ব‍্যাংক কর্তৃপক্ষ নাগেশ্বরী শাখায় টাকা পেমেন্ট বন্ধ করে দেন।
এরপর মামলার ৯ নং আসামী সোনালী ব‍্যাংক লিমিটেড উত্তর খান শাখার গ্রাহক শাহেনা আক্তার এর এ‍্যাকাউন্ড নং :০১৩২১০১১০০৮৭৪৮ এ অসৎ উদ্দেশ্যে সাধনের জন‍্য চেকগুলি ব‍্যাংক শাখায় দাখিল করেন।
ইতিমধ্যেই এই ঘটনায় গাজীপুরের শ্রীপুর থানায় মামলা দায়ের করা হয় এবং ঘটনায় জড়িত থাকায় ফুলবাড়ী উপজেলা থেকে ৩জন কৃষক ও ১জন গৃহিনীকে গ্রেফতার করে গাজীপুরের শ্রীপুর থানায় নিয়ে যায় ও ১জন পলাতক রয়েছে।
সরেজমিনে গিয়ে এলাবাসীর সাথে কথা বলে জানা যায়, অভিযুক্ত ঐ ৫ জন সহজ সরল লোক। তারা এরম কাজ করতে পারে না। ওরা চকান্তের শিকার হয়েছেন। তাদেরকে ফুসলিয়ে এ চক্রে ফাঁসানো হয়েছে । তারা মামলা থেকে এদের মুক্তির দাবি জানান।
নওদাবস শল্লীধরা ৫ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মহেন্দ্রনাথ মন্ডল জানান, এসব অসহায় দিনমজুর একেবারেই অস্বচ্ছল। কোন রকমেই দিনমজুরের কাজ- কাম করেই চলতো তাদের সংসার। সামান্য বাড়িভিটা ছাড়া তাদের কোন স্বসম্বল নেই। তাদের ফাঁসানো হয়েছে। আমরা তাদের মুক্তির দাবি জানাই ও সেই সাথে দোষী ব‍্যক্তিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান এ ইউপি সদস্য।
বড়ভিটা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান খয়বর আলী মিয়া বলেন, ঐ অভিযুক্ত ৫জন ব‍্যক্তি নিতান্তই হতদরিদ্র ও নিরক্ষর। এরা এ কাজে জড়িত বলে আমি মনে করি না।আসল প্রতারক চক্রটিকে ধরে আইনের আওতায় আনা হোক ও এদের মামলা থেকে মুক্তি দেয়া হোক।
ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি ) তদন্ত সারওয়ার পারভেজ জানান,শ্রীপুর থানা আমাদের কাছে সহযোগিতা চেয়েছে এবং আসামী আমাদের ফুলবাড়ী উপজেলায় হওয়ায় ৪ আসামীকে গ্রেফতারে সহযোগিতা করা হয়েছে। গ্রেফতার ৪ আসামীসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে ১ জুলাই শ্রীপুর থানায় মামলা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা এখন গাজীপুর কারাগারে আছেন।#

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৫ - ২০২০
Theme Customized By BreakingNews