অক্টোবর ২৪, ২০১৭
Home » ব্রেকিং নিউজ » রাজনগরে পিআইওর বিরুদ্ধে চেয়ারম্যানের থানায় অভিযোগ দায়ের

রাজনগরে পিআইওর বিরুদ্ধে চেয়ারম্যানের থানায় অভিযোগ দায়ের

এইবেলা, রাজনগর, ২৪ অক্টোবর :: মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) আজেদুর রহমান আজাদের বিরুদ্ধে রাজনগর থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন মনসুরনগর ইউপি চেয়ারম্যান মিলন বখত। সোমবার ২৩ অক্টোবর রাতে তিনি এ অভিযোগ করেন। পিআইও’র বিরুদ্ধে মোবাইল ফোনে হুমকির দেয়ার অভিযোগ চেয়ারম্যানের। তবে প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা অভিযোগটি অস্বীকার করেছেন।

লিখত অভিযোগ ও সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, গত কয়েকদিনের টানা বৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা পানিতে মনু নদের উভয় তীর ভাঙনের ঝুঁকিতে ছিল। রোববার রাতে মনসুনগর ইউনিয়নের শ^াসমহাল এলাকায় ইউইপি চেয়ারম্যান মিলন বখত নিজে উপস্থিত থেকে স্বেচ্ছাশ্রমে বাঁধ রক্ষায় রাত সাড়ে ১২টা পর্যন্ত কাজ করেন। বিষয়টি তিনি ওই সময়ই জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে ফোন করে জানান।

পরদিন সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলা প্রকল্প বাস্থবায়ন কর্মকর্তা আজেদুর রহমান ইউপি চেয়ারম্যনের মোবাইলে ফোন করে ধমক দিয়ে বলেন ‘এই চেয়ারম্যান মনু নদীর বাঁধ সংক্রান্তে আপনি জেলা প্রশাসক উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে কেন জানালেন? ওরা আপনাকে কি কোন সাহায্য সহযোগিতা করতে পারবে? কোন কিছু আপনাকে দিতে হলে আমার মাধ্যমে জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার দিতে হবে।’

এব্যাপারে তিনি এর কারণ জানতে চাইলে পিআইও হুমকি দেয়া ফোন কেটে দেন। এতে তিনি আশঙ্কা করেন যে তার এলাকায় উন্নয়নমূলক কাজ করলে তিনি (পিআইও) বড় ধরনের ক্ষতি করতে পারেন। এছাড়াও খুন-খারাবি করারও আশঙ্কা প্রকাশ করেন ইউপি চেয়াম্যান। পরে তিনি অন্যান্য ইউপি চেয়ারম্যানদের সঙ্গে আলোচনা করে রাজনগর থানায় লিখিত অভিযোগ দেন।
এব্যাপারে উপজেলা প্রকল্প বাস্তাবায়ন কর্মকর্তা আজেদুর রহমান আজাদ হুমকির বিষয়টি অস্বীকার করে জানান, আমি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সামনে থেকেই উনাকে ফোন করেছি। উনি চেয়ারম্যান; উনাকে সম্মান করেই আমি কথা বলেছি। আমরা এখানে কাজ করতে এসেছি। মারামারি করতে নয়।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার তৌহিদুজ্জামান পাভেল জানান, পিআইও আমার সামনেই কথা বলেছেন। এখানে তেমন কোন কথা হয়নি। বিষয়টি নিয়ে বসার জন্য যোগযোগ করেছি। উনি ব্যস্ততা দেখিয়েছেন। অভিযোগের বিষয়ে তিনি বলেন, এটি অভিযোগের বিষয় নয়। উনি যদি থানায় অভিযোগ করেন পুলিশ দেখবে বিষয়টি।

রাজনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শ্যামল বণিক জানান, ইউপি চেয়ারম্যানের অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি নির্বাহী অফিসার মিটমাট করে দেবেন  বলে আমাকে জানিয়েছেন।#