মুঠোফোনে জানাতে পারবেন হাকালুকি হাওরের প্রতিবেশ কার্যকলাপ মুঠোফোনে জানাতে পারবেন হাকালুকি হাওরের প্রতিবেশ কার্যকলাপ – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ০৬:৫৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কুলাউড়ার সীমান্তবর্তী শরীফপুরে ঝড়ে গাছ পড়ে ৩ সন্তানের জননীর মৃত‌্যু কুলাউড়ার সদপাশা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিদায় সংবর্ধনা কমলগঞ্জে মণিপুরি কমিউনিটি বেইজড ট্যুরিজম বিষয়ক মতবিনিময় ফুলবাড়ীর মানুষের দাবি বাংটুর ঘাটে ব্রিজ চাই কমলগঞ্জ উপজেলা বিএনপি নেতা রানার স্বেচ্ছায় অব্যাহতি মায়ের ওড়নাকে শাড়ীতে রুপান্তর করলেন জেফার আজ আইপিএলের ফাইনাল, বৃষ্টির শঙ্কা জুড়ীতে মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের স্থান নির্বাচন করার দাবি দ্রোহী আর সাম্যের কবি নজরুল বাঙালি মনীষার এক তুঙ্গীয় নিদর্শন ও দার্শনিক  উপজেলা নির্বাচন : আত্রাইয়ে নির্বাচনী সহিংসতায় আহত-৪, আটক-৮

মুঠোফোনে জানাতে পারবেন হাকালুকি হাওরের প্রতিবেশ কার্যকলাপ

  • মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী, ২০২৩

এইবেলা, কুলাউড়া :: এশিয়ার বৃহত্তম হাওর হাকালুকি তীরের মানুষ নিজের হাতের মুঠোফোনে জানাতে পারবেন প্রতিবেশ কার্যকলাপ। ৩০ জানুয়ারি সোমবার হাওর তীরের কুলাউড়া উপজেলার ভুকশিমইল ইউনিয়নে ভিসিজি কমিটির সদস্যদের এ সংক্রান্ত প্রশিক্ষণ এবং টিমবি (Timby) নামক অ্যাপের ব্যবহার বিষয়ক মতবিনিমিয় সভায় জানানো হয়, বাংলাদেশে প্রথম এই প্রযুক্তির মাধ্যমে মানুষ তথ্য জানাবে হাকালুকি হাওর তীরের মানুষ।

ভুকশিমইল উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ সভাকক্ষে সোমবার অনুষ্ঠিত টিমবি ব্যবহার বিষয়ক মতবিনিময় সভায় হাকালুকি হাওরে কুলাউড়া উপজেলা অংশে ভিসিজি (ভিলেজ কনজারভেটিভি গ্রুপ) ও সদস্য, শিক্ষক, শিক্ষার্থী এবং সচেতন ও স্মার্ট ফোন ব্যবহারকারী ২৫ জনের একটি গ্রুপ টিমবি অ্যাপ ব্যবহারের উপর প্রশিক্ষণ নেন। পর্যায়ক্রমে হাকালুকি হাওর তীরের ৫ উপজেলার ভিসিজিসহ সচেতন মানুষকে এই অ্যাপস ব্যবহার শেখানো হবে।

মতবিনিময়কালে সিএনআরএসের প্রতিবেশ প্রকল্পের সাইড অফিসার তৌহিদুর রহমান বলেন, ছোটবড় ২৪৩টি বিল নিয়ে মিঠা পানির মৎস্য প্রজনন কেন্দ্র হলো এই হাকালুকি হাওর। ১৯৯৯ সালে এই হাওরকে প্রতিবেশ সংকটাপন্ন এরিয়া (ইসিএ) হিসেবে ঘোষণা করা হয়। সরকারি বেসরকারি অনেক সংস্থা এই হাওর উন্নয়নে কাজ করেছে। প্রকল্প কাজ চলাকালে হাওরে ক্ষতিকর কর্মকান্ড কিছুটা কমলেও কোন প্রকল্প না থাকলে তা আবার বেড়ে যায়। শুধু ক্ষতিকর দিক না পর্যটক আকৃষ্ট করতে হাওরে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য তুলে ধরতে পারবে এই অ্যাপের মাধ্যমে।

প্রতিবেশ প্রকল্পের কমিউনিকেশন স্পেশালিস্ট ওবায়দুল ফাত্তাহ তানভীর বলেন, হাওরের ক্ষতিকর কর্মযজ্ঞগুলো প্রকল্পের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে যাবে। তারা যাতে এসব ক্ষতিকর কর্মকান্ড প্রতিরোধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করে- এ ব্যাপারেও চাপ সৃষ্টি করা হবে।

প্রতিবেশ প্রকল্পের ফাউন্ডার অঞ্জলি নায়ার বলেন, এই অ্যাপ হাওর উন্নয়নে ব্যাপক ভুমিকা রাখবে। তবে এলাকার মানুষকে সচেতন হতে হবে। তাৎক্ষণিকভাবে এই অ্যাপের মাধ্যমে একাধিক ব্যক্তি ফটো, ভিডিও এবং অডিও পাঠাতে পারবেন স্মার্টফোন ব্যবহারকারী হাওর তীরের জনগণ।

প্রতিবেশ প্রকল্পের মিল ফ্যাসিলিটেটর ফজলে আরাফাত বলেন, খুব দ্রুত সময়ে এবং উড়ন্ত পাখির ছবি তুলে পাঠানো যাবে। এতে কোন জায়গা থেকে কখন ছবিটি তুলে পাঠানো হয়েছে সে সংক্রান্ত আপডেট তথ্য থাকবে। বাংলাদেশে প্রথম এই অ্যাপের ব্যবহার হাকালুকি হাওর তীরের কুলাউড়া থেকে শুরু হচ্ছে। পর্যায়ক্রমে হাওর তীরের সবক’টি উপজেলায় প্রশিক্ষণ এবং সাইনবোর্ডের মাধ্যমে হাওরের আগন্তক পর্যটকসহ হাওর তীরের মানুষ যাতে এই অ্যাপ সহজে ব্যবহার করতে পারে সেই উদ্যোগ নেয়া হবে।

প্রতিবেশ প্রকল্পের ফিল্ড ডিরেক্টর মাযহারুল ইসলাম জাহাঙ্গীর বলেন, হাকালুকি হাওর তীরের মানুষেরা প্রতিবেশের বাস্তব চিত্র তুলে পাঠাবে। এতে হাওরে ক্ষতিকর কর্মকান্ড হ্রাস পাবে। হাওরে ফিরে আসবে প্রকৃতিক ভারসাম্য। সেই সাথে হাওরে সৌন্দর্য্য পিপাসু পর্যটকদের সংখ্যাও বাড়বে। এজন্য হাওর তীরের মানুষকে আগে সচেতন হতে হবে। হাওরকে তার আগের অবস্থানে ফিরিয়ে নিয়ে যেতে এই অ্যাপ কার্যকর ভুমিকা পালন করবে।#

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২২ - ২০২৪
Theme Customized By BreakingNews