কুলাউড়ায় ভোট সেন্টারে পাল্টাপাল্টি হামলা: যুবদলের ৩ নেতা আটক কুলাউড়ায় ভোট সেন্টারে পাল্টাপাল্টি হামলা: যুবদলের ৩ নেতা আটক – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ০৫:৪৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কুলাউড়ায় লক্ষাধিক মানুষ পানি বন্দি, বাড়ছে পানি, বাড়ছে দুর্ভোগ! দুর্যোগ মোকাবেলায় বিশ্বে বাংলাদেশ রোলমডেল : দুর্যোগ ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী হাকালুকি হাওরপারে বন্যার অবণতি-বড়লেখায় ২৫২ গ্রাম প্লাবিত, আশ্রয় কেন্দ্রে ২২০ পরিবার, লাখো মানুষ পানিবন্দি মৌলভীবাজারে বন্যা কবলিত ৪৩২ গ্রাম, পানিবন্দি প্রায় ২ লাখ মানুষ সবার সমন্বয়ে বন্যা মোকাবেলা করতে হবে: প্রতিমন্ত্রী শফিক চৌধুরী বড়লেখায় ৫ হাজার মানুষ পানিবন্দী, আশ্রয় কেন্দ্রে আসা শুরু দুর্গতদের ফের সিলেটের পর্যটন কেন্দ্রগুলো বন্ধ ঘোষণা যৌতুকের দাবীতে বড়লেখায় ফ্রান্স প্রবাসীর স্ত্রীকে বাড়ি থেকে বের করে দিল শ্বশুর-ভাসুর আবারও সিলেট নগর পানির নিচে, ঈদ পালনে ভোগান্তি কুলাউড়ার জয়চন্ডীতে পঞ্চায়েত প্রধানের উপর হামলা: ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী

কুলাউড়ায় ভোট সেন্টারে পাল্টাপাল্টি হামলা: যুবদলের ৩ নেতা আটক

  • রবিবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২১

এইবেলা, কুলাউড়া ::

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলায় ২৮শে নভেম্বর-২০২১ইং রোববার ১৩টি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। আর এই ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে কয়েকটি কেন্দ্রে আওয়ামীলীগ সমর্থিত নৌকা মার্কার কর্মী ও বিএনপি সমর্থিত কর্মীদের মধ্যে তুমুল সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। আওয়ামীলীগ প্রার্থীর সমর্থকদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন সেন্টারে জাল ভোট ও নৌকা প্রতীকে সিল মারার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এসময় কয়েকটি কেন্দ্রে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া ও ভোটারদের ওপর হামলার ঘটনাও ঘটেছে। এসব ঘটনায় মোহাম্মদ জুনেদ উদ্দিন চৌধুরী, বাদশাহ আহমদ ও বাবুল মিয়া নামক ৩ জন যুবদল নেতাকে আটক করেছে পুলিশ।

জানা যায়, উপজেলার ৪ং জয়চন্ডী ইউনিয়নের কুলাউড়া গ্রাম মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভোট কেন্দ্র দখল করে আওয়ামী লীগ সমর্থিত নৌকা মার্কা প্রার্থী আব্দুর রব মাহবুব ও বিএনপি সমর্থিত আনারস মার্কা প্রার্থী কমর উদ্দিন আহমদ কমরু গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। বেলা ১২ টার দিকে আওয়ামী লীগ সমর্থিত নৌকা মার্কা প্রার্থী আব্দুর রব মাহবুব এর নেতৃত্বে তার কর্মী সমর্থকরা কেন্দ্র দখল করে নৌকা প্রতীকে সিল মারতে থাকে। এসময় বিএনপি সমর্থিত আনারস মার্কা প্রার্থী কমর উদ্দিন আহমদ কমরুর সমর্থকরা বাধা দিলে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। খবর পেয়ে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এসময় ঘটনাস্থ থেকে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির যুবদল নেতা মোহাম্মদ জুনেদ উদ্দিন চৌধুরী, বাদশাহ আহমদ ও বাবুল মিয়াকে গ্রেফতার করে নিয়ে যায়।

এদিকে কর্মধা ইউনিয়নের ভেলকুমাপুঞ্জির লোকজন স্থানীয় মুরইছড়া প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দিতে যাচ্ছিলেন। এসময় মুখোশধারী একদল লোক লাঠিসোঁটা নিয়ে তাঁদের ওপর হামলা চালায়। এতে প্যাট্রিক খংলা ও লুই খংলা নামের খাসিয়া সম্প্রদায়ের দুই যুবক আহত হন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। আহত যুবকদের পরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়।

বরমচাল ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী খোরশেদ আহমদ খান অভিযোগ করেন, দুপুর ১২টার দিকে বরমচাল উচ্চবিদ্যালয় ও কলেজ কেন্দ্রে বরমচল ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থীর লোকজন ঢুকে জোর করে ব্যালট পেপারে নৌকা প্রতীকে সিল মারতে থাকেন। এ সময় ‘বিদ্রোহী প্রার্থীর লোকজন তাঁদের ধাওয়া করেন। একপর্যায়ে উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তেজনার সৃষ্টি হলে ওই কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ বন্ধ হয়ে যায়। বেলা প্রায় একটা পর্যন্ত ওই কেন্দ্রে ভোট বন্ধ থাকে। পরে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ঘটনাস্থলে গেলে পুনরায় ভোট গ্রহণ শুরু হয়।

ভূকশিমইল ইউনিয়নের কানেহাত প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে আওয়ামী লীগের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থীর লোকজন জোর করে নৌকা প্রতীকে সিল মারতে যান। এ সুযোগে এক সদস্য প্রার্থী ব্যালটে সিল মারা শুরু করে দিলে কেন্দ্রের বাইরে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের লোকজনের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। পরে পুলিশ লোকজনকে সরিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

কাদিপুর ইউনিয়নের উচাইল-হোসেনপুর প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে একটি বুথের সামনে লাইনে বেশ কিছু ভোটার দাঁড়িয়ে থাকলেও তাঁরা ভোট দিতে পারছিলেন না। ভেতর থেকে তাঁদের জানানো হয়, ব্যালট পেপার নেই। পারভেজ নামের ওই বুথে এক সদস্য প্রার্থীর এজেন্ট বলেন, দেড় ঘণ্টা ধরে এ অবস্থা চলছে। ওই কেন্দ্রের প্রিসাইডিং কর্মকর্তা আবদুল মুহিত বলেন, তিনি ব্যালট পেপারের ব্যবস্থা করে দিচ্ছেন। ওই ইউপির স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হাবিবুর রহমান অভিযোগ করেন, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীর লোকজন কিছুক্ষণ আগে ওই কেন্দ্রে এসে জাল ভোট দিয়ে গেছেন।

এব্যাপারে কুলাউড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্টেট এটিএম ফরহাদ চৌধুরী জানান, শুনেছি কয়েকটি কেন্দ্রে একটু ঝামেলা হয়েছে। তবে, তাৎক্ষনিক আইনশৃঙ্খলা বাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে এনেছে।

কুলাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুস ছালেক জানান, ভোটকেন্দ্রে উশৃঙ্খল পরিস্থিতি তৈরী করার অপরাধে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির যুবদল নেতা মোহাম্মদ জুনেদ উদ্দিন চৌধুরী, বাদশাহ আহমদ ও বাবুল মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদেরকে কোর্টের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২২ - ২০২৪
Theme Customized By BreakingNews