- জাতীয়, ব্রেকিং নিউজ, মৌলভীবাজার, স্থানীয়, স্লাইডার

বড়লেখা-কুলাউড়া আঞ্চলিক মহাসড়ক বেহাল যান চলাচল স্বাভাবিক হলেও কমেনি দুর্ভোগ

দুই মাস পর নেমেছে বন্যার পানি

আবদুর রব, বড়লেখা, ০১ আগষ্ট :: মৌলভীবাজারের বড়লেখা-কুলাউড়া আঞ্চলিক মহাসড়ক থেকে প্রায় দুই মাস পর বন্যার পানি নামায় গত দু’দিন ধরে সড়কে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হলেও সড়কটি বেহাল হয়ে পড়েছে। দীর্ঘদিন বন্যার পানি থাকায় সড়কের অন্তত ১৫-২০টি স্থানে অসংখ্য গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এতে জনদুর্ভোগ চরমে পৌঁছেছে।

মঙ্গলবার সরেজমিন ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, ভারী বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে সৃষ্ট বন্যায় গত দুই মাস বড়লেখা-কুলাউড়া আঞ্চলিক মহাসড়কের জুড়ী উপজেলা কমপ্লেক্সের সম্মুখ, চৌমোহনী, উত্তর জাঙ্গীরাই, বাছিরপুর, পশ্চিম হাতলিয়ার ৪টি স্থানসহ সড়কের ১০ স্থান ৩-৪ ফুট পানিতে তলিয়ে যায়। এতে যান চলাচল বিঘিœত হওয়ায় চরম দুর্ভোগে পড়েন এই সড়ক দিয়ে চলাচলকারী কয়েক লাখ মানুষ। জরুরি প্রয়োজনে ট্রাক, ট্রাক্টর ও পাওয়ার টিলারের মাধ্যমে স্বাভাবিকের চেয়ে কয়েকগুণ বেশি ভাড়া দিয়ে চলতে হয়েছে এলাকাবাসীকে। ফলে তাদের সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে।

এদিকে বৃষ্টি কমায় সড়ক থেকে বন্যার পানি সরে গেছে। ফলে গত দুইদিন ধরে আঞ্চলিক এ সড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে। তবে দীর্ঘদিন ধরে বন্যার পানি থাকায় সড়কের অন্তত ১৫-২০টি স্থানে অসংখ্য গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এতে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে যানবাহন। অনেক যানবাহন বড় বড় গর্তের মধ্যে সড়কে চলতে গিয়ে আটকা পড়তে দেখা গেছে।

অটোরিকশা চালক রাজু আহমদ বলেন, ‘প্রায় ১ মাস পর আজকে এ সড়ক দিয়ে মৌলভীবাজার যাচ্ছি। বন্যার পানিয়ে সড়ক একবারে ভাঙিলাইছে। সড়কও অনেক গর্ত অইছে। গাড়ি যেন হেলে-দুলে চলে। অনেক কষ্ট ওর (হচ্ছে)।’

Barlekha Pic- (02)

কলেজ ছাত্র সালমান বলেন, ‘বন্যার পানি সড়কে উঠায় অনেক কষ্ট করে কলেজে আসা-যাওয়া করতে হয়েছে। অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে চলাচল করতে হয়েছে। এখন সড়ক থেকে পানি নামলেও বড় ও গভীর গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এতে দুর্ভোগ আরও বাড়ছে। সড়কটি দ্রুত সংস্কার করলে জনদুর্ভোগ কিছুটা লাঘব হবে।’

সওজ মৌলভীবাজার কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী মিন্টু রঞ্জন দেবনাথ জানান, কুলাউড়া-বড়লেখা সড়কের ৩ কিলোমিটার জায়গার বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আপাতত সড়কে ইট-বালু ফেলে গর্ত ভরাট করে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক করা হচ্ছে। সড়কের নিচু স্থান উচু করার জন্য মেঘা প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে।#

About eibeleamialabula

Read All Posts By eibeleamialabula

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *