রাজনগর ব্যবসায়ী লক্ষণ হত্যাকান্ড : ৪ লাখ টাকায় ভাড়া করা হয় ৫ খুনি রাজনগর ব্যবসায়ী লক্ষণ হত্যাকান্ড : ৪ লাখ টাকায় ভাড়া করা হয় ৫ খুনি – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ০১:৪৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
উপজেলা পরিষদ নির্বাচন : কুলাউড়ায় চেয়ারম্যান পদে আ’লীগের ৩ শীর্ষনেতা বোরো ধানের সোনালী শীষে দুলছে কৃষকের স্বপ্ন বড়লেখায় যুব ফোরামের অর্ন্তভূক্তিকরণ সভা রাজারহাটে শিশুদের প্রতি সহিংসতা বন্ধে স্থানীয় স্টেক হোল্ডারদের সাথে সংলাপ ওসমানীনগরে বিদ্যুৎপৃষ্টে স্যানেটারী মিস্ত্রির মৃত্যু বড়লেখায় গণশুনানি : গ্রাহক হয়রানীর দায়ে পল্লীবিদ্যুত আজিমগঞ্জ কেন্দ্রের ইনচার্জকে বদলির নির্দেশ কমলগঞ্জে শমশেরনগরে রেললাইনের পাশে অবৈধ পশুর হাট কমলগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে চেয়ারম্যান প্রার্থী অধ্যাপক রফিকুর রহমানের সমর্থনে মতবিনিময় কুলাউড়ায় সাংবাদিকদের সাথে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী নেহার বেগমের মতবিনিময় বড়লেখায় প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক সমিতির ঈদ পুর্নমিলনী

রাজনগর ব্যবসায়ী লক্ষণ হত্যাকান্ড : ৪ লাখ টাকায় ভাড়া করা হয় ৫ খুনি

  • বুধবার, ১৭ মার্চ, ২০২১

খুনের ঘটনায় ৩ ঘাতক গ্রেফতার

রাজনগর প্রতিনিধি ::

মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলায় নিহত ব্যবসায়ী লক্ষণ পাল (৪০) কে হত্যার জন্য ৫ জন খুনিকে ৪ লাখ টাকায় ভাড়া করা হয়। ঘটনার সাথে জড়িত থাকার দায়ে ৩ জনকে গ্রেফতার করেছে রাজনগর থানা পুলিশ। রাজনগর থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল হাসিমের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে ১৬ মার্চ মঙ্গলবার গভীর রাতে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় খুনের ঘটনায় ব্যবহৃত ছুরি (চাকু) ও একটি সিএনজি অটোরিকশা জব্দ করা হয়।

আটককৃত আসামীরা হলেন রাজনগর উপজেলার আমিরপুর গ্রামের মৃত জসিম মিয়ার ছেলে রিয়াদ মিয়া (২৪), জামাল মিয়ার ছেলে জয়নাল আবেদীন (২৮), উত্তর ঘড়গাঁও গ্রামের রনজিত দেবের ছেলে রবেন্দ্র দেব (৩৬)।

পুলিশ জানায়, ব্যবসায়ী নিহত লক্ষণ পাল ব্যবসার পাওনা টাকা আদায়ের জন্য প্রতি শুক্রবার রাজনগর এলাকায় আজাদের বাজার, মোকামবাজার ও টেংরা বাজার টাকা আদায়ের জন্য আসেন। আসামী রবেন্দ্র দেবের সাথে পাওনা টাকা নিয়ে বেশ কিছুদিন পূর্বে থেকে বিরোধ ছিলো। তারই জের ধরে এলাকার বখাটে ৫ জন আসামীদের সাথে যোগাযোগ এবং আরও কতিপয় আসামীদের সহিত পরিকল্পনা করে ৪ লাখ টাকা দেয়ার এবং তার সাথে থাকা টাকার প্রলোভন দিয়ে হত্যার পরিকল্পনা করে। ঘটনার আগের শুক্রবারেও নিহত লক্ষণ পালকে খুন করার জন্য প্রস্তুতি নিয়েও সফল হতে পারেনি।

১২ মার্চ লক্ষণ পাল রাত ১০ টার সময় আজাদদের বাজারে আসলে আসামীরা রবেন্দ্র দেব সুকৌশলে হত্যার সাথে সরাসরি জড়িত ৫জন আসামীদের দেখিয়া দেন। আসামীরা প্রথমে ৩জন সিএনজি নিয়ে আজাদের বাজারে আসেন। এই সময় ব্যবসাযী লক্ষণ সিএনজি অটোরিক্সার জন্য অপেক্ষরত ছিলেন। তিনি উক্ত সিএনজি অটোরিক্সায় উঠেন। পথিমধ্যে কমলারানীর দীঘির আগে আরও ২ জন আসামীদের গাড়ীতে উঠানো হয়। কমলা দীঘির পশ্চিম পাশে মাঝামাঝি রাস্তায় গেলে আসামীরা তাকে চেপে ধরেন এবং টাকা, মালামাল নেয়ার চেষ্টাকালে বাঁধা দেয়ায় আসামীরা গলায় চাপ দিয়ে ধরে এবং উরুতে ছুরি (চাকু) দিয়ে ঘাই মেরে রক্তাক্ত জখম করে। সিএনজি অটোরিক্সা চলতি অবস্থায় লক্ষণ পাল মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে। লক্ষণ পালের সাথে থাকা নগদ ৫৫ হাজার টাকা ও ব্যবহৃত একটি বাটন ওয়ালা সিম্পনী মোবাইল ফোন আসামীরা ছিনিয়ে নেয়। পার্শীপাড়া নামক নিরাপদ স্থানে রাস্তার উপর আসামীরা লক্ষণ পালের মৃত দেহ রাস্তার উপরে ফেলে দেয়। আসামীরা কমলগঞ্জ থানা হয়ে মৌলভীবাজার চলে যায়।

রাজনগর থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল হাসিম জানান, আসামীরা স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দিয়েছে। বাকি আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে। বুধবার তাদের জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলায় পাওনা টাকা আদায় করতে গিয়ে এক লক্ষণ পাল (৩৭) নামক ব্যবসায়ী খুন হনে। ১২ মার্চ শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২ টার দিকে রাজনগর উপজেলার সদর ইউনিয়নের পার্শ্বিপাড়া এলাকায় রাজনগর-কর্ণিগ্রাম সড়ক থেকে পুলিশ তার মৃতদেহ উদ্ধার করে। এঘটনায় ১৩ মার্চ একটি হত্যা মামলা (নং ০৬) দায়ের করা হয়। #

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২২ - ২০২৪
Theme Customized By BreakingNews