কমলগঞ্জে শ্রীগোবিন্দপুর চা বাগান বন্ধ : মজুরী ও বোনাস প্রদানের দাবি কমলগঞ্জে শ্রীগোবিন্দপুর চা বাগান বন্ধ : মজুরী ও বোনাস প্রদানের দাবি – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ০৩:০১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বড়লেখায় ঢলের পানিতে ডুবে স্কুলছাত্রীর মৃত্যু স্পেনে যুবলীগ কাতালোনিয়া শাখার উদ্যোগে ঈদ পুনর্মিলনী ও আলোচনা মৌলভীবাজারে বন্যার পানিতে ডুবে ২ জনের মৃত্যু কুলাউড়ায় বন্যা আশ্রয় কেন্দ্র পরিদর্শণ করলেন মৌলভীবাজারের জেলা প্রশাসক বড়লেখায় জেলা প্রশাসকের বন্যাদুর্গত এলাকা পরিদর্শন ও খাদ্যসামগ্রী বিতরণ সিলেটে ৮ জুলাই পর্যন্ত এইচএসসি পরীক্ষা স্থগিত কুলাউড়ায় লক্ষাধিক মানুষ পানি বন্দি, বাড়ছে পানি, বাড়ছে দুর্ভোগ! দুর্যোগ মোকাবেলায় বিশ্বে বাংলাদেশ রোলমডেল : দুর্যোগ ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী হাকালুকি হাওরপারে বন্যার অবণতি-বড়লেখায় ২৫২ গ্রাম প্লাবিত, আশ্রয় কেন্দ্রে ২২০ পরিবার, লাখো মানুষ পানিবন্দি মৌলভীবাজারে বন্যা কবলিত ৪৩২ গ্রাম, পানিবন্দি প্রায় ২ লাখ মানুষ

কমলগঞ্জে শ্রীগোবিন্দপুর চা বাগান বন্ধ : মজুরী ও বোনাস প্রদানের দাবি

  • মঙ্গলবার, ৫ অক্টোবর, ২০২১

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি ::

গত ১০ দিন ধরে বন্ধ থাকা মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার মাধবপুর ইউনিয়নের ব্যক্তি মালিকানাধীন শ্রীগোবিন্দপুর চা বাগানের শ্রমিকদের আসন্ন শারদীয় দুর্গাপূজার পূর্বে সমুহ বকেয়া মজুরী ও বোনাস প্রদানের দাবি জানানো হয়েছে। মঙ্গলবার বিকাল ৫টায় বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের মনু ধলই ভ্যালী কার্যকরী কমিটির উদ্যোগে কমলগঞ্জ উপজেলা সদরস্থ সংগঠনের কার্যালয়ে ২৩টি চা বাগানের শ্রমিক প্রতিনিধিদের নিয়ে অনুষ্ঠিত সভা থেকে এ দাবী জানানো হয়।

মনু ধলই ভ্যালী সভাপতি ধনা বাউরীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক নির্মল দাশ পাইনকার সঞ্চালনায় সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের নির্বাহী উপদেষ্টা রামভজন কৈরী, নারীনেত্রী গায়ত্রী রাজভর, শ্রীগোবিন্দপুর চা-বাগান পঞ্চায়েত কমিটির সভাপতি মিলন নায়েক, সম্পাদক বিমল পাইনকা, শমশেরনগর চা বাগান পঞ্চায়েত সভাপতি শ্রীকান্ত কানু, সম্পাদক নৃপেন বাউরী, আলীনগর চা বাগান সভাপতি গনেশ পাত্র, মাধবপুর চা বাগান সভাপতি সাধুরাম রবিদাস, মদনমোহনপুর চা বাগান পঞ্চায়েত সভাপতি উমা শংকর গোয়ালা, পাত্রখোলা চা বাগান পঞ্চায়েত সভাপতি দেবাশীষ চক্রবর্তী শিপন প্রমুখ। সভা শেষে কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে একটি স্মারকলিপি প্রদান করেন।

বক্তারা বলেন, মহসীন টি কোম্পানির শ্রীগোবিন্দপুর চা-বাগানের শ্রমিক শ্রীজনম ভর ব্যবস্থাপক প্রশান্ত সরকারের কাছে মৌখিকভাবে অনুমতি নিয়ে ধারদেনা করে দুই লাখ টাকা ব্যয়ে ছোট পাকা ঘরটি নির্মাণ করেছেন। কিন্তু তাঁকে না জানিয়ে বিনা নোটিশে গত ২৫ সেপ্টেম্বর তাঁর ঘরটি ভেঙে দেওয়া হলো। বেআইনী ষড়যন্ত্র ও উস্কানীমুলকভাবে শ্রমিকের বসতঘর ভেঙ্গে দেয়া মোটেই কাম্য নয়। এতে শ্রমিকদের ক্ষুদ্ধ করে তুলে হয়েছে। এ ঘটনার প্রতিবাদে প্রতিদিন মানববন্ধন ও নানা প্রতিবাদ কর্মসুচী পালিত হয়। কোনপ্রকার পূর্বঘোষনা ছাড়াই সম্পূর্ণ বেআইনীভাবে থেকে শ্রীগোবিন্দপুর চা বাগান বন্ধ ঘোষনা করে দেন বাগান কর্তৃপক্ষ। অবিলম্বে বকেয়া মজুরী ও বোনাস প্রদান করা না হলে আগামীতে কঠোর আন্দোলনের ডাক দেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দেন তাঁরা।

বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের নির্বাহী উপদেষ্টা ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক রামভজন কৈরী বলেন, বেআইনীভাবে শ্রমিকের বসতঘর ভেঙ্গে বাগান কর্তৃপক্ষ শ্রীগোবিন্দপুর চা বাগান লকআউট ঘোষনা করেন। দুর্গাপূজার পূর্বে বকেয়া মজুরী ও বোনাস পরিশোধমুলকভাবে লকআউট প্রত্যাহার করতে হবে।#

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২২ - ২০২৪
Theme Customized By BreakingNews