সিলেটের মোগলাবাজার থেকে জাফলংয়ের পাথর ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার  সিলেটের মোগলাবাজার থেকে জাফলংয়ের পাথর ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার  – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ০৬:৪৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
জুড়ীতে স্থানীয় দুর্যোগ ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা বিষয়ক পরিকল্পনা প্রণয়ন কর্মশালা বড়লেখা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অবহিতকরণ সভা বড়লেখার এমরানের কানাডা যাওয়ার স্বপ্ন কেড়ে নিল ঘাতক ট্রাক কমলগঞ্জে বিশ্ব বন্যপ্রাণী দিবস পালিত চুনারুঘাটে প্রতিবন্ধী তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ : যুবক আটক কুড়িগ্রামে ছাত্রলীগ কর্মী বাবলু হত্যা মামলায় ২০ মাস পর ইউপি চেয়ারম্যান কারাগারে ঋতুরাজ বসন্তে প্রকৃতিতে আম্র মুকুল ঘ্রাণ ছড়াচ্ছে স্ব মহিমায় বাংলাদেশ জাতীয় চা শ্রমিক জোট কুলাউড়ার গাজীপুর চা বাগান কমিটি গঠন সময়ের আলো ‘আলো’ হয়ে জ্বলুক অবিরাম : এমপি নাদেল রাজনগর থেকে ট্রাক বোঝাই ৩৮০ বস্তা ভারতীয় চিনি আটক

সিলেটের মোগলাবাজার থেকে জাফলংয়ের পাথর ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার 

  • শুক্রবার, ১২ জুন, ২০২০

এইবেলা, সিলেট :: 

সিলেটের মোগলাবাজারে যে অজ্ঞাত পরিচয়ের এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করা হয়েছে সেই মরদেহটি জাফলংয়ের পাথর ব্যবসায়ী আবুল কালামের। তিনি গত (১০ জুন) বুধবার সিলেটের মোগলাবাজার এলাকার এক ব্যক্তির কাছে পাথর ব্যবসার পাওয়ানা টাকার জন্য গিয়ে আর বাড়ি ফিরেননি।

শুক্রবার (১২জুন) সকালে অনলাইনসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে তার ছবি দেখে মরদেহটি আবুল কালামের বলে তার পরিবারের লোকজন সনাক্ত করেন। আবুল কালাম (৫০) গোয়াইনঘাট উপজেলার পূর্ব জাফলং ইউনিয়নের কান্দুবস্তি গ্রামের বাসিন্দা।

নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, র্দীঘ প্রায় ত্রিশ বছর ধরে আবুল কালাম জাফলং এলাকায় পাথর ব্যবসা করে আসছিলেন। কোয়ারি থেকে পাথর ক্রয় করে তা অন্যত্র বিক্রি করাই ছিল তার ব্যবসার ধরণ। এরই ধারাবাহিকতায় বেশ কিছুদিন ধরে সিলেটের মোগলা বাজার এলাকার এক ব্যবসায়ীর কাছে পাথর সরবরাহ করে আসছিলেন তিনি।

গত বুধবার বিকেলে পাথর বিক্রির বকেয়া টাকার জন্য মোগলাবাজার এলাকার ওই ব্যবসায়ীর উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান আবুল কালাম। এরপর থেকেই তিনি নিখোঁজ ছিলেন।

এরই মধ্যে গত বৃহস্পতিবার (১১ জুন) সকাল সাড়ে ১০ টায় সিলেট-ফেঞ্চুগঞ্জ সড়কের পাশে শিববাড়ী বাজারের ষাটঘর নামক এলাকা থেকে অজ্ঞাত পরিচয়ের এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করে মোগলাবাজার থানা পুলিশ। পরে লাশের ময়না তদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।

তাঁকে হত্যা করে বুধবার রাতের কোন একসময়ে তার লাশ রাস্তার পাশে ফেলে রাখা হয়েছে বলে ধারণা করা হলেও কে বা কারা তাকে হত্যা করেছে এ বিষয়ে স্পষ্ট করে কিছু বলতে পারেনি পুলিশ।

খবর পেয়ে আজ শুক্রবার সকালে নিহতের ভাতিজা মো. সুমন মিয়া সেখানে গিয়ে মরদেহটি তার চাচা পাথর ব্যবসায়ী আবুল কালামের বলে সনাক্ত করেন। সুমন বলেন, পাওয়ানা টাকার জন্য গিয়ে আমার চাচা লাশ হয়ে ফিরবেন আমরা কখনও ভাবতেও পারিনি।

এ ব্যাপারে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের মোগলাবাজার থানার ওসি আক্তার হোসেন বলেন, মরদেহের শরীরে বাহ্যিক কোন আঘাতের চিহ্ন নেই। তারপরও বিষয়টি গুরুত্বসহকারে তদন্ত করা হচ্ছে। ময়না তদন্ত রিপোর্ট পেলে হত্যা কি না তা জানা যাবে।#

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২২ - ২০২৪
Theme Customized By BreakingNews