- অর্থ ও বাণিজ্য, জাতীয়, ব্রেকিং নিউজ, মৌলভীবাজার, স্থানীয়, স্লাইডার

কুলাউড়ায় বাড়ি বাড়ি গিয়ে দেয়া হচ্ছে মন্ত্রীর বরাদ্ধকৃত ত্রাণ

এইবেলা ডেক্স, কুলাউড়া, ১৩ জুলাই ::  দুর্যোগ ব্যবস্থপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া ঘোষিত সরকারী বরাদ্ধের সেই ত্রাণ কুলাউড়া উপজেলার বন্যাকবলিত এলাকার ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের মধ্যে বিতরণ শুরু হয়েছে। কুলাউড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আসম কামরুল ইসলাম ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার চৌধুরী মো: গোলাম রাব্বীর উদ্যোগে আশ্রয় কেন্দ্র ছাড়াও বন্যাকবলিত বিভিন্ন বাড়ি বাড়ি গিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের হাতে পৌঁছে দেয়া হয় এই ত্রাণ।

উপজেলা প্রশাসন সুত্রে জানা যায়,  ত্রাণ মন্ত্রণালয় থেকে মৌলভীবাজার জেলার বন্যা দুর্গোত মানুষের জন্য বরাদ্দ হওয়া ১ হাজার বান্ডেল ঢেউটিন, ৩০ লাখ টাকা, ২শত টন চাল এবং আশ্রয় নেয়া ২ হাজার মানুষের জন্য শুকনো খাদ্যসামগ্রী।  বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত  কুলাউড়া, জুড়ী ও বড়লেখা উপজেলার পানিবন্দি মানুষের জন্য এ ত্রাণ বরাদ্দ দেন ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া।

তিনি গত ৪ জুলাই (মঙ্গলবার) কুলাউড়া উপজেলার হাওরাঞ্চল পরিদর্শনকালে একটি অনুষ্ঠানে এ বরাদ্দের ঘোষণা দেন।  ঘোষণা দেওয়ার এক সাপ্তাহের মধ্যে জেলার তিনটি উপজেলায় পৌছে যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের জন্য বরাদ্দকৃত এই নগদ টাকা, টিন, চাল ও খাবার। ইতিমেধ্যে কুলাউড়া উপজেলার কাদিপুর ইউনিয়নের বন্যাকবলিত বিভিন্ন বাড়ি বাড়ি গিয়ে ত্রাণ পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।

কুলাউড়া উপজেলা চেয়ারম্যান আসম কামরুল জানান, জেলা প্রশাসকসহ আমারা একটি ইউনিয়নের বাড়ি বাড়ি গিয়ে বন্যাকবলিত মানুষের হাতে ত্রাণ পৌছে দিয়েছি । এবং অন্যান্য ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানগনকে বলেছি বিতরণের সময় আমাদেরকে জানানোর জন্য। আমারা উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ সেইসব ইউনিয়নের বন্যাকবলিত এলাকায় ত্রাণ বিতরণে সময় উপস্থিত থাকার চেষ্টা করবো।

উল্লেখ্য,  মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক মো: তোফায়েল ইসলাম, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা মো: আজিজুর রহমান, কুলাউড়া উপজেলা পরিষদের চেয়াম্যান আসম কামরুল ইসলাম, কুলাউড়া উপজেলার নির্বাহী অফিসার চৌধুরী মো: গোলাম রাব্বী গত ১১ জুলাই মঙ্গলবার ত্রাণ মন্ত্রণালয় থেকে বরাদ্দকৃতে এই ত্রাণ বিতরনী অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন।#

About eibeleamialabula

Read All Posts By eibeleamialabula

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *