সারাদেশে শ্রেষ্ঠ বড়লেখার সমাজসেবা কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম সারাদেশে শ্রেষ্ঠ বড়লেখার সমাজসেবা কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ০৩:১১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কুলাউড়ায় আশ্রয়ণের ঘর বরাদ্দের নামে অর্থ আত্মসাতে অভিযুক্ত ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু ব্যারিস্টার সুমনের সহযোগিতায় বাঁচার আকুতি প্রবাসে বন্দী যুবকের! সিলেটের বন্যাদুর্গত মানুষের পাশে মেডগ্লোবাল শিশু হত্যা মামলার সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী গ্রেফতার কোটা সংস্কারে আদালতের রায় না আসা পর্যন্ত কিছু করার নেই – প্রধানমন্ত্রী কমলগঞ্জে পূজা উদযাপন পরিষদের বৃক্ষরোপন কুড়িগ্রামে শিশুদের প্রতি সহিংসতা বন্ধে স্থানীয় স্টেক হোল্ডারদের সাথে সংলাপ সুজানগর ইউপি : বন্যার্তদের ২০ লাখ টাকার খাদ্যসামগ্রী দিচ্ছেন প্রবাসীরা ইউপি চেয়ারম্যান উপ-নির্বাচন-বড়লেখায় প্রতীক পেয়েই প্রচারণায় প্রার্থীরা কুলাউড়ায় বন্যা কবলিত এলাকায় শিশু খাবার পানি বিশুদ্ধকরণ টেবলেট ও খাবার স্যালাইন বিতরণ

সারাদেশে শ্রেষ্ঠ বড়লেখার সমাজসেবা কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম

  • শনিবার, ১ জানুয়ারী, ২০২২

বড়লেখা প্রতিনিধি ::

মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম সারাদেশে শ্রেষ্ঠ সামজসেবা কর্মকর্তা (২০১৯-২০২০) মনোনীত হয়েছেন। সম্প্রতি সমাজসেবা অধিপ্তরের এক বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে।

উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ২০১৯-২০২০ অর্থবছরে সরকারের সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীর আওতায় ভাতা প্রাপ্তিতে মানুষের ভোগান্তি দূর করতে ডিজিটাল পদ্ধতিতে বড়লেখায় প্রথম নিবন্ধন কার্যক্রম সম্পন্ন হয়। স্বল্প সময়ে নির্ভুলভাবে নিবন্ধন কার্যক্রম সম্পন্ন হওয়ায় এই পদ্ধতিতে ২০২১ সালের অক্টোবর থেকে বড়লেখায় ঘরে বসে বিকাশের মাধ্যমে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে ১৪ হাজার ৫২৮ জন উপকারভোগী ভাতা পাচ্ছেন। এরমধ্যে বয়স্ক, বিধবা, প্রতিবন্ধী, শিক্ষা উপবৃত্তি, অনগ্রসর জনগোষ্ঠেীর বিশেষ ও শিক্ষা উপবৃত্তি উল্লেখযোগ্য। এতে উপকারভোগীদের ভোগান্তি কমেছে। সফলভাবে এ কার্যক্রম সম্পন্ন করায় বড়লেখা উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলামকে পুরস্কারের জন্য শ্রেষ্ঠ মনোনীত করা হয়।

বড়লেখা উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘কাজের স্বীকৃতি পেয়ে ভালো লাগছে। এটা কর্মক্ষেত্রে ভালো কাজ করতে আরও প্রেরণা জোগাবে। সবচেয়ে ভালো লাগছে সফলভাবে কাজটি করতে পারায়। মানুষ ভোগান্তি ছাড়াই ঘরে বসে ভাতা পাচ্ছেন, এটা তৃপ্তির বিষয়। এই সফলতার পেছনে যাদের সার্বিক সহযোগিতা তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা। বিশেষ করে স্থানীয় সাংসদ ও পরিবেশ মন্ত্রী, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, সমাজসেবা অধিদপ্তরের বিভাগীয় পরিচালক ও জেলার উপ-পরিচালক, তৎকালীন ইউএনও, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ভাইস চেয়ারম্যান, সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিকবৃন্দ এবং আমার কার্যালয়ের স্টাফদের সহযোগিতায় যথাযথভাবে কাজটি সম্পন্ন হয়েছে। তাই এই অর্জন সকলের।’#

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২২ - ২০২৪
Theme Customized By BreakingNews