চিলমারীতে বন্যায় বীজতলা নষ্ট : দিশেহারা কৃষকরা চিলমারীতে বন্যায় বীজতলা নষ্ট : দিশেহারা কৃষকরা – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট ২০২২, ০৭:৩২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কুলাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সাক্ষাৎ বড়লেখায় হত্যা চেষ্টা মামলার রায়- ইউপি মেম্বারসহ ৩ আসামীর সশ্রম কারাদণ্ড ওসমানীনগরে বঙ্গবন্ধুর ৪৭ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী পালিত কুলাউড়ায় ইয়াবা ব্যবসায়ী আটকে এলাকায় আনন্দ মিছিল জাতীয় শোক দিবসে বড়লেখার ১০০ দুস্ত পরিবার পেল বিজিবি’র খাদ্যসামগ্রী কুলাউড়ায় জাতীয় শোক দিবস পালিত ১৯ মাসেও বাস্তবায়ন হয়নি চা শ্রমিকদের মজুরি বৃদ্ধির চুক্তি বড়লেখায় প্রবাসী ব্যারিস্টার সুমনকে নাগরিক সংবর্ধনা বড়লেখায় জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল বড়লেখা ফ্রেন্ডস ক্লাব ইউ,কে’র মানবিক সহায়তা, অচ্ছল পরিবারকে ঘর হস্তান্তর

চিলমারীতে বন্যায় বীজতলা নষ্ট : দিশেহারা কৃষকরা

  • শুক্রবার, ৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০
ফুলবাড়ী :: গাবেরতল বাজারে আমনের চারা ক্রয়-বিক্রয় চলছে। ছবি :: এইবেলা

চিলমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি :: কুড়িগ্রামের চিলমারীতে দ্বিতীয় দফা বন্যায় গোটা উপজেলা প্লাবিত হওয়ায় আমন বীজতলা নষ্ট। যার ফলে কৃষকরা বেশি মূল্যে ধানের চারা ক্রয় করতে হচ্ছে। এতে অিনেক কৃষকরা চারা ক্রয় করে রোপনে দিশেহারা। আমন চারা ব্যবসায়ীরা রংপুর, সৈয়দপুর, তারাগঞ্জ, পীরগাছা, কাউনিয়া, তিস্তা, রাজারহাটসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে চারা ক্রয় করে নিয়ে এসে উপজেলার বিভিন্ন হাটবাজারে বিক্রি করছে। অনেকে চড়া মূল্যে চারা ক্রয় করে নিয়ে এসে তা জমিতে রোপন শুরু করলেও নিম্ন আয়ের কৃষকরা চারার মূল্য বেশী হওয়ায় আমন চারা রোপন করতে না পেরে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন।

গাবেরতল এলাকার কৃষক সাজু মিয়া (৭০) জানান, দ্বিতীয় দফা বন্যায় পুরো বীজতলা নষ্ট হয়ে যাওয়ায় চড়া মূল্যে চারা ক্রয় করতে না পেরে রোপা আমন চারা রোপন করতে পারছিনা। মজাই ডাঙ্গা এলাকার কৃষক আনছার আলী (৭৫) জানান, বন্যায় পানি বাড়ীতে ওঠায় ঘর বাড়ী ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হওয়ায়সহ আমন বীজতলা নষ্ট হওয়ায় এবং আমন চারার বেশী মূল্য হওয়ায় চারা ক্রয় করতে হিমশিম খাচ্ছি। সরকারী-বেসরকারী ভাবে চারা পেলে আমন চারা রোপন করা সম্ভব হবে।

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিস সূত্রে জানা যায়, এবারের বন্যায় চিলমারী উপজেলার ৩২০ হেক্টর জমির আমন বীজতলা নষ্ট হয়ে যায়। ৮,৪০০ হেক্টর জমিতে আমন চারা রোপনের লক্ষ মাত্রা নিধারণ করা হয়েছে। কিন্তু বীজতলা নষ্ট হয়ে যাওয়ায় লক্ষ মাত্রা অর্জন না হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।

এইবেলা/জেএইচজে

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৫ - ২০২০
Theme Customized By BreakingNews