কুলাউড়ায় বিদ্যুৎ সরবরাহ কেন্দ্রের বিরুদ্ধে গ্রাহকদের ক্ষোভের শেষ নেই কুলাউড়ায় বিদ্যুৎ সরবরাহ কেন্দ্রের বিরুদ্ধে গ্রাহকদের ক্ষোভের শেষ নেই – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০৫:৫৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বড়লেখায় ঘরে অবরুদ্ধ অর্ধমৃত গৃহবধুকে পুলিশের উদ্ধার কমলগঞ্জে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবলে কমলগঞ্জ পৌরসভা চ্যাম্পিয়ান       বড়লেখায় ভুমিসেবা সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘরপ্রাপ্ত ১৬ পরিবারকে জমির দলিল হস্তান্তর ভোরের কাগজের বিরুদ্ধে মামলা : বড়লেখায় প্রেসক্লাবের প্রতিবাদ সভা কুলাউড়ায় অগ্নিকান্ড জনিত দূর্যোগ মোকাবেলায় করণীয় বিষয়ক প্রশিক্ষণ সমাপ্ত রাজনগরে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সাথে পুলিশের গাড়ির ধাক্কা এসআই’র মৃত্যু কুলাউড়ায় চা শ্রমিক সমাবেশে নাদেল – চা শ্রমিকদের সকল সুবিধা নিশ্চিত করবে সরকার বড়লেখায় কেক কেটে ইউএনও’র বর্ষপূর্তি পালন বড়লেখায় সাংবাদিক লাভলুর চাচা আরব আলীর কোলখানি বড়লেখায় ইউএনও’র এক বছর পূর্ণ হচ্ছে ২০ মে

কুলাউড়ায় বিদ্যুৎ সরবরাহ কেন্দ্রের বিরুদ্ধে গ্রাহকদের ক্ষোভের শেষ নেই

  • শনিবার, ১৪ মে, ২০২২

এইবেলা, কুলাউড়া  :: কারণে অকারণে দীর্ঘ সময় বিদ্যুৎহীনতা। ভৌতিক বিল দিয়ে গ্রাহক হয়রানি। গ্রাহকদের সঙ্গে প্রতিনিয়ত দুর্ব্যবহার। নির্বাহী প্রকৌশলীসহ ৩ কর্মকর্তার দুর্নীতি আর ঘুষ বাণিজ্য। সংশ্লিষ্টদের উপর এমন নানা গুরুতর অভিযোগ কুলাউড়া (বিপিডিবি)’র বিদ্যুৎ বিক্রয় ও বিতরণ কেন্দ্রের আওতাধীন (বড়লেখা, জুড়ী ও কুলাউড়া উপজেলার) উপকারভোগী গ্রাহকদের।

উপজেলার বিভিন্ন হাটবাজারে মানববন্ধন, প্রতিবাদ সভা ও বিক্ষোভ মিছিলসহ নানা কর্মসূচি পালন করে বিদ্যুৎ বিভাগের এমন আচরণের তীব্র প্রতিবাদ জানানো হয়েছে। নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সেবা প্রাপ্তির নিশ্চয়তা ও দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তাদের অপসারণে আল্টিমেটামও দিয়েছেন দুর্ভোগগ্রস্থ গ্রাহকরা। কিন্তু তারপরও টনক নড়ছে না সংশ্লিষ্টদের। গ্রাহকরা ক্ষোভের সঙ্গে জানান, এ সময়ে জাতীয় গ্রিড থেকে বিদ্যুৎ প্রাপ্তিতে কোনো ঘাটতি নেই তাছাড়া উল্লেখযোগ্য প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও বির্পযয়ও নেই। তারপরও ঘনঘন বিদ্যুৎ বিভ্রাটে চরম দুর্ভোগে সেবাগ্রহীতা।

ইতোমধ্যে দুর্ভোগগ্রস্থ বিক্ষুব্ধ গ্রাহকরা এমন দুরবস্থা নিরসণে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। যার অনুলিপি দেয়া হয়েছে স্থানীয় সংসদ সদস্য, বিদ্যুৎ বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ, জেলা প্রশাসক, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ সংশ্লিষ্টদের।

ঈদের আগে একটানা প্রায় তিনদিন বিদ্যুৎহীন ছিল পুরো ব্রাহ্মণবাজার ইউনিয়ন। ঘনঘন বিদ্যুৎ বিভ্রাটে আসন্ন এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থীসহ শিক্ষার্থীদের পড়ালেখার চরম ব্যাঘাত সৃষ্টি হচ্ছে। গ্রাহকদের অভিযোগ কর্মকর্তারা ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে আঁতাত করে নিন্মমানের খুচরা যন্ত্রাংশ ক্রয় ও বাৎসরিক মেরামতজনিত খরচ বাবদ বড় অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়ে গ্রাকদের পরিকল্পিতভাবে বিদ্যুৎ বিভ্রাটের দুর্ভোগে ফেলছে। তাছাড়া পুড়ে যাওয়া মিটার ও সংযোগ বিচ্ছিন্ন লাইনে মিটার সংযোগ দেখিয়ে ভুতুড়ে বিলও দিচ্ছে। এমন বিলে গ্রাহক বিব্রত হলে মিটার রিডার ও লাইনম্যানদের মাধ্যমে দফারফা করা হয়। উৎকোচ দিলেই সব সমস্যার সমাধান। ব্যত্যয় হলে মামলার ভয়ভীতি ও মামলা দিয়েও করা হয় হয়রানি। মিটার সংযোগের ফি নিয়ে দীর্ঘদিন পরও মিটার না দিয়ে মাস শেষে কাগজের বিলের পরিবর্তে মিটার রিডারদের মাধ্যমে নগদ টাকা তোলা হচ্ছে বলে অভিযোগ গ্রাহকদের।

এসব বিষয়ে কুলাউড়া বিদ্যুৎ বিক্রয় ও বিতরণ কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. ওসমান গণী জানান, গ্রাহকদের আনীত সব অভিযোগ সঠিক নয়। বৈরী আবহাওয়ায় কম লোকবল নিয়ে লাইন মেরামত করে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সেবা দিতে কিছুটা সমস্যা হচ্ছে।

তিনি আরও জানান, শিগগিরই উত্তর কুলাউড়ায় আরও একটি ৩৩/১১ হাজার কেবির একটি সাবস্টেশন নির্মাণ হচ্ছে। এটা হলে এই দুর্ভোগ থাকবে না। #

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৫ - ২০২০
Theme Customized By BreakingNews