হবিগঞ্জে আ. লীগ ও পুলিশের সঙ্গে বিএনপির ত্রিমুখী সংঘর্ষে শতাধিক আহত হবিগঞ্জে আ. লীগ ও পুলিশের সঙ্গে বিএনপির ত্রিমুখী সংঘর্ষে শতাধিক আহত – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
বুধবার, ০৪ অক্টোবর ২০২৩, ০৮:২৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বড়লেখায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের প্রতিমা কারখানা ও পুজামন্ডপ পরির্দশণ বড়লেখায় ৩ ব্যবসায়ির ২৬ হাজার টাকা জরিমানা জাতীয় সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় অদিতি দাসের রৌপ্য পদক অর্জন কমলগঞ্জে সড়ক ধারের গাছ কেটে নেয়ার অভিযোগ : গাছ কাটার সরঞ্জাম আটক সাংবিধান অনুযায়ী যথাসময়ে সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে– উপাধ্যক্ষ ড. মো: আব্দুস শহীদ এমপি কমলগঞ্জে সিএনজি অটোরিকশার ধাক্কায় আহত হয়ে মাছ বিক্রেতার মৃত্যু আত্রাইয়ে পল্লী বিদ্যুতের ভুতুড়ে বিলে দিশেহারা গ্রাহক কর্মধা স্কুলে সংবর্ধনায় প্রধানমন্ত্রীর প্রটোকল অফিসার রাজু- কুলাউড়ার উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছি কুলাউড়া ইউসিসিএ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে সাইফুল নির্বাচিত কুলাউড়ায় মাথায় ইট পড়ে নির্মাণ শ্রমিকের মুত্যু

হবিগঞ্জে আ. লীগ ও পুলিশের সঙ্গে বিএনপির ত্রিমুখী সংঘর্ষে শতাধিক আহত

  • রবিবার, ২০ আগস্ট, ২০২৩

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি :: হবিগঞ্জে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে পৌর কাউন্সিলরসহ শতাধিক আহত হয়েছেন। রোববার বিকালে শহরের শায়েস্তানগরে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে এ সংঘর্ষ হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রোববার বিকালে শহরের শায়েস্তানগর পয়েন্টে প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিলের ডাক দেয় আওয়ামী লীগ। ঘোষণা অনুযায়ী নেতাকর্মীরা বিকালে সমাবেশস্থলে জড়ো হন। সমাবেশ শেষে মিছিল বের করা হয়। তারা বিএনপি কার্যালয়ের সামনে পৌঁছলে উভয়পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে যায়। তারা বিএনপি নেতাকর্মীদের ধাওয়া দিলে সংঘর্ষ ত্রিমুখী রূপ নেয়।

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. আলমগীর চৌধুরী বলেন, আমরা শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ সমাবেশ করেছি। সমাবেশ শেষে শান্তিপূর্ণ মিছিল বের করি। এ সময় হঠাৎ বিএনপি নেতাকর্মীরা ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকলে সংঘর্ষ শুরু হয়। এতে আমাদের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী আহত হন। তবে কতজন আহত হয়েছেন তা এখনই বলা সম্ভব নয়।

বিএনপির কেন্দ্রীয় সমবায় বিষয়ক সম্পাদক সাবেক পৌর মেয়র জিকে গউছ বলেন, আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা মিছিল নিয়ে লাঠিসোঁটা সহকারে হঠাৎ আমাদের দলীয় কার্যালয়ে হামলা করে। অফিসে ব্যাপক ভাঙচুর করেছে। আমার বাসায় ভাঙচুর করেছে তারা। পুলিশও তাদের সঙ্গে সংঘর্ষে যোগ দিয়েছে। হামলায় পৌর কাউন্সিলর শফিকুর রহমান সিতুসহ অসংখ্য নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

সদর মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বদিউজ্জামান জানান, বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত আছে। তবে কত রাউন্ড রাবার বুলেট এবং কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ করা হয়েছে তা এখন বলা সম্ভব নয়।#

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২২ - ২০২৪
Theme Customized By BreakingNews